বড় খবর

গ্রামবাংলার পরিবেশে বর্ষার এবং ইলিশের গন্ধে মেতে উঠুন

ভেদিক ভিলেজের ভুমি রেস্তোরাঁ। ১ জুলাই থেকে সেখানে শুরু হচ্ছে ইলিশ উৎসব, চলবে অগাস্টের শেষ অবধি। খাদ্য রসিকের জন্য তাঁদের মেনুতে থাকছে একাধিক ইলিশের পদ।

দেরি না করে আজই বেরিয়ে পড়ুন ইলিশের খোঁজে। ভেদিক ভিলেজ। এক্সপ্রেস ছবি: শুভম দত্ত

বর্ষার প্রথম বৃষ্টিতে কার্নিশ ভিজছে সারাদিন। মেঘলা আকাশ, হেডফোনে রবি ঠাকুর আর দুপুরে পাতে ইলিশের তেল দিয়ে গরম ভাত-সরষে ইলিশের পর ঘণ্টাখানেক ঘুম। ভাবলেই যেন চোখ বুজে আসে শান্তিতে, না? আসলে ইঁদুর দৌড়ের যুগে এমন একটা দিন বড় একটা মেলে না কর্পোরেট বঙ্গজ জীবনে। তবু, বরাত জোরে এমন একটা ছুটির দিন যদি পেয়েই যান, অফিসের ফাইলপত্র আর এক্সেল শিট থেকে ছুটি নিয়ে বেরিয়ে পড়তে পারেন ইলিশের সন্ধানে। যেখানে বৃষ্টির গন্ধে ইলিশ ভাজার গন্ধ মিশে যায় বর্ষার দুপুরে।

অবশ্য বর্ষাই হোক বা ভরা গ্রীষ্ম, পেটুক বাঙালির মনে চিরকালই সাঁতরে বেড়াচ্ছে এই রুপোলি ফসল। তাঁদের কথা মাথায় রেখেই শহরের অনতিদূরেই শুরু হচ্ছে ইলিশ উৎসব। যেখানে মা-দিদিমার হেঁসেলের পুরনো দিনের স্বাদ থেকে হাল আমলের ইলিশের ফিউশন স্টাইল, সবই মিলবে এক টেবিলে। এখানেই শেষ নয়, বাড়তি পাওয়া হিসাবে থাকছে অ্যাম্বিয়েন্সের কারিগরি। ইঁট, সিমেন্ট আর কংক্রিটের শহরেই গ্রামবাংলার মেজাজ। গাছগাছালি, তুলসি মঞ্চ, মাটির ঘরে খড়ের ছাউনির নিচে মাটির থালা-গেলাস আর ব্যাকগ্রাউন্ডে ঢিমে তালে গান। আর্টিফিসিয়াল আয়োজন হলেও কিছুক্ষণের জন্য আপনার নটা-ছটার কর্পোরেট জীবনে মিলবে অন্য সুখ।

vedic village
ভেদিক ভিলেজ, ভূমি রেস্তোরাঁ। এক্সপ্রেস ছবি: শুভম দত্ত

ভেদিক ভিলেজের ভুমি রেস্তোরাঁ। ১ জুলাই থেকে সেখানে শুরু হচ্ছে ইলিশ উৎসব, চলবে অগাস্টের শেষ অবধি। খাদ্য রসিকের জন্য তাঁদের মেনুতে থাকছে একাধিক ইলিশের পদ। বর্ষার মরসুমে এটি তাঁদের বিশেষ সংযোজন। পাতে শুরুতেই রাখতে পারেন স্যুপ স্মোকড হিলসা সোরবা, সঙ্গে কচুপাতা এবং ইলিশ মাছের তেল (৩৫০ টাকা)। স্টারটার হিসাবে আরও মিলবে বোনলেস স্মোকড হিলসা (৬৫০ টাকা) এবং হিলসা কার্ব মিট ফ্রাই, সঙ্গে লেমন পাউডার এবং কাসুন্দি মেও (৫৫০ টাকা)।

আরও পড়ুন: পাঁচ টাকায় ভাত-ডাল-সবজি দিয়ে পেট পুজো 

এবার ঢুকে পড়া যাক মেন ডিশ-এ। ঠাম্মার হাতের সেই চেনা স্বাদের ছোঁয়া এখানেই অপেক্ষা করছে আপনার জন্য, রেস্তোরাঁর তরফে পদের নাম দেওয়া হয়েছে ঠাকুমার ভাপা ইলিশ। বোনলেসও মিলবে বিশেষ অর্ডারে (৯৫০-১১৫০টাকা)। পাশাপাশি রয়েছে মরিচ বাটা দিয়ে বেগুন ইলিশ বড়ির ঝোল (৯৫০ টাকা)। শেষ হয়নি এখনও, রেস্তরাঁয় বসে ইলিশ চাখতে চাখতেই টাইম মেশিন চেপে পৌঁছে যান সেই উঠোনে যেখানে দাদা দিদিরা সার দিয়ে পাত পাড়তেন, একান্নবর্তী পরিবারে রান্না হত ইয়াব্বড় কড়াইয়ে। রেস্তোরাঁয় পুরনো বাড়ির ঠাকুরের হাতের রান্না না হলেও, শেফ নিজে রেঁধেই এর নাম রেখেছেন পুরোনো বাড়ির সরষে কাঁচালঙ্কা ইলিশ (৯৫০ টাকা)। লাউপাতার ইলিশ পাতুরী (৯৫০ টাকা) সহ পদ্মফুলের ডাঁটি সহযোগে রয়েছে আরও একটি পদ, নাম রোস্টেড পেপার লোটাস স্টেম হিলসা কারী (৯৫০ টাকা)।

Ilish utsav
ইলিশের বিভিন্ন পদ। এক্সপ্রেস ছবি: শুভম দত্ত

এ তো গেল আ-লা-কার্ট। থালি সিস্টেমও রয়েছে রেস্তোরাঁয়। দাম শুরু ১,১৫০ টাকা থেকে। এই তালিকায় পাবেন ইলিশ খিচুড়ি, ইলিশ বিরিয়ানি, সঙ্গে সাইড ডিশও। হেঁসেলের দায়িত্বে রয়েছেন শেফ আজাদ তাসলিম। তাঁর কথায়, একেবারে বাঙালি হেঁসেলের স্বাদই হাজির হবে খাদ্যরসিকদের টেবিলে। স্বাদে কোথাও বিন্দুমাত্র খামতি পাবেন না কেউ। ‘

কী ভাবছেন? সাতপাঁচ না ভেবে বেরিয়ে পড়ুন। একদিনের ছুটি জুটিয়ে জুটিকে নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন ইলিশ বাবাজির নাম নিয়ে। আর এদিন যদি আবহাওয়াও আপনাকে সঙ্গ দেয়, তাহলে তো সোনায় সোহাগা। সব মিলিয়ে এমন এক জাঁকজমকপূর্ণ পেট পুজো যেন মিস করবেন না।

Get the latest Bengali news and Lifestyle news here. You can also read all the Lifestyle news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Ilish utsav vedic village food festival

Next Story
EXCLUSIVE: ফেসবুকেই পাওয়া যাচ্ছে ভালো বাসার খোঁজResidential building in kolkata (photo shashi ghosh)
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com