scorecardresearch

বড় খবর

মেয়েদের বিয়ের বয়স নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, শিশুসুরক্ষা কমিশনের নোটিস কংগ্রেস নেতাকে

তাঁর দাবি, “১৫ বছর হলেই মেয়েদের তো প্রজনন ক্ষমতা চলে আসে, তাহলে বিয়ের বয়সসীমা বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা কী?”

মেয়েদের বিয়ের বয়স নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ১৮ বছর থেকে বয়স বাড়িয়ে ২১ বছর করার চিন্তাভাবনা করছে মোদী সরকার। সেইসময় বিতর্কিত মন্তব্য করে জাতীয় শিশুসুরক্ষা কমিশনের রোষে পড়লেন কংগ্রেস নেতা। সজ্জন সিং ভার্মার বিরুদ্ধে নোটিস জারি করেছে কমিশন। দুদিনের মধ্যে বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে জবাবদিহি করতে বলা হয়েছে তাঁকে।

ঠিক কী বলেছেন তিনি? মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন পূর্ত ও পরিবেশ মন্ত্রী মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানোর বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন। তাঁর দাবি, “১৫ বছর হলেই মেয়েদের তো প্রজনন ক্ষমতা চলে আসে, তাহলে বিয়ের বয়সসীমা বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা কী?” বুধবার তিনি ডাক্তারদের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেছেন, ডাক্তারদের মতে, “১৫ বছর বয়সেই প্রজনন ক্ষমতা চলে আসে মেয়েদের। মুখ্যমন্ত্রী কি ডাক্তার না বিজ্ঞানী! তাহলে কোন ভিত্তিতে মেয়েদের বিয়েস বাড়িয়ে ১৮ থেকে ২১ করা হবে?”

আরও পড়ুন তুমুল বিতর্কের জেরে গোয়ালিয়রে বন্ধ হল ‘গডসের জ্ঞানশালা’

কিছুদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান মতামত দিয়েছিলেন, মহিলাদের বিয়ের বয়সের উর্ধ্বসীমা ২১ করা উচিত। আইনত পুরুষদের বিয়ের বয়সের উর্ধ্বসীমার তুলনায় এই বিষয় নিয়ে জাতীয় স্তরে বিতর্ক হওয়া উচিত বলে মনে করেছিলেন তিনি। কংগ্রেস নেতার বিতর্কিত মন্তব্যকে হাতিয়ার করে মাঠে নেমে পড়েছে বিজেপি। কংগ্রেসের মুখপাত্র ভূপেন্দ্র গুপ্তা ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে গিয়ে বলেছেন, সজ্জন শুধু জিজ্ঞেস করতে চেয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী কোনও বৈধ গবেষণার উপর ভিত্তি কের এই পরামর্শ দিয়েছেন কি না। শিবরাজ প্রচারের আলোয় আসতেই এমন পরামর্শ দিয়েছেন বলে পাল্টা দাবি করেছেন কংগ্রেস নেতা।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Girls ready for reproduction at 15 cong leaders remark triggers uproar