scorecardresearch

ট্রায়াল শেষ, আরও আধুনিক নতুন ‘বন্দে ভারত ট্রেন’ আগামী মাসেই ‘পথচলার’ সম্ভাবনা

নতুন ট্রেনের সর্বোচ্চ গতি ১৮০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা

ট্রায়াল শেষ, আরও আধুনিক নতুন ‘বন্দে ভারত ট্রেন’ আগামী মাসেই ‘পথচলার’ সম্ভাবনা
দেশে দ্রুতগতির বন্দে ভারত ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি

নতুন বন্দে ভারত ট্রেন গতির দিক থেকে বুলেট ট্রেনকেও পিছনে ফেলে দিয়েছে। নতুন বন্দে ভারত টেস্ট রানের সময় একটি নতুন রেকর্ড তৈরি করেছে। এর গতি দেখে সবাই অবাক। রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব শুক্রবার বলেছিলেন যে তৃতীয় এবং নতুন বন্দে ভারত ট্রেনটি পরীক্ষা চালানোর সময় মাত্র ৫২ সেকেন্ডে শূন্য থেকে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতি অর্জন করেছে। এটি বুলেট ট্রেনের রেকর্ডও ভেঙে দিয়েছে। পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা উদ্ধৃত করে, বৈষ্ণব বলেছিলেন যে বন্দে ভারত ট্রেনের তৃতীয় ট্রায়াল শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, বুলেট ট্রেনের এই গতি পেতে ৫৪.৬ সেকেন্ড সময় লাগে। যা নতুন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস মাত্র ৫২ সেকেণ্ড সময় নিয়েছে।

নতুন বন্দে ভারত ট্রেনকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা নিয়ে ভারতীয় রেল। একটি বায়ু পরিশোধন ব্যবস্থাও থাকছে এই ট্রেনে।  পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করে, বৈষ্ণব বলেন যে নতুন ট্রেনের সর্বোচ্চ গতি ১৮০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা এবং পুরানো বন্দে ভারত-এর সর্বোচ্চ গতি ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। আরামদায়ক যাত্রার জন্য এই ট্রেনটিতে অনেক উন্নত বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

রেল আধিকারিকদের মতে, নতুন বন্দে ভারত অনেক বেশ আপগ্রেড। যে কারণে এর গতি ভাল। ইঞ্জিন নয়, স্বয়ংক্রিয় মোটরের সাহায্যে চলে এই ট্রেন। ১৬ বগি বিশিষ্ট এই ট্রেনের পাঁচটি বগিতে মোটর বসানো হয়েছে। স্বয়ংক্রিয় মোটরের সাহায্যে এর গতি বেশ বেশি। বন্দে ভারত-এর পুরো ট্রেনে লাগানো ২০ টি মোটর বুলেট ট্রেনের সামনে বসানো একটি ইঞ্জিনের থেকে বেশি কার্যকর। বর্তমানে বন্দে ভারত ট্রেনের গতি ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার। যদিও এর নতুন সংস্করণ প্রতি ঘন্টায় ১৮০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে প্রস্তুত। একই সঙ্গে, ২০২৫ সালের মধ্যে, এই ট্রেনের আপগ্রেড করার পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে  যেটি ঘন্টায় ২৬০ কিলোমিটার গতিবেগে চালানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে ।

নতুন এই বন্দে ভারত ট্রেন চালু হলে ফলে মানুষ দ্রুতগতির ট্রেনে যাতায়াতের সুযোগ পাবেন ।রেলওয়ে কর্মকর্তাদের মতে, হাই স্পিড ট্রেনটি আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আহমেদাবাদ-মুম্বাই রুটে চালানো হবে।

নতুন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস আগের থেকে অনেক হালকা।  হালকা হওয়ার ফলে ট্রেনগুলো আগের তুলনায় যাত্রায় কম সময় নেবে এবং দ্রুত চলবে। শুক্রবার কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব একটি সংবাদ সম্মেলনের সময় বলেন,  অক্টোবর থেকে বন্দে ভারত ট্রেনের নিয়মিত উৎপাদন শুরু করার লক্ষ্য রাখা হয়েছে। মাসে দু থেকে তিনটি ট্রেন যাতে তৈরি করা যায় সেই দিকে লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। আগামী দিনে এই সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে।  

বৈষ্ণবের মতে, নতুন ট্রেনে বেশ কিছু উন্নত ব্যবস্থা রয়েছে। তৃতীয় বন্দে ভারত ট্রেনের ট্রায়াল শেষ হয়েছে। এটি বাণিজ্যিক অপারেশনের জন্য প্রস্তুত। নতুন ট্রেনটি মাত্র ৫২ সেকেন্ডে শূন্য থেকে ১০০ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতি তুলতে পারে, যেখানে পুরানো ট্রেনটি এই গতি অর্জন করতে ৫৪.৮ সেকেন্ড সময় নেয়। নতুন ট্রেনটির ওজনও কমানো হয়েছে ৩৮ টন যাতে দ্রুত চলতে পারে।

আরও পড়ুন: [ পুজোর শপিং করে ক্লান্ত? রাজ্য সরকারের বিরাট উদ্যোগ, মিলবে এসি বাসে বাড়ি ফেরার সুযোগ! ]

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, নতুন ট্রেনটি ১৩০ সেকেন্ডে ১৬০ কিলোমিটার গতিবেগে পৌঁছাতে পারে। পুরানো সংস্করণের ট্রেনটি এই গতিতে পৌঁছতে ১৪৬ সেকেন্ড সময় নিয়েছে। বৈষ্ণব বলেন, “আমরা এখন ধারাবাহিকভাবে উৎপাদন শুরু করব। পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। অক্টোবর থেকে নিয়মিত উৎপাদন শুরু করার লক্ষ্য রয়েছে। এর আওতায় প্রতি মাসে দুই থেকে তিনটি ট্রেন তৈরি করা হবে। এর পরে, প্রতি মাসে পাঁচ থেকে আটটি ট্রেনে তৈরি করা হবে”।

এদিকে, সূত্র মারফৎ খবরে জানা গিয়েছে নয়া এই ট্রেন মুম্বাই এবং আহমেদাবাদের মধ্যে চলতে পারে এবং এই মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হতে পারে এই ট্রেনের।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Trial of 3rd vande bharat trainset complete serial production to begin oct