scorecardresearch

বড় খবর

রাজীব হত্যা মামলা: খুনি নলিনী-সহ ৬ জনকে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় ঐতিহাসিক নির্দেশ শীর্ষ আদালতের।

রাজীব হত্যা মামলা: খুনি নলিনী-সহ ৬ জনকে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় ঐতিহাসিক নির্দেশ শীর্ষ আদালতের। রাজীব খুনে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত দুই আসামি নলিনী শ্রীহরন এবং আরপি রবিচন্দ্রন-সহ মোট ৬ জনকে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের। নলিনী ও রবিচন্দ্রন ছাড়াও মুক্তি পাওয়া বাকি সাজাপ্রাপ্তরা হলেন সন্থান, মুরুগান, রবার্ট পায়াস এবং জয়কুমার। বিচারপতি বিআর গাভাই এবং বিভি নাগারথনার বেঞ্চ মে মাসে মুক্তি পাওয়া আরও এক আসামি এ জি পেরারিভালানের মামলা বিবেচনা করতে গিয়েই আজ এই নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীদের খুনিদের মধ্যে অন্যতম নলিনী বর্তমানে প্যারোলে আছেন। মাদ্রাজ হাইকোর্ট তাঁর আবেদন খারিজ করেছিল। গত ১৮ মে সুপ্রিম কোর্ট সংবিধানের ১৪২ অনুচ্ছেদের অধীনে বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করে পেরারিভালানকে মুক্তির নির্দেশ দেয়। পেরারিভালানও রাজীব খুনে দোষী সাব্যস্ত হয়ে ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে জেলে ছিলেন। পেরারিভালানকে মুক্তির নির্দেশের পরেই শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন নলিনী।

সর্বোচ্চ আদালতের এদিনের নির্দশের ফলে ৩০ বছরেরও বেশি সময় পর মুক্তি পাচ্ছেন রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় দোষী নলিনী, রবিচন্দ্রন-সহ মোট ৬ জন। ১৯৯১ সালের ২১ মে তামিলনাড়ুর একটি জনসভায় যোগ দিতে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিহত হয়েছিলেন দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজবী গান্ধী। রাজীব হত্যায় দোষী সাতজনের মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। ২০১৪ সালে দোষীদের মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে তাদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। এরপর তামিলনাড়ু সরকারও দোষীদের মুক্তির ব্যাপারে সওয়াল করে। সরকারের সেই আবেদনের ভিত্তিতেই দফায়-দফায় খুনিদের মুক্তি দিল শীর্ষ আদালত।

আরও পড়ুন- ‘নো এন্ট্রি’ পোস্টার ঘিরে ধুন্ধুমার! জিএসটি ইস্যুতে কেন্দ্রকে তুলোধোনা, বিপাকে মোদী

তামিলনাড়ু সরকার ২০১৮ সালেই রাজীব হত্যায় দোষীদের মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিল। যদিও রাজ্যপালের মাধ্যমে তৎকালীন রাজ্য সরকারের সেই সিদ্ধান্তপত্র রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হয়েছিল। তবে তামিলনাড়ু সরকারের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি তৎকালীন রাষ্ট্রপতি। এরপর রাজীব খুনে অন্যতম দোষী পেরারিভালন মুক্তি চেয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন। শেষমেশ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে গত ১৮ মে জেলমুক্তি ঘটে পেরারিভালনের। এরপর আর দেরি করেননি নলিনীরা। মাদ্রাজ হাইকোর্টে মুক্তি চেয়ে আবেদন করেন নলিনীরা। শেষমেশ মাদ্রাজ হাইকোর্ট এব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের মতামত জানতে চায়। অবশেষে সুপ্রিম কোর্টই রাজীব হত্যায় খুনিদের মুক্তির নির্দেশ দেয় শুক্রবার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Rajiv gandhi assassination case sc orders release of nalini rp ravichandran512227