বড় খবর

টিকা নিয়েও রাজনীতি! বর্ধমানে ভ্যাকসিন নিলেন তৃণমূল বিধায়করা, তুঙ্গে বিতর্ক

তৃণমূল নেতাদের করোনা ভ্যাকসিন নেওয়া নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

ভাতারের বিধায়ক সুভাষ মণ্ডল ও প্রাক্তন বিধায়ক বনমালী হাজরা।

করোনা ভ্যাকসিন নিয়েও রাজনৈতিক বিতর্ক পিছু ছাড়ল না। একেবারে প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের ভ্যাকসিন নেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। অভিযোগ উঠেছে, রোগীকল্যাণ সমিতির সদস্যদের নামে তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিরা করোনা টিকা নিয়েছেন। পূর্ব বর্ধমানের দুজন বিধায়ক ও একজন প্রাক্তন বিধায়ক এদিন করোনা টীকা নিয়েছেন।

ভাতার স্টেট জেনারেল হাসপাতালে টিকা নিয়েছেন তৃণমূল বিধায়ক সুভাষ মণ্ডল, প্রাক্তন বিধায়ক বনমালী হাজরা ছাড়া আরও তিন স্থানীয় তৃণমূল নেতা। এছাড়া কাটোয়ার তৃণমূল বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্য়ায়ও করোনা টিকা নিয়েছেন। এই নিয়ে তোপ দেগেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁরা রোগীকল্যাণ সমিতির সদস্য বলে টিকা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ও জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র।

তৃণমূল নেতাদের করোনা ভ্যাকসিন নেওয়া নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আমফানের তালিকার সঙ্গে তুলনা টেনেছেন তিনি। দিলীপ ঘোষ বলেন, “যাঁদের এখন করোনা ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত না তাঁরা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। রোগীকল্যাণ সমিতির সদস্যদের পাওয়ার কথা নয়। এসব কমিটিতে বহু লোক থাকেন। যদি তাঁরা পেয়েও থাকেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী বলবেন, এঁদের কী লিস্টে নাম ছিল? কম তো পড়বেই।”

আরও পড়ুন গতানুগতিক নয়, ইস্তেহারে সাধারণের মতামত, অভিনব ভাবনা বিজেপি নেতার

ভাতারের বিধায়ক সুভাষ মণ্ডল, কাটোয়ার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়, ভাতারে প্রাক্তন বিধায়ক বনমালী হাজরার করোনা টিকা নেওয়া প্রসঙ্গে পূর্ব বর্ধমান জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায় বলেন, “রোগীকল্যাণ সমিতির সদস্যরাও সরাসরি স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত। তাঁরা কোনও না কোনও হাসপাতালে পরিচালন সমিতির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। তাই তাঁরা তালিকায় রয়েছেন।” এদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন, “বিজেপি শুধু অভিযোগ করেই থাকে। আমাদের জেলার একাধিক নেতৃত্ব করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা টিকা নিয়ে স্বজনপোষণের কোনও ব্যাপারই নেই।”

প্রথম সারির করোনা যোদ্ধারা প্রথম পর্যায়ে টিকা পাবেন সেকথা আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল। জনপ্রতিনিধিরা প্রথম দিনই টিকা নেওয়ায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরেও গুঞ্জন শুরু হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক বলেন, “শুধু বর্ধমান নয় মেদিনীপুর থেকেও আমাদের কাছে খবর এসেছে প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের বাদ দিয়ে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন। সফটওয়্যারে সমস্যা হওয়ায় প্রায়োরিটির ভিত্তিতে টিকা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তা মান্য করা উচিত।”

Web Title: Tmc mlas in vaccination list bjp objects for scam

Next Story
রাগ, অভিমান ভুলে রাজীব-লক্ষ্মীরতন-বৈশালীকে একসঙ্গে লড়াইয়ের বার্তা প্রসূনের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com