scorecardresearch

বড় খবর

কৃষকের সেবা প্রতিযোগিতায় এবার গুজরাত সরকার

মধ্য প্রদেশ এবং ছত্তিসগড়ে কংগ্রেস সরকার কৃষক ঋণ মকুব করেছে কী করে নি, আসামের বিজেপি সরকারও ঋণ মকুবের প্রতিশ্রুতি নিয়ে নেমে পড়ল মাঠে। এবং এক দিনের মাথায় প্রতিযোগিতার আসরে এলো বিজেপি-শাসিত গুজরাত।

ভোটের বালাই বড় বালাই। মধ্য প্রদেশ এবং ছত্তিসগড়ে নব নির্বাচিত কংগ্রেস সরকার সবেমাত্র কৃষক ঋণ মকুব করেছে কী করে নি, আসামের বিজেপি সরকারও ঋণ মকুবের প্রতিশ্রুতি নিয়ে নেমে পড়ল মাঠে। এবং ঠিক এক দিনের মাথায় প্রতিযোগিতার আসরে এলো বিজেপি-শাসিত গুজরাত। মঙ্গলবার সে রাজ্যের সরকার ঘোষণা করল যে গ্রামাঞ্চলে বিদ্যুৎ পরিষেবা গ্রহণকারীদের অনাদায়ী পাওনা মুছে ফেলা হবে। টাকার অঙ্কটা নেহাৎ কম নয় – ৬৫০ কোটি। এই শুভ সংবাদ শুনিয়ে গুজরাতের জ্বালানি মন্ত্রী সৌরভ প্যাটেল বলেছেন, এর দ্বারা ৬.২২ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন।

“সারা রাজ্যে ৬.২২ লক্ষ গ্রামাঞ্চলের গ্রাহক এই ৬৫০ কোটি টাকার বিল মাফ করার ফলে উপকার পাবেন,” সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে জানান প্যাটেল। এই মর্মে জারি করা একটি বিবৃতিতে জ্বালানি বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যের গ্রামীণ এলাকাগুলির গৃহস্থ, কৃষক, এবং ব্যবসায়িক গ্রাহকরা এই বকেয়া মকুবের সুবিধে পাবেন।

আরও পড়ুন: ৬০০ কোটি টাকার কৃষিঋণ মকুব করল আসাম

মন্ত্রী আরও বলেন যে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই সমস্ত বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয় বিদ্যুৎ চুরি অথবা বকেয়া বিল না মেটানোর ফলে। “আমাদের এককালীন সেটেলমেন্ট স্কিমের আওতায় গ্রাহকরা তাঁদের বিদ্যুৎ সংযোগ ফেরত পেতে পারেন স্রেফ পাঁচশো টাকার বিনিময়ে। তাঁদের বকেয়া টাকা মেটাতে হবে না, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে এই টাকা সম্পূর্ণ মাফ করে দেওয়া হবে।”

মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানির সরকার এই সিদ্ধান্তের ফলে স্পষ্টতই রাজ্যের কৃষক সমাজের মধ্যে উদ্বেগ-আশঙ্কা এবং বিজেপি-বিরোধিতার অবসান ঘটাতে চাইছে। গত বছরের বিধানসভা নির্বাচনে ১৮২ টি আসনের মধ্যে বিজেপি কোনমতে ৯৯ টি আসন পেয়ে সরকার গঠন করে। এ বছরের অগাস্ট মাসে, প্যাটেল বলেছিলেন, গুজরাতের ৪৬.১ লক্ষ কৃষকের মধ্যে সরকার গত ১৫ বছরে ১৯ শতাংশকে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেছে। “সরকার শুধু যে রাজ্যের মোট গ্রাহক সংখ্যা দুগুণ বাড়িয়ে ৭২ লক্ষ করেছে তাই নয়, ৮.৮৩ লক্ষ কৃষককেও নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ করে দিয়েছে,” বলেছিলেন তিনি।

সোমবার মধ্য প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ দু’লক্ষ টাকা পর্যন্ত কৃষি ঋণ মকুুব করার আদেশ জারি করেন। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তাঁর পদাঙ্ক অনুসরণ করে ছত্তিসগড়, যেখানে নতুন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল ঘোষণা করেন যে তাঁর মন্ত্রিসভা ১৬ লক্ষেরও বেশি কৃষকের ঋণ মকুবের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যে ঋণের পরিমাণ ৬,১০০ কোটি টাকা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Gujarat waives electricity bill for rural consumers