scorecardresearch

বড় খবর

রাজভক্ত ব্রিটেনবাসী আগেই এমনটা দেখতে চেয়েছিলেন, শেষে রানির মৃত্যু জুড়ল ভাঙা রাজপরিবার

ঠাকুমার কথা তাঁর প্রচণ্ড মনে পড়ছে, শোকবার্তায় আবেগে ভেসে গেলেন রানির বড় নাতি প্রিন্স উইলিয়াম।

রাজভক্ত ব্রিটেনবাসী আগেই এমনটা দেখতে চেয়েছিলেন, শেষে রানির মৃত্যু জুড়ল ভাঙা রাজপরিবার
সস্ত্রীক প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্স হ্যারি।

তাঁর জীবদ্দশাতেই ভেঙে গিয়েছিল রাজপরিবার। ছোট নাতি হ্যারি আর ছোট নাতবৌ মেগান মার্কেল রাজপরিবার থেকে প্রথা ভেঙে আলাদা হয়ে গিয়েছিলেন। সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে ব্রিটেনের শাসক রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যু তাঁদের যেন মিলিয়ে দিল। প্রয়াত রানিকে শ্রদ্ধা জানাতে মতভেদ দূর করে এক হয়ে গেল গোটা পরিবার।

পাশাপাশি হাঁটতে, প্রয়াত রানির প্রতি একসঙ্গে শোকজ্ঞাপন করতে দেখা গেল প্রিন্স উইলিয়াম, তাঁর স্ত্রী কেট মিডলটন, প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেলকে। যাকে এককথায় রাজকীয় পুনর্মিলন ছাড়া অন্য কিছু বলা যায় না। উইন্ডসর প্রাসাদ ময়দানের এই ছবিটা এক অন্য বার্তা দিল গোটা ব্রিটেনবাসীকে। বুঝিয়ে দিল, দুঃখের দিনে গোটা রাজপরিবার মতবিরোধকে দূরে সরিয়ে রাখতে জানে।

শোকের প্রতীক হিসেবে সম্পূর্ণ কালো পোশাক পরে, রাজপরিবারের চার সদস্য দর্শকদের অভ্যর্থনাও জানান। কেনসিংটন প্রাসাদের তরফে জানানো হয়েছে যে প্রিন্স উইলিয়ামই সাসেক্সের ডিউক হ্যারি ও ডাচেস মেগান মার্কেলকে তাঁর এবং কেটের সঙ্গে শোকজ্ঞাপনের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এর আগে আমন্ত্রণ না-জানানোয় মেগান মার্কেল প্রয়াত রানিকে দেখতে তাঁর স্বামী হ্যারি ও ভাসুর উইলিয়ামের সঙ্গে বালমোরাল প্রাসাদে যাননি। রাজবাড়ি সূত্রে খবর, গোটা ব্রিটেন এই শোকের সময় গোটা রাজপরিবারকে একসঙ্গে দেখতে চেয়েছিল। আর, সেই জন্যই প্রিন্স উইলিয়াম রানির প্রতি শোকজ্ঞাপন করতে আসা সাধারণ ব্রিটিশ নাগরিকদের সামনে রাজপরিবারের ঐক্যের ছবিটা তুলে ধরতে চেয়েছেন।

আরও পড়ুন- হুমকিতে বাতিল অনুষ্ঠান, ভিএইচপি কর্মীদের গুন্ডা বলে আক্রমণ কমেডিয়ান কুণাল কামরার

রানির মৃত্যুর পর তাঁর ছেলে প্রিন্স তৃতীয় চার্লস ব্রিটেনের রাজা হয়েছেন। আর প্রিন্স উইলিয়াম এবং তাঁর স্ত্রী কেট মিডলটন যথাক্রমে প্রিন্স এবং প্রিন্সেস অফ ওয়েলস উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন। এর আগে কেনসিংটন প্যালেস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে প্রয়াত রানির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নতুন প্রিন্স অফ ওয়েলস বলেন, ”বৃহস্পতিবার, বিশ্ব একজন অসাধারণ নেত্রীকে হারাল। যাঁর দেশ, রাজ্য এবং কমনওয়েলথের প্রতি দায়বদ্ধতা ছিল নিরঙ্কুশ। তাঁর ঐতিহাসিক রাজত্বের অর্থ সম্পর্কে আগামী দিনে অনেক বেশি মূল্যায়ন হবে।”

উইলিয়াম আরও বলেন, ”আমি আমার ঠাকুমাকে হারিয়েছি। আমি তাঁর প্রতি শোকজ্ঞাপন করছি। তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আমি আমার চার দশকের জীবনে রানির প্রজ্ঞায় উপকৃত হয়েছি। তাঁর আশ্বাসে ভরসা পেয়েছি। আমার স্ত্রী গত ২০ বছর ধরে আমাকে সমর্থন ও পরামর্শ দিয়ে চলেছেন। এই শোকের পরিবেশে আমার তিন সন্তানকে তাঁর সঙ্গে ছুটি কাটাতে হবে। স্মৃতি তৈরি করতে হবে। যা তাঁদের সারা জীবন স্থায়ী হবে।”

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Royal reunion to mourn the death of queen elizabeth