scorecardresearch

বড় খবর

আসন্ন প্রজাতন্ত্র দিবসে বিরাট চমক ভারতের, প্রধান অতিথির পদ অলংকৃত করবেন এই রাষ্ট্রনায়ক

করো্না মহামারীর কারণে, টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্রজাতন্ত্র দিবসে কোনও বিদেশী নেতাকে প্রধান অতিথি হিসাবে আম্রন্ত্রণ জানানো হয়নি।

আসন্ন প্রজাতন্ত্র দিবসে বিরাট চমক ভারতের, প্রধান অতিথির পদ অলংকৃত করবেন এই রাষ্ট্রনায়ক

আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৩-এর ২৬শে জানুয়ারী ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেওয়ার জন্য মিশরের প্রেসিডেন্ট ফতাহ আল-সিসিকে একটি আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে ভারতের তরফে। আগামী বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রধান অথিতির আসন অলংকৃত করতে চলেছেন মিশরের প্রেসিডেন্ট ফাত্তাহ আল-সিসি।

প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মিশরের রাষ্ট্রপতি আবদেল ফতাহ আল-সিসিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ভারত। এল সিসি ২০১৪ সাল থেকে মিশরের প্রেসিডেন্ট পদে আসীন রয়েছেন। মিশর আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি্র দেশ। চলতি বছর ভারত ও মিশর কূটনৈতিক সম্পর্কের ৭৫তম বার্ষিকী উদযাপন করেছে।

নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর, ভারত প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের জন্য মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা (২০১৫), ফরাসি রাষ্ট্রপতি ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদেকে (২০১৬) আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। গত বছরের শুরুতে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে কোন বিদেশি রাষ্ট্রনায়ককে প্রধান অতিথি হিসাবে আম্রন্ত্রণ জানানো হয়নি। করোনার ক্রমবর্ধমান প্রকোপের কারণে কেন্দ্রীয় সরকার এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়। একই সময়ে, করো্না মহামারীর কারণে, টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্রজাতন্ত্র দিবসে কোনও বিদেশী নেতাকে প্রধান অতিথি হিসাবে আম্রন্ত্রণ জানানো হয়নি। ২০২১ সালে, ব্রিটেনের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রধান অতিথি হিসাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। করোনা মহামারীর কারণে ব্রিটেনে সামগ্রিক বিপর্যয়য়ের কারণে অবশেষে জনসন ভারতে আসতে পারেননি।

আরও পড়ুন: [ ‘হিরের শহরে’ দুই হেভিওয়েট! মোদী-কেজরিওয়ালের রোড’শো, পাখির চোখ বিধানসভা নির্বাচন ]

বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এ বছর মিশর সফর করেন। অক্টোবরে সফরের সময়, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর টুইট করেছেন, “মিশরের প্রেসিডেন্ট ফতাহ আল-সিসির সঙ্গে দেখা করতে পেরে সম্মানিত। তাকে আন্তরিক অভিনন্দন এবং তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর একটি ব্যক্তিগত বার্তা তাঁকে দিয়েছেন। একই সময়ে, রাজনাথ সিং তার মিশরীয় প্রতিরক্ষা জেনারেল মকহম্মদ জাকির সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক আলোচনাও করেছেন। তারা যৌথ প্রশিক্ষণ, প্রতিরক্ষা সহ-উৎপাদন এবং সরঞ্জাম রক্ষণাবেক্ষণের উপর ফোকাস করার জন্য একটি মউ স্বাক্ষর করেছে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে, রাষ্ট্রপতি সিসি ভারত সফর করেন।  

তেজস যুদ্ধবিমান কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে মিশর

মিশর ভারত থেকে তাদের তেজস যুদ্ধবিমান কেনার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। ফতেহ আল-সিসি অক্টোবর ২০১৫ সালে নয়াদিল্লিতে তৃতীয় ভারত-আফ্রিকা ফোরাম শীর্ষ সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও দেখা করেছিলেন।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Egypt president likely chief guest for republic day celebrations