scorecardresearch

বড় খবর

‘চিঠি দিয়ে রগড়ে দিল’, দিলীপের মুখ বাঁধা পরতেই বেনজির কটাক্ষ বাবুলের

দিলীপ ঘোষকে চিঠি দিয়ে সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলতে নিষেধ করেছে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

Dilip ghosh should stop to speak in media, babul supriya criticise bjp mp regarding letter from bjp supreme leadership
দিলীপ ঘোষকে কটাক্ষ বাবুল সুপ্রিয়র।

দিলীপ-অস্ত্রেই দিলীপকে বিঁধলেন বাবুল। দিলীপ ঘোষের একের পর এক গা গরম করা মন্তব্যে কর্মীরা চাঙ্গা হলেও দলের ভাবমূর্তি এতে ক্ষুন্ন হয়েছে বলেই মত একাংশের রাজনীতিবিদদের। দেরিতে হলেও সেটা বুঝে এবার দিলীপের মুখে বেড়ি পরিয়েছে দলও। চিঠি লিখে সতর্ক করা হয়েছে তাঁকে। সেই ইস্যুতেই এবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতিকে বেনজির কটাক্ষ তৃণমূল বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়র। ”সারাদিন মানুষ দুদণ্ড হাসির খোরাক পেতো। চিঠি দিয়ে ‘রগড়ে’ দিয়ে সেটাও বন্ধ করে দিল।” টুইটে এভাবেই প্রাক্তন বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষ বালিগঞ্জের তৃণমূল বিধায়কের।

দিন কয়েক আগেই দিলীপ ঘোষকে বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, আন্দামান ও উত্তর-পূর্বের চার রাজ্যে সংগঠন বৃদ্ধির দায়িত্ব দিয়েছে দল। বাংলায় দলের ভার তাঁর উপর না থাকলেও দিলীপ আছেন দিলীপেই। সুযোগ পেলেই তৃণমূলকে দুষতে গিয়ে আজও তাঁর নানা মন্তব্য বিতর্ক তৈরি করছে।

একুশের বিধানসভা ভোটে বিজেপির খারাপ ফলের জন্য দলবদলুদের প্রার্থী করা নিয়ে সম্প্রতি বৈদ্যুতিন মাধ্যমে একের পর এক মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ। যা নিয়েই তৈরি হয়েছে নয়া বিতর্ক। এরপরেই দিলীপের মুখ বাঁধতে নাড্ডার নির্দেশে কড়া চিঠি দলের জাতীয় সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিংয়ের। আপাতত দিলীপকে সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলতে নিষেধ করেছেন তিনি।

দিলীপের মুখে এবার খোদ তাঁর দলই বেড়ি পরানোয় ময়দানে তৃণমূল। একদা তাঁরই সতীর্থ ও বর্তমানে তৃণমূলের বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয় কটাক্ষ করেছেন দিলীপকে। টুইটে এদিন বাবুল লিখেছেন, ”পরশুদিনই লিখেছিলাম যে শ্রী @DilipGhoshBJP ‘Verbal Diarrhoea-র রুগী। তাঁর কোনও লজ্জা নেই। চিকিৎসাও নেই। বেশ চলছিল। রোজ ভোরবেলা ‘বাণীর-প্রাতঃকৃত্য – সারাদিন মানুষ তাতে দুদণ্ড হাসির খোরাক পেতো। চিঠি দিয়ে ‘রগড়ে’ দিয়ে সেটাও বন্ধ করে দিল। অবশ্য এমনিতেও আন্দামানে পাচার-order হয়েছিল।”

আরও পড়ুন- দিলীপের মুখে বেড়ি, নাড্ডার কড়া নির্দেশ, বিজেপিতে ‘খেলা হবে’

উল্লেখ্য, রাজ্য সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দিলীপ ঘোষকে দলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতির পদ দিয়েছিল বিজেপি। তবুও সুযোগ হলেই বঙ্গ বিজেপি নিয়ে মন্তব্য করা থেকে দূরে থাকেননি দিলীপ। দলের বর্তমান রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা কম বলে প্রকাশ্যে বলতে শোনা গিয়েছিল দিলীপকে। দলের অন্দরে যা নিয়ে সমালোচনা হয়েছিল। এরপরই দিল্লিতে দলের শীর্ষ নেতাদের কাছে দিলীপের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়েছিল বলে সূত্র মারফত খবর।

তারপরেই দিলীপ ঘোষের মুখে বেড়ি পরাতে চূড়ান্ত তৎপরতা নেয় দল। রীতিমতো চিঠি লিখে দিলীপ ঘোষকে সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলতে নিষেধ করেছেন বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিং। এই বিষয়টি নিয়েই এবার দিলীপ ঘোষকে পাল্টা আক্রমণ শানিয়ে ময়দানে তৃণমূল। এক সময় এরাজ্যের শিল্পীদের রাজনীতিতে নামার বিরোধিতা করে ‘রগড়ে দেওয়া’-র ‘দাওয়াই’ দিয়েছিলেন দিলীপ। এবার দিলীপের সেই মন্তব্যকে ঢাল করেই তাঁকে পাল্টা কটাক্ষ একদা তাঁরই সতীর্থ বাবুলের।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Dilip ghosh should stop to speak in media babul supriya criticise bjp mp regarding letter from bjp supreme leadership