scorecardresearch

বড় খবর

‘বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে টিকার বণ্টন, টিকাকরণে ভিআইপি সংস্কৃতি আসতে দিইনি’, বললেন প্রধানমন্ত্রী

কোন রাজ্যকে কত ভ্যাকসিন দিতে হবে সেই প্রক্রিয়াও বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে স্থির করা হয়েছিল বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রী।

https://indianexpress.com/article/cities/pune/operation-ganga-indian-students-ukraine-evacuation-pm-modi-7803661/
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

গোটা বিশ্ব এবার ভারতকে করোনা থেকে আও সুরক্ষিত বলে মানবে, দেশ ১০০ কোটি টিকাকরণের মাইলস্টোন ছোঁয়ার পরের দিনেই জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশব্যাপী টিকাকরণ অভিযানে ভিআইপি সংস্কৃতি ছুকতে দেওয়া হয়নি বলেও এদিন সওয়াল করেছেন প্রধানমন্ত্রী। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের গুরুত্বের কথা বর্ণনার পাশাপাশি দেশবাসীকে মাস্ক পরার ব্যাপারে আরও বেশি সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একইসঙ্গে দেশে তৈরি জিনিসপত্র কেনার ব্যাপারেও এদিন আবারও উৎসাহ দিয়েছেন মোদী।

বৃহস্পতিবারই টিকাকরণে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে ভারত। উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী এপ্রসঙ্গে তাঁর জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এদিন বলেন, ‘টিকা উৎপাদনের পাশাপাশি সারা দেশে তা পৌঁছে দেওয়া কঠিন একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। বিজ্ঞানের উপর নির্ভরশীল হয়েই ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচি স্থির করা হয়েছিল। এমনকী কোন রাজ্যকে কতটা পরিমাণ ভ্যাকসিন দিতে হবে সেই প্রক্রিয়াও বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে স্থির করা হয়েছিল।’

করোনার টিকা উৎপাদনের পর থেকেই দেশজুড়ে প্রচারাভিযান তুঙ্গে তুলেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারি মাধ্যমের পাশাপাশি বেসরকারি মাধ্যমগুলিতেও টিকা নেওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা প্রচার করা হয়। একইসঙ্গে সাধারণ মানুষকে করোনাভাইরাসের বিষয়ে সচেতন করে তুলতেও কেন্দ্রের অনন্য প্রয়াস জারি ছিল। মোদী এদিন বলেন, ‘টিকা গ্রহণ নিয়ে আমাদের কোনও সংশয় ছিল না। শুরু থেকেই এব্যাপারে প্রত্যয় ছিল। দেশে অতিমারী ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে নানা বক্তব্য সামনে আসতে শুরু করে। ভারতের মতো বিশাল দেশের পক্ষে অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াই করা কঠিন হবে বলে বলা হচ্ছিল। তবে কেন্দ্র শুরু থেকেই তৎপর ছিল। বিনা পয়সায় প্রত্যেককে করোার টিকা দেওয়া চালু করা হয়। টিকাকরণ কর্মসূচিতে ভিআইপি কালচার ঢুকতে দেওয়া হয়নি।’

টিকাকরণ কর্মসূচিতে নজির গড়েছে ভারত। মাত্র ৯ মাসের মধ্যেই ১০০ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের টিকাকরণের তুলনা সারা বিশ্বের সঙ্গে হচ্ছে বলে এদিন সওয়াল করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এপ্রসঙ্গে নরেন্দ্র মোদী এদিন বলেন, ‘আগে বাইরে থেকে টিকা আমদানি করা হতো। দেশে অতিমারী শুরুর সময় থেকে টিকাকরণ নিয়ে অনেক প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। আজ ১০০ কোটির ডোজ দেওয়ার পর সেই সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়া গিয়েছে। দেশে যে দ্রুততার সঙ্গে ১০০ কোটি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে তা নিয়ে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে।’

আরও পড়ুন- টিকাকরণে ১০০ কোটির মাইলস্টোন ছোঁয়ার পরের দিনেই নিম্নমুখী সংক্রমণ

বৃহস্পতিবারই ১০০ কোটি টিকাকরণের মাইলস্টোন ছুঁয়েছে ভারত। এই প্রসঙ্গে দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১০০ কোটি টিকাকরণের অসাধারণ সাফল্য পেয়েছে দেশ। এই সাফল্যের জন্য দেশবাসীকে অভিনন্দন।’ এর আগে গান্ধী জয়ন্তীতে দেশে তৈরি পণ্য কেনার ব্যাপারে উৎসাহিত করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন ফের জাতির উদ্দেশে ভাষণে মেক ইন ইন্ডিয়া ধারণার উপর বিশেষভাবে জোর দেন মোদী। প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘দেশে তৈরি পণ্যসামগ্রী কেনার ব্যাপারে জোর দিন। আমাদের প্রত্যেককে ভোকাল ফর লোকাল স্লোগানকে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করতে হবে।’

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অন্যতম প্রধান হাতিয়ার মাস্ক। দিপাবলীর আগে এদিন ফের একবার মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী। মোদীর কথায়, ‘সাবধানতার সঙ্গে উৎসব পালন করুন। বাড়ির বাইরে পা দিলে আমরা যেমন জুতো পরে যাই, ঠিক তেমনি মাস্ক পরাকেও সমানভাবে গুরুত্ব দিন। যুদ্ধ এখনও জারি রয়েছে। যুদ্ধ শেষের আগেই অস্ত্র নামিয়ে রাখবেন না।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Vaccine distribution is maintained througn scientificallly says pm modi