scorecardresearch

বড় খবর
এক ফ্রেমে কেন্দ্রীয় কয়লামন্ত্রী ও কয়লা মাফিয়া, বিজেপিকে বিঁধলেন অভিষেক

যুদ্ধের দামামা! উত্তরের সীমান্তে চক্কর কাটল শ’য়ে শ’য়ে দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধবিমান, আতঙ্কের আবহ

১৮০টি যুদ্ধবিমান দক্ষিণ কোরিয়ার উত্তর সীমান্তে প্রায় ৪ ঘণ্টা অবস্থান করে।

যুদ্ধের দামামা! উত্তরের সীমান্তে চক্কর কাটল শ’য়ে শ’য়ে দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধবিমান, আতঙ্কের আবহ
উত্তরের সীমান্তে চক্কর কাটল শ'য়ে শ'য়ে দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধবিমান, পাল্টা প্রতিরোধের প্রস্তুতি

একের পর ১০ টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ সামরিক মহড়ার তীব্র সমালোচনার পর, বুধবার উত্তর কোরিয়া একে একে ১০টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি ক্ষেপণাস্ত্র দক্ষিণ কোরিয়ার কাছেই আছড়ে পড়ে। এই ঘটনার রেশ কাটতেই না কাটতেই বৃহস্পতিবার সকালে দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তবর্তী অঞ্চলে ১৮০ টি যুদ্ধ বিমানকে চক্কর খেতে দেখে সেদেশের সেনাবাহিনী। টানা চারঘন্টা ধরে যুদ্ধ বিমান গুলি সীমান্তবর্তী অঞ্চলে এদিন চক্কর কাটে। এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়ায় বিমান হামলার সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা বাহিনী সূত্রে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘উত্তর কোরিয়ার যুদ্ধ বিমানগুলিকে সীমান্তের খুব কাছাকাছি প্রায় চারঘন্টা উড়তে দেখা যায়’ । বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘উত্তর কোরিয়ার এই বিমানগুলো মিলিটারি ডেমোনস্ট্রেশন লাইনের (MDL) কাছে প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে টানা চার ঘণ্টা ধরে চক্কর কাটে’। একইসঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনীর তরফ থেকে এটাও বলা হয়েছে যে, দক্ষিণ কোরিয়াও সীমান্তবর্তী এলাকায় পাল্টা ৮০টি ‘এফ ৩৫-এ স্টিলথ ফাইটার জেট’ পাঠিয়েছে। ফলে দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করে।

এর আগে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার যৌথ সামরিক মহড়ার সমালোচনা করেছিল উত্তর কোরিয়া। উত্তর কোরিয়ার তরফে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রকেও ভয়াবহ পরিণতির হুমকিও দেওয়া হয়েছে। উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ বিবৃতি জারি করে জানান, “আজ সকালে উত্তর কোরিয়া পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চল ওনসান থেকে একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়”।

আরও পড়ুন : [ পাকিস্তানের মদতে কাশ্মীরে অশান্তি, অভিযুক্ত বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ]

দক্ষিণ কোরিয়ার তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারা উত্তর কোরিয়ার কর্মকাণ্ডকে কোন ভাবেই বরদাস্ত করবে না। আমেরিকার সঙ্গে তারা এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করবে। এবং দক্ষিণ কোরিয়া এই ধরণের ঘটনাকে কঠোরভাবে মোকাবেলা করবে। ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর উত্তর কোরিয়ার ওপর নজরদারি বাড়িয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া প্রসঙ্গে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়াকে ইতিমধ্যেই পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে ২০০ টিরও বেশি অস্ত্র নিয়ে সামরিক মহড়া চালানোর পর উত্তর কোরিয়ার এক বিবৃতি জারি করে আমেরিকা এবং দক্ষিণ কোরিয়াকে এক হুঁশিয়ারি দিয়েছে। উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়া চলতি বছর ৪০টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: South korea scrambles jets after detecting 180 north korean warplanes north of border amid tensions