বড় খবর


২৩ ঘণ্টা পর, অবরোধ তুললেন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা

অবরোধ তোলার দাবিতে দফায় দফায় অফিস যাত্রীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েছিলেন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা।

ছবি : শশী ঘোষ

২৩ ঘণ্টা ধরে টানা নিজের দাবিতে অনড় ছিলেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। এরপর মানবিকতার খাতিরে অবস্থান বিক্ষোভের রাস্তা থেকে সরে এলেন জানিয়েছে তাঁরা। হিন্দু হস্টেল সংক্রান্ত দাবি-দাওয়া নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত হয়েছে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়। দাবি আদায়ে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে বিধান সরণি-মহাত্মা গান্ধী রোড মোড়ে অবস্থান বিক্ষোভে বসে পড়েন আন্দোলনকারীরা।

টানা ২৩ ঘন্টা ধরে রাস্তা আটকে চলে বিক্ষোভ কর্মসূচি। পরে এদিন সকালে পুলিশের সঙ্গে আলোচনায় বসেন আন্দোনকারী পড়ুদের প্রতিনিধি দল। ছাত্র-ছাত্রীদের অসুবিধা যাতে না হয় তা বিবেচনা করে কিছুক্ষণের জন্য মহাত্মা গান্ধী রোড থেকে অবরোধ কর্মসূচি শিথিল করেন আন্দোলনকারীরা। পরে ফের শুরু হয় অবরোধ কর্মসূচি।

ছবি : শশী ঘোষ

বেলা বাড়তেই চরম নাকাল হতে হয় অফিস যাত্রী সহ সাধারণ মানুষকে। অবরোধ তোলার দাবিতে দফায় দফায় অফিস যাত্রীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা।

ছবি : শশী ঘোষ

আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের দাবি কী?

হিন্দু হস্টেলের সংস্কার ও পরে তা খুলে দেওয়ার দাবি ঘিরে এর আগেই প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পড়ুয়াদের বিবাদ হয়েছে। হস্টেল সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি দাবি ঘিরে পড়ুয়াদের আন্দোলনে গত কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত প্রসিডেন্সি। আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের দাবি, হিন্দু হস্টেলের বন্ধ ৩, ৪, ৫ নম্বর ওয়ার্ড অবিলম্বে চালু করতে হবে। মেসের কর্মী সংখ্যা বৃদ্ধি বাড়াতে হবে। বহু দিনের মেস কর্মীদের কেন বাতিল করা হবে তার কারণও জানাতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে। এছাড়াও রয়েছে ছাত্রীদের হস্টেল সংক্রান্ত নানান দাবি।

ছবি : শশী ঘোষ

পড়ুয়াদের অভিযোগ, দাবি ঘিরে আলোচনা চেয়ে বহুদিন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সময় চাওয়া হলেও তা মেলেনি। এ বিষয়ে কোনও কথাই বলতে রাজি নন প্রেসিডেন্সির উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও বিভিন্ন বিভাগের ডিন-রা। ফলে দাবি আদায়ে চরম আন্দোলনের পথ হিসাবেই রাস্তা আটকে তাদের আন্দোলন চালাতে হচ্ছে। যতক্ষণ না পর্যন্ত তাদের দাবি মেনে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আলোচনায় বসবেন ততক্ষণ আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছেন পড়ুয়ারা।

ছবি : শশী ঘোষ

আরও পড়ুন: প্রেসিডেন্সির দেওয়াল এখন এ যুগের ব্যাঙ্কসিদের দখলে

বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই কলেজ স্ট্রিট মোড় অবরোধ করে আন্দোলনে শামিল প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা। একটানা ১৬ ঘন্টা পড়ুয়া আন্দোলনের জেরে অবরূদ্ধ হয়ে পড়ে কলেজ স্ট্রিট। তার ফলে গতকাল রাত থেকেই তীব্র যানজের সৃষ্টি হয়। যা শুক্রবার সকালেও দেখা গিয়েছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Presidency university hindu hostel student agitation college street live updates

Next Story
মুরগী, মটন, সামুদ্রিক মাছে করোনা! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com