scorecardresearch

বড় খবর

দুর্নীতির অভিযোগ উঠল ইউনানি মেডিক্যাল কাউন্সিলের বিরুদ্ধে

মাত্র চার বা ছয় বছর বয়সেই ইউনানি মেডিক্যাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন পেয়ে গিয়েছেন বেশ কিছু চিকিৎসক। সেই ভুয়ো নম্বর নিয়েই মানুষের প্রান নিয়ে খেলছেন এইসব ভুয়ো চিকিৎসক।

দুর্নীতির অভিযোগ উঠল ইউনানি মেডিক্যাল কাউন্সিলের বিরুদ্ধে
সাংবাদিক বৈঠকে স্টেট কাউন্সিল অফ ইউনানি মেডিসিন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের প্রাক্তন সদস্য দুই প্রাক্তন সদস্য মহম্বদ আখতার পারভেজ এবং শেখ নাদিম।

চিকিৎসকদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠল ইউনানি মেডিক্যাল কাউন্সিলের বিরুদ্ধে। গতকাল, শুক্রবার, একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করেন স্টেট কাউন্সিল অফ ইউনানি মেডিসিন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের দুই প্রাক্তন সদস্য মহম্মদ আখতার পারভেজ এবং শেখ নাদিম। তাঁদের দাবি, রেজিস্ট্রেশনে জন্ম তারিখের হিসাব বলছে মাত্র চার বা ছয় বছর বয়সেই ইউনানি মেডিক্যাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন পেয়ে গিয়েছেন বেশ কিছু চিকিৎসক। সেই ভুয়ো নম্বর নিয়েই মানুষের প্রান নিয়ে খেলছেন এইসব ভুয়ো চিকিৎসক। শহর থেকে গ্রাম, সর্বত্র ছবিটা একই। এ ক্ষেত্রে একাধিক অভিযোগ উঠেছে ইউনানি কাউন্সিলের দিকেই। তাঁদের অভিযোগ, কয়েক লক্ষ টাকার বিনিময় রেজিস্ট্রেশন নম্বর বিক্রি করছে কাউন্সিল।

অভিযোগকারীদের বক্তব্য, ১৯৮৫ সালে চালু হয়েছিল ইউনানি পাঠক্রম। তার আগে থেকে যাঁরা ইউনানি চিকিৎসা করতেন, ১৯৮৫ তে তাঁদের রেজিস্ট্রেশন দেয় কাউন্সিল। সেই সময় যাঁরা রেজিস্ট্রেশন পান, পরে তাঁদের অনেকেই মারা গিয়েছেন, আর তাঁদের সেই রেজিস্ট্রেশন নম্বর এখন ব্যবহার করছেন এমন একদল মানুষ, যাঁদের কোনও প্রশিক্ষণই নেই। এবং এই রেজিস্ট্রেশন নম্বর প্রদান করছেন খোদ কাউন্সিল।

এদিন পারভেজ ও নাদিম জানান, তাঁদের কাছে আসা তথ্য অনুযায়ী দেশের ১,৬৩৯ জন চিকিৎসকের মধ্যে ইতিমধ্যেই ৯৪৭ জন ইউনানির ভুয়ো চিকিৎসককে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই সব ভুয়ো চিকিৎসক অন্যের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করছেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে রয়েছেন এই নকল চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: টালমাটাল পরিস্থিতিতে বদলি হলেন ডাঃ রেজাউল করিম, পদত্যাগের সিদ্ধান্ত

প্রফেসর পারভেজের কথায়, “একবার রেজিস্ট্রেশন ইস্যু হয়ে গেলে তা আর পরিবর্তন করা যায় না, তবে ইউননি মেডিক্যাল কাউন্সিল সেটাই করছে। এ ক্ষেত্রে ঠিক বা ভুলের কোনও মন্তব্য আমরা করছি না। আমরা এ বিষয়ে সিবিআই তদন্ত চাইছি।পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে আমরা অনুরোধ করছি এই দুর্নীতির সঙ্গে যারা যুক্ত, তাদের শাস্তি দেওয়া হোক।”

পারভেজ আরও জানিয়েছেন, গত ৪ জুলাই এ নিয়ে তদন্তের জন্য স্বাস্থ্য দপ্তরে তাঁরা আবেদন করেছেন, তবে এখনও পর্যন্ত স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে কোনও উত্তর তাঁরা পাননি। বিষয়টি ইউনানি কাউন্সিলকে জানালেও কোনও সদুত্তর পাননি তাঁরা। এদিকে কাউন্সিল কর্তৃপক্ষের দাবি, কোনও লিখিত অভিযোগ এখনও পাননি তাঁরা। সঠিক তথ্য পেলে অবশ্যই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Yunani medical council fake doctor scam