‘দেশভাগ রুখতে নেতাজির ধর্মনিরপেক্ষতা অনুসরণ করুন’, বিজেপিকে বার্তা চন্দ্র বসুর

গান্ধী সংকল্প যাত্রার মতোই আগামী বছরের গোড়ার দিকে নেতাজি সংকল্প যাত্রা করা হোক বিজেপির তরফে। দাবি চন্দ্র বসুর।

By:
Edited By: Rajit Das Kolkata  Updated: November 8, 2019, 02:47:29 PM

‘ভারতকে সুসংহত করতে নেতাজির ধর্মনিরপেক্ষ আদর্শ অনুসরণ করতেই হবে, না হলে দেশ টুকরো টুকরো হয়ে যাবে।’ নিজের দল বিজেপিকে এই বার্তাই দিলেন নেতাজি প্রপৌত্র চন্দ্র বসু। তাঁর দাবি, গান্ধী সংকল্প যাত্রার মতোই আগামী বছরের গোড়ার দিকে নেতাজি সংকল্প যাত্রা করা হোক বিজেপির তরফে।

বৃহস্পতিবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বিজেপি নেতা চন্দ্র বসু বলেন, ‘ভারতকে সংহত করতে হলে দলকে (বিজেপি) নেতাজির আদর্শ মানতেই হবে। এখানে ধর্মের কোনও স্থান নেই। নেতাজির আদর্শ মানা না হলে দেশ টুকরো টুকরো হয়ে পড়বে। হিন্দু, মুসলমান, শিখ, খ্রিষ্টানের সমন্বয়েই নেতাজি আজাদ হিন্দ ফৌজ গঠন করেছিলেন। আমি বিজেপি করি, কিন্তু বিশ্বাস করি ধর্ম প্রত্যেকের ব্যক্তিগত বিষয়। এটা যারা বুঝতে পারবেন না তারা বিভেদকামী শক্তি।’

আরও পড়ুন: রাজ্যপাল বিজেপির লোক: মমতা

এই প্রথম নয়, এর আগেও ভারতের বীর সন্তান নেতাজিকে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য একাধিক দাবি তুলেছিলেন বিজেপির দক্ষিণ কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রের এই প্রার্থী। তাঁর কথায়, ‘এটাই সঠিক সময় ভারতের বীর এই স্বাধীনতা সংগ্রামী ও আজাদ হিন্দ ফৌজকে উপযুক্তভাবে শ্রদ্ধা জানানোর। কেন্দ্রের উচিত ইন্ডিয়া গেটে নেতাজির মূর্তি ও দিল্লির রাজপথে আইএনএর সৌধ নির্মাণ করা। নেতাজির আদর্শের মাধ্যমে ভারতকে একত্রিত করতে হবে। এছাড়া, কেন্দ্রীয় সরকার নেতাজীর মৃত্যু রহস্য যুক্তিপূর্ণভাবে উদঘাটন করুক।’

আরও পড়ুন: ‘মহা’সংকট! ‘মুখ্যমন্ত্রীর পদ দিতে চাইলে, তবেই ডাকবেন, নচেৎ নয়’

সদ্য গান্ধী সংকল্প যাত্রা করেছে বিজেপি। চন্দ্র বসু জানান প্রায় ছয়দিন সেই যাত্রায় অংশ নিয়ে ভালো সাড়া পাননি তিনি। প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়ে তিনি দাবি করেছেন, ‘আমি গান্ধীজিকে অবজ্ঞা করছি না। কিন্তু, ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে নেতাজি সংকল্প যাত্রা করা হোক।’ প্রধানমন্ত্রীর এই যাত্রার উদ্যোগ নেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি। ধর্ম, জাতির ভিত্তিতে দেশ পরিচালনার অভিযোগে বিরোধীদের নিশানায় বিজেপি। সেই সময় কেন্দ্রীয় সরকার ও দলকে গেরুয়া শিবিরের নেতার বার্তা যথেষ্ট গুরুত্ববাহী বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামের আগ্রদূত নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু। ব্রিটিশ শাসন থেকে ভারতকে মুক্ত করতে প্রথমে ফরওয়ার্ড ব্লক, পরে আইএনএ গঠন করেন। ১৯৪৫ সাল থেকে নিখোঁজ তিনি। কি হয়েছিল তাঁর? উত্তর এখনও সামনে আসেনি। বিভিন্ন রিপোর্টে বলা হয়েছে, তাইহুকু বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় নেতাজির। তবে, সেগুলি চূড়ান্ত নয়। কেন্দ্রের তরফে নেতাজি অন্তর্ধান রহস্য উদঘাটনে ১৯৫৬ সালে শাহনাওয়াজ কমিটি, ১৯৭০ সালে খোসলা কমিশন ও ২০০৫ সালে মুখার্জী কমিশন গঠন করা হয়। তবে তা থেকে চূড়ান্ত কিছু নির্ধারণ করা সম্ভব হয়নি।

Read the full story in English

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Politics News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Follow netajis secularism handra bose kin to bjp

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement