বড় খবর

মোদীর প্যাকেজ ঘিরে দ্বিধাবিভক্ত কংগ্রেস, বিশদ ব্যাখ্যার অপেক্ষায় তৃণমূল-বাম

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ২০ লক্ষ কোটির আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ২০ লক্ষ কোটির আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। এই ঘোষণা ঘিরে কংগ্রেসের অন্দরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গিয়েছে। বিরোধী বাম ও তৃণমূল একাধিক প্রশ্ন তুললেও কেন্দ্রীয় প্যাকেজের সম্পূর্ণ ব্যাখ্যা দেখেই প্রতিক্রিয়া দেবে বলে জানিয়েছে। আজই বিকেল চারটেতে ২০ লক্ষ কোটির আর্থিক প্যাকেজের বিশদ ব্যাখ্যা দেবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

লকডাউনের ফলে অর্থনৈতিক বৃদ্ধি তলানীতে। এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় আর্থিক প্যাকেজের দাবি জানাচ্ছিলেন বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার ঘোষণায় অবশ্য দ্বিধাবিভক্ত কংগ্রেস। কিছু নেতা এই প্যাকেজকে স্বাগত জানালেও অনেকেরই মতে, ‘হেডলাইনে’ থাকতেই মোদীর ওই ঘোষণা করেছেন।

আরও পড়ুন- ‘আত্মনির্ভর ভারত অভিযান’ কী?

কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘বহু প্রতিক্ষীত আর্থিক প্যাকেজকে স্বাগত জানাচ্ছি। আশা করছি ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্প ক্ষেত্র এতে সুবিধা পবে। পরিযায়ীরাও উপকৃত হবেন।’ রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট বলেছেন, ‘বেটার লেট দ্যান নেভার। আমরা একে স্বাগত জানাচ্ছি। বিস্তারিত এলেই বোঝা যাবে বিভিন্ন ক্ষেত্র এতে কীভাবে উপকৃত হল।’

কিন্তু, কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা টুইটে মোদীর ঘোষণাকে কটাক্ষ করে লিখেছেন, ‘শূন্য় পাতা পূরণ হলে কংগ্রেস এই নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাবে। মঙ্গ লবার যে প্যাকেজের কথা বলা হয়েছে তাতে দেশ ও সংবাদ মাধ্যম একটা শিরোনাম পেয়েছে মাত্র।’ এরপরই পরিযায়ীদের বাড়ি ফেরাকে কেন্দ্র করে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি। একই অভিযোগ করেছেন আরেক কংগ্রেস নেতা তথা সাংসদ মণীশ তিওয়ারিও।

তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন প্রধানমন্ত্রীর ২০ লক্ষ কোটির প্যাকেজ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। তাঁর কথায়, ‘আমরা সুন্দর কাগজে মোড়া একটা বাক্স দেখছি। কিন্তু তার মধ্যে কী রয়েছে? আমরা জানি না। বিস্তারিত ব্যাখ্য়া দিলেই তা বোঝা যাবে।’ প্যাকেজ ঘিরেকিছু শর্ত রয়েছে বলেও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। একাধিক রাজ্যের দাবি জিএসটি লাঘব করা হোক। রাজ্যগুলিকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হোক। সেই বিষয়গুলো মোদী বক্তব্যে উঠে না আসায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ডেরেক।

প্যাকেজ সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া না দিলেও সিপিআইএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি বলেছেন, ‘পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশার কথা ভেবে প্রধানমন্ত্রী কিছু সুবিধা দেবেন বলে মনে করেছিলাম, কিন্তু সে নিয়ে কিছু বললেন না। খুধার্থ মানুষের কথাও মোদীর বক্তব্যে উঠে এল না। এটা হতাশজনক।’ ইয়েচুরির মতে বর্তমানে দেশের চার বড় সংস্যা হল, পরিযায়ী, রাজ্যের দাবি-দাওয়া, ক্ষুধা ও কর্মসংস্থান। তবে এসব মোদী বক্তব্য স্থান না পাওয়ায় কেন্দ্রকে কটাক্ষ করেছেন সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Pm announces economic package cong divergent views tmc left wait for details

Next Story
‘নির্বাচন একবছর বাকি, এত তাড়াতাড়ি ধৈর্য হারালে হবে!’ বিজেপিকে কটাক্ষ মমতারmamata banerjee,মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়, মমতা, বিজেপি, বিজেপিকে আক্রমণ মমতার, বিজেপিকে নিশানা বাংলার, bjp, mamata slams bjp, mamata, করোনাভাইরাস, coronavirus, লকডাউন, টিকিয়াপাড়া, lockdown, tikiapara, টিকিয়াপাড়ায় আক্রান্ত পুলিশ, tikiapara violence, howrah, হাওড়া
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com