scorecardresearch

কেরালায় বন্যা, বৈঠকে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কমিটি

উপকূলরক্ষীবাহিনী রেসকিউ টিমসহ ৩০ টি বোট, ৩০০ লাইফ জ্যাকেট, ১৪৪টি লাইফ বোয় ও সাতটি ছোট র‌্যাফট পাঠিয়েছে বন্যাবিধ্বস্ত রাজ্যটিতে।

কেরালায় বন্যা, বৈঠকে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কমিটি
ভয়াবহ বন্যায় বিপর্যস্ত কেরালা। ফাইল ছবি।

কেরালার ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি সামলাতে দুদিনে দুবার বৈঠক করল জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কমিটি। রাজ্যের বন্যাকবলিত এলাকায় ত্রাণ ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা যথাযথ ভাবে করা হচ্ছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে শুক্রবার ফের বৈঠক হয়। এদিনের বৈঠকের পৌরোহিত্য করেন ক্যাবিনেট সচিব পি কে সিনহা। বৈঠকে ভিডিও কনফারেন্সে কেরালা ও তামিলনাড়ুর মুখ্য সচিবে সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এদিনের বৈঠকে স্থির হয়েছে, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমান বাহিনী, উপকূল রক্ষী বাহিনী ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর অতিরিক্ত দল তৈরি রাখতে হবে। ক্যাবিনেট সচিব এই সংস্থাগুলিকে নৌকা, হেলিকপ্টার, লাইফ জ্যাকেট, লাইফ বোয়, রেইনকোট, গামবুট সহ সমস্ত প্রয়োজনীয় জিনিস বন্যাপীড়িত এলাকায় সরবরাহ করার নির্দেশ দিয়েছেন। কেরালার মুখ্যসচিব বন্যদুর্গত এলাকার মানুষদের কাছে পৌঁছানোর জন্য মোটরচালিত নৌকা সরবরাহ করার অনুরোধ করেছেন।

বন্যদুর্গত কেরেলায় কেন্দ্র এখনও পর্যন্ত ৩৩৯টি মোটরচালিত নৌকা, ২৮০০ লাইফ জ্যাকেট, ১৪০০ লাইফ বোয়, ২৭টি লাইট টাওয়ার ও ১০০০ রেন কোট পাঠিয়েছে। এ ছাডা়ও পাঠানো হচ্ছে, ৭২টি মোটর বোট, ৫০০০ লাইফ জ্যাকেট, ২০০০ লাইফ বোয়, ১৩টি লাইট টাওয়ার এবং ১০০০ রেইন কোট।

এখনও পর্যন্ত ১ লক্ষ খাবারের প্যাকেট বিলি করা হয়ছে, আরও ১ লক্ষ খাবারে প্যাকেট সেখানে পাঠানোর বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। পাঠানো হচ্ছে মিল্ক পাউডারও।

ভারতীয় নৌবাহিনী ইতিমধ্যেই কেরালায় ডাইভিং টিম সহ ৫১টি বোট, ১০০ লাইফ জ্যাকেট অবং ১৩০০ গামবুট কেরালায় পাঠাচ্ছে। আকাশ থেকে ফেলার জন্য পাঠানো হয়েছে ১৬০০ ফুড প্য়াকেট।

আরও পড়ুন, কেরালায় বানভাসি শিশুকে উদ্ধার করে হিরো নৌবাহিনীর কর্মী

উপকূলরক্ষীবাহিনী রেসকিউ টিমসহ ৩০ টি বোট, ৩০০ লাইফ জ্যাকেট, ১৪৪টি লাইফ বোয় ও সাতটি ছোট র‌্যাফট পাঠিয়েছে বন্যাবিধ্বস্ত রাজ্যটিতে।

বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে পাঠানো হয়েছে ২৩টি হেলিকপ্টার ও ১১টি যাত্রীবাহী এয়ারক্র্যাফট। আরও কিছু এয়ারক্র্যাফট নাগপুর ও ইয়েলাহাঙ্কা থেকে পাঠানো হচ্ছে।
সেনাবাহিনী থেকে পাঠানো হয়েছে ১০ কলাম সেনা, ১০টি ইঞ্জিনিয়ারিং টাস্ক ফোর্স এবং ১০০ লাইফ জ্যাকেট।

এনডিআরএফের ৪৩টি রেস্কিউ টিম এবং ১৬৩টি নৌকা পাঠিয়েছে কেরালায়।

ক্যাবিনেট সচিব সিআরপিএফ, বিএসএফ এবং এসএসবি-র মতো সংস্থাগুলির থেকেও অতিরিক্ত নৌকো ও অন্যান্য সরঞ্জাম সে রাজ্যে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

রেলওয়ের পক্ষ থেকে ১লক্ষ ২০ হজার বোতল জল পাঠানো হয়েছে, আরও সমসংখ্যক জলের বোতল পাঠানোর জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আগামিকাল ২ লক্ষ ৯০ হাজার লিটার পানীয় জল নিয়ে কেরালার কায়াকুলামে পৌঁছবে একটি বিশেষ ট্রেন।

বন্যায় বন্ধ হয়ে গেছে কোচির বিমানবন্দর। এ পরিস্থিতিতে জনসাধারণের ব্যবহারের জন্য কোচিতে অবস্থিত নৌবাহিনীর বিমানবন্দর ব্যবহার করা যেতে পারে বলে কেরালা সরকারকে জানিয়েছে নৌবাহিনী।

যেসব জায়গায় টেলি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে, সেখানে ভি-স্যাট যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করার যেতে পারে বলে কেরালা সরকারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ক্যাবিনেট সচিব আপৎকালীন ওষুধপত্র মজুত রাখারও নির্দেশ দিয়েছেন।

পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য আগামিকাল ফের বৈঠকে বসবে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কমিটি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kerala flood situation special meeting ncmc