scorecardresearch

বড় খবর

১০০ টাকার পেঁয়াজই এখন ‘সস্তা’! শিয়রে আরও বড় খাঁড়া

সামনে আরও বড় বিপদ! দিন যত যাচ্ছে, টগবগিয়ে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। জ্ঞানত পেঁয়াজের এমন দাম চোখে দেখেনি, বাজার করতে এসে নিত্যদিন প্রায় এ কথাই বলছে শহরবাসী।

১০০ টাকার পেঁয়াজই এখন ‘সস্তা’! শিয়রে আরও বড় খাঁড়া

পেঁয়াজের দামের ঝাঁজে নাজেহাল মধ্যবিত্ত। তবে ১০০ টাকার পেঁয়াজও এখন সস্তা ঠেকছে আম জনতার। কারণ, সামনে আরও বড় বিপদ! দিন যত যাচ্ছে, টগবগিয়ে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। জ্ঞানত পেঁয়াজের এমন দাম চোখে দেখেনি, বাজার করতে এসে নিত্যদিন প্রায় এ কথাই বলছে শহরবাসী। পরিস্থিতি যা তাতে দামের ছ্যাঁকায় কষা মাংস হোক বা ছাঁকা তেলে ভাজা পেঁয়াজি, সবকিছু থেকেই মুখ ফিরিয়েছে আমবাঙালি। তবে দেড়শর চোখরাঙানিতে ইদানীং ১০০ টাকা কেজির পেঁয়াজও সস্তা বোধ করছে সাধারণ মানুষ। কলকাতা শহর ও রাজ্যের একাধিক বাজারে বুধবার থেকেই পেঁয়াজের দাম সার্ধশত পার করেছে।

“দাম আরও বাড়বে বই কমবে না”, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে সাফ জানিয়ে দিলেন গড়িয়াহাট বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী ভোলানাথ সাহা। কারণ, বুধবার সকালে তাদের নাকি প্রায় ১৩০ টাকা কিলো দরে পেঁয়াজ কিনতে হয়েছে। তাই লাভ রাখতে ১৪০ টাকা দামে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি। ভোলানাথবাবু বলেন, “কালকের যে পেঁয়াজ রয়ে গেছে সেই পেঁয়াজের দাম আজ ১২০ ও ১৩০ টাকা কিলোতে বিক্রি করছি”।

আরও পড়ুন: ওরে, আমার পেঁয়াজ গিয়েছে চুরি!

এলগিন রোডের বাজারে গিয়ে দেখা গেল পেঁয়াজের দাম আজ ১৩০ টাকা কিলো। পেঁয়াজ ব্যবসায়ী মণিম দে জানাচ্ছেন, “বৃহস্পতিবার পেঁয়াজের দাম বাড়াতে হবে। কারণ, আজ প্রায় ৪৫০০ টাকায় ৪০ কেজির বস্তা কিনতে হয়েছে”। শ্যামবাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা অমল গুঁই বলেন, “নতুন পেঁয়াজের ফলন না হলে দাম কমা সম্ভব নয়। তবে মনে করছি, এখন পশ্চিমবঙ্গে যে নতুন পেঁয়াজের চাষ করা হবে, সেই ফলন উঠলে পেঁয়াজের দাম এক ধাক্কায় অনেকটা কমতে পারে”।

আরও পড়ুন: বিয়ের উপহারে ৩০ কেজি পেঁয়াজ পেলেন বর্ধমানের নবদম্পতি!

এদিকে, তুরস্ক থেকে পেঁয়াজ আমদানি করছে কেন্দ্র। ৬ হাজার ৯০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ মিশর থেকে এসে পৌঁছবে ভারতে। ডিসেম্বরের মাঝমাঝি সময় এই পেঁয়াজের আমদামি হবে বলে কেন্দ্রের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে খবর। তবে এতে পেঁয়াজের দাম এক ধাক্কায় অনেকটা কমে যাবে বলে এখনই আশা করা যাচ্ছে না। বরং কেজি প্রতি ১২০-৩০ টাকায় স্থায়ী থাকার সম্ভাবনা আছে বলেই মনে করছেন পেঁয়াজ বিক্রেতা অমল গুঁই।

আরও পড়ুন: বিশ্লেষণ: পেঁয়াজের দাম বাড়ছে কেন?

‘ওয়েষ্টবেঙ্গল ফোরাম অব ট্রেডার্স অর্গ্যানাইসেশন’-এর সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ কোলে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে বলেন, “বুধবার ১১২ টাকা পাইকারি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। সেই পেঁয়াজ খুচরো ব্যবসায়ীদের বিক্রি করা প্রয়োজন ১২০-২৫ টাকার মধ্যে। কারণ, ব্যবসায়ীদের ট্রান্সপোর্টের খরচ থাকে। আমরা বলেছিলাম, পেঁয়াজের এই অধিক দাম আগামী পনেরো কুড়ি দিনের মধ্যে কমে যাবে। কিন্তু তা হয়নি। কারণ, সময়মতো সঠিক পরিমাণের আমদানি হচ্ছে না। সবচেয়ে বড় ব্যাপার, সম্প্রতি কেন্দ্র রাজ্যকে পেঁয়াজ দিচ্ছে না। সেই কারণে ১০০ টাকা ছাড়িয়ে গেছে পেঁয়াজের দাম। সরকার শেষ ১৪ নভেম্বর ট্রেডার্স অর্গ্যানাইসেশনের সঙ্গে বৈঠক করে। এরপর পেঁয়াজের দাম নিয়ে সরকারের সঙ্গে আর কোনো আলোচনা হয়নি। তবে আমরা মনে করছি, এরকম চলতে থাকলে সরকার আগামী দিনে রেশন দোকানে পেঁয়াজ বিক্রি করবে”।

আরও পড়ুন: ২ বছরের শিশুর গলায় আবিরের সিনেমার গান, শুনলে মুগ্ধ হয়ে যাবেন

শিয়ালদহ কোলে বাজারের সৌম্য মজুমদার বলেন,”৪০ কেজি বস্তার দাম যাচ্ছে প্রায় চার থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা। পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান, হুগলী ও মুর্শিদাবাদ সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় যে পেঁয়াজের চাষ হচ্ছে, সেই নতুন পেঁয়াজ উঠলে দাম অনেকটা কমবে বলে মনে করছি। তবে এখন যে দাম রয়েছে তা আরও দশ থেকে পনেরো দিন চলবে”।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Kolkata news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Onion price hike in kolkata 150 rs