scorecardresearch

বড় খবর

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে নমাজ-পাঠ, ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তুলে তুমুল বিক্ষোভ ছাত্রদের

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে নমাজ-পাঠ, ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল ছাত্ররা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে নমাজ-পাঠ, ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তুলে তুমুল বিক্ষোভ ছাত্রদের
বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে নমাজ পাঠ নিয়ে সোচ্চার পড়ুয়াদেরই একাংশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে সহপাঠীদের কয়েকজনের নমাজ পাঠে তুমুল আপত্তি ছাত্রদেরই একাংশের। বিশ্ববিদ্যালয়ের খোলা জায়গায় নমাজ পাঠ বন্ধের আবেদন জানিয়ে কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ একাংশের পড়ুয়ারা। ঘটনার প্রতিবাদে চলে ব্যাপক বিক্ষোভ। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, বিক্ষোভের সময় একদল ছাত্রের মুখে শোনা যায়, ‘এক হি নারা, এক হি নাম, জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম’। যদিও এই বিক্ষোভে রাজনৈতিক মদত দেখছে না বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জানা গিয়েছে, চলতি সপ্তাহের শুরুতে গুরগাঁওয়ের জিডি গোয়েঙ্কা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে নমাজ পড়তে দেখা যায় ২০ জনেরও বেশি বিদেশি ছাত্রদের। মাঠে ফুটবল খেলার ফাঁকেই নমাজ পাঠ করতে দেখা গিয়েছিল ওই পড়ুয়াদের। এর পরেই বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয় প্রবল বিক্ষোভ। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তুলে নমাজ পাঠের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে থাকেন। তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের কাছে অভিযোগও জানিয়েছেন।

”বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনও ধর্মীয় আচার পালন অনুচিত, খোলা জায়গায় নামাজ পড়া উচিত নয়।” অবিলম্বে রেজিস্ট্রারকে বিশ্ববিদ্যালয়ের খোলা মাঠে নমাজ পাঠ বন্ধে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করতেও আবেদন জানিয়েছেন ওই পড়ুয়ারা। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, এই বিক্ষোভের সময় একদল ছাত্রকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘এক হি নারা, এক হি নাম, জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম’।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার জানিয়েছেন, মঙ্গলবার কিছু সময়ের জন্যই ওই ঘটনাটি ঘটেছে। ৮-১০ জন বিদেশি ছাত্র যাঁদের মধ্যে অধিকাংশই আফ্রিকান দেশগুলি (নাইজেরিয়া, ইথিওপিয়া) থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে এসেছেন। মাঠে ফুটবল খেলছিলেন ওই ছাত্ররা। নামাজের সময় হয়ে গেলে মাঠেই তাঁরা নমাজ পাঠ শুরু করেন। এরপরেই কমপক্ষে ২০ জন পড়ুয়া খোলা জায়গায় নামাজ পড়া নিয়ে আপত্তি জানায়। করিডোরেও কিছু স্লোগান হচ্ছিল। খোলা জায়গায় নমাজ পাঠের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন ওই ছাত্ররা।

আরও পড়ুন- করোনার প্রভাব কাটিয়ে চাঙ্গা ভারতীয় অর্থনীতি, ব্রিটেনকে টপকে পঞ্চমে দেশ!

যদিও আলোচনার মাধ্যমে বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের শান্ত করা হয়েছে। রেজিস্ট্রার ডাঃ ধীরেন্দ্র সিং পরিহার বলেন, ”বিদেশি ওই ছাত্রদেরও আমরা সব বুঝিয়ে বলেছি। তাঁদের হোস্টেলের ঘরেই বা মসজিদে গিয়ে নামাজ পাঠ করতে বলা হয়েছে। খোলা জায়গায় নমাজ পাঠ যাতে ওঁরা বন্ধ করেন সেব্যাপারেও অনুরোধ জানিয়েছি।”

গুরগাঁওয়ের এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ঘর নাকি নমাজ পাঠের জন্য বরাদ্দ করা রয়েছে। যদিও এটি নিছকই একটি গুজব বলে দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ডাঃ ধীরেন্দ্র সিং পরিহার।

তিনি বলেন, ”এসব গুজব। ভিত্তিহীন কথা। বিশ্ববিদ্যালয় কোনও সম্প্রদায়ের মধ্যে বৈষম্য করে না। এই বিষয়গুলি নিয়ে অতীতে বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনও বিরোধ হয়নি।” এমনকী যে ছাত্ররা নমাজ পাঠ নিয়ে আপত্তি তুলেছিলেন তাঁদেরও কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য ছিল না বলেই দাবি করেছেন রেজিস্ট্রার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Gurgaon university namaz controversy