scorecardresearch

বড় খবর

ফের পরীক্ষায় বসার সুযোগ! ‘অন্তর্বাস’ খুলতে বাধ্য করার অভিযোগে তৎপর NTA

ইতিমধ্যেই অ্যাডমিট কার্ডও পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের রেজিস্টার্ড মেইল আইডিতে।

ফের পরীক্ষায় বসার সুযোগ! ‘অন্তর্বাস’ খুলতে বাধ্য করার অভিযোগে তৎপর NTA
ফের নিট পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ! অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করার অভিযোগে NTA-এর পদক্ষেপ

ফের পরীক্ষায় বসার সুযোগ পাবেন সেই সকল পরীক্ষার্থী যাদের পরীক্ষার আগেই অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা হয়েছিল। এমনই একটি সার্কুলার জারি করেছে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি (এনটিএ)। বিজ্ঞপ্তিতে জানান হয়েছে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর পুনরায় পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে সেই সকল পরীক্ষার্থীদের যাদের পরীক্ষার আগেই অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা হয়েছিল। ইতিমধ্যেই অ্যাডমিট কার্ডও পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের রেজিস্টার্ড মেইল আইডিতে।

নিট পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের আগেই অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ জানান এক নিট পরীক্ষার্থী। কোল্লামের আয়ুরে মার থোমা ইনস্টিটিউট অফ ইনফর্মেশন অ্যান্ড টেকনোলজি শিক্ষাকেন্দ্রে সিট পড়েছিল বলে জানান ওই পরীক্ষার্থী। সেখানেই তাঁকে অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা হয়েছিল বলে ওই পরীক্ষার্থীর অভিযোগ। এই পরীক্ষার জন্য ড্রেস কোড ঠিক করে দিয়েছিল জাতীয় পরীক্ষা নিয়ামক সংস্থা। মেডিক্যালে ভর্তির জন্য সর্বভারতীয় পরীক্ষা জাতীয় পরীক্ষা নিয়ামক সংস্থাই নিয়ে থাকে। তারা কোথাও অন্তর্বাস খুলিয়ে পরীক্ষার্থীর তল্লাশি নেওয়ার কথা বলেনি। এমনটাই অভিযোগ ওই মহিলা পরীক্ষার্থীর।

আরও পড়ুন: [ দেশের ৪৯ তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নিলেন ইউ ইউ ললিত!]

শুধু ওই পরীক্ষার্থীই নয়। এভাবে অনেক পরীক্ষার্থীকেই তল্লাশি করেছেন পরীক্ষাকেন্দ্রের লোকজন। যার ফলে পরীক্ষা দিতে গিয়ে রীতিমতো মুষড়ে পড়েন পরীক্ষার্থীরা। অনেকেই চোখের জল ফেলতে ফেলতে বাড়ি গিয়েছেন বলে অভিযোগকারী পরীক্ষার্থী পুলিশকে জানিয়েছিলেন । অভিযোগকারী পরীক্ষার্থীর আরও অভিযোগ, পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষাকেন্দ্রের একটি ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানেই তাঁদের অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা হয়। এরপরই পুলিশ ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ এবং ৫০৯ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনায় পুলিশ সাতজনকে আটক করে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Girls forced to remove underwear allowed to retake exam