scorecardresearch

বড় খবর

ক্লাসে আসেনি কোনও পড়ুয়া, বিবেকের দংশনে ৩৩ মাসের বেতন ফেরালেন শিক্ষক

মঙ্গলবার বেতনের টাকা বাবদ ২৩ লক্ষ ৮২ হাজার ২২৮ টাকার একটি চেক তুলে দিয়েছেন।

ক্লাসে আসেনি কোনও পড়ুয়া, বিবেকের দংশনে ৩৩ মাসের বেতন ফেরালেন শিক্ষক
লালন কুমার ফিরিয়ে দিলেন ৩৩ মাসের বেতন বাবদ ২৪ লক্ষ টাকা

ক্লাসে আসেনি কোনও পড়ুয়া, বিবেকের দংশনে ৩৩ মাসের বেতন ফেরালেন শিক্ষক, নজিরবিহীন এই ঘটনার সাক্ষী থাকল বিহারের মুজাফফরপুরের নীতিশেশ্বর কলেজ! কলেজ সূত্রের খবর কলেজেরই একজন সহকারী অধ্যাপক নিজের ৩৩ মাসের বেতন বাবদ মোট ২৪ লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন।

২০১৯ সালে চাকরিতে যোগ দেন লালন কুমার। তারপর থেকেই করোনা মহামারীর কারণে স্কুল কলেজ কার্যত বন্ধ! দীর্ঘদিন করোনার দাপটে চলেছে অনলাইন ক্লাস। বিবেকের তাড়নায় নিজের ৩৩ ,মাসের বেতন ফিরিয়ে নজির গড়লেন বিহারের এই সহকারী অধ্যাপক।

মঙ্গলবার বিআর আম্বেদকর বিহার ইউনিভার্সিটির (BRABU) রেজিস্ট্রারের হাতে বেতনের টাকা বাবদ ২৩ লক্ষ ৮২ হাজার  ২২৮  টাকার একটি চেক তুলে দিয়েছেন। বুধবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় লালন বাবু বলেন, “পড়ুয়াদের না পড়িয়ে বেতনের টাকা নিতে বিবেক আমাকে বাঁধা দিয়েছে। অনলাইন ক্লাসেও নামমাত্র পড়ুয়া ক্লাস করেছে। আমি শিক্ষা না দিয়ে বেতন নিলে সেটা আমার শিক্ষার মৃত্যু, তাই আমি নিজের ৩৩ মাসের বেতনের টাকার পুরোটাই আজ ফিরিয়ে দিয়েছি”।

আরও পড়ুন: [রেকর্ড বৃষ্টিতে বেসামাল বাণিজ্যনগরী! ভূমিধসে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি]

নীতিশেশ্বর কলেজ ১৯৭০ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামী নীতিশেশ্বর প্রসাদ সিং প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৭৬ সাল থেকে বিআর আম্বেদকর বিহার ইউনিভার্সিটির (BRABU) সঙ্গে যুক্ত হয় এই কলেজ। বিআর আম্বেদকর বিহার ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার আর কে ঠাকুর এই পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, “ লালন কুমার যা করেছেন তা খুবই অস্বাভাবিক সেই সঙ্গে প্রশংসনীয়। আমি ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলেছি। শ্রীঘ্রই কলেজের অধ্যক্ষের থেকে পুরো বিষয়টির একটি ব্যাখ্যা চাওয়া হবে”।

দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিন্দিতে স্নাতকোত্তর এবং দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি এবং এমফিল সম্পন্ন করেছেন লালন কুমার।  পিজি বিভাগে স্থানান্তরের জন্য কিছুদিন আগেই তিনি আবেদন করেন।

কুমার বলেন যে “কলেজে শিক্ষার কোনও পরিবেশ দেখিনিনি। আমি আমার বিবেকের কাছে দায়বদ্ধ”। নীতিশেশ্বর কলেজে প্রায় ৩ হাজার ছাত্রছাত্রী রয়েছেন, যাদের মধ্যে প্রায় ১,১০০ পড়ুয়া হিন্দি অনার্স নিয়ে পড়াশুনা করছেন। এই বিষয়ে একজন অতিথি শিক্ষক ছাড়াও কলেজের একমাত্র নিয়মিত হিন্দি শিক্ষক কুমার।

কলেজে সব মিলিয়ে ৩১ জন শিক্ষক এবং অতিথি শিক্ষক রয়েছেন। মহামারীর আগেও কেন কলেজে পড়ুয়ারা অনুপস্থিত ছিল জানতে চাইলে কলেজের অধ্যক্ষ মনোজ কুমার এ ব্যাপারে কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bihar college teacher listens to conscience returns 33 month salary over rs 23 lakh