তাপস পালের মৃত্যুর জন্য দায়ী কেন্দ্রের বিজেপি সরকার! বিস্ফোরক মমতা

‘কেন্দ্রের এজেন্সির চাপে তাপস পাল ক্ষতিবিক্ষত ছিল। ওঁর কী অপরাধ ছিল? লাঞ্ছনা, গঞ্জনার শিকার হয়েছে ও।কেন্দ্রের রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ থেকে কেউই রেহাই পাচ্ছেন না।

By:
Edited By: Souradip Samanta Kolkata  Updated: February 19, 2020, 02:02:58 PM

তাপস পালের অকাল মৃত্যুর জন্য দায়ী বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকার! দলের প্রাক্তন সাংসদের আকস্মিক প্রয়াণে এমন বিস্ফোরক অভিযোগই করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘কেন্দ্রের এজেন্সির চাপে তাপস পাল ক্ষতিবিক্ষত ছিল। ওঁর কী অপরাধ ছিল? লাঞ্ছনা, গঞ্জনার শিকার হয়েছে ও…কেন্দ্রের জঘন্য রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ থেকে কেউই রেহাই পাচ্ছেন না। আমার চোখের সামনে তিন জনের মৃত্যু হল। সুলতান আহমেদ, তাপস পাল আর প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীর। কী খেলা চলছে জানি না’’।

ঠিক কী বলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?

তাপস পালের প্রয়াণে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘তাপস পালের মৃত্যু আবার প্রমাণ করল, একটা এজেন্সির অত্যাচারে একটা মানুষ নিজেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলেছিল, ক্ষতবিক্ষত ছিল, হয়তো মৃত্যুর আগে জানলও না ওর কী অপরাধ ছিল! তাপসের মতো নম্বর ওয়ান ফিল্মস্টারকে জেল খাটতে হয়েছে। তার অপরাধ কী ছিল? তাপস একটা বিনোদন চ্যানেলের ডিরেক্টর ছিল, মাইনে পেয়েছিল তাই জেলে রাখা ছিল। অকালে চলে গেল, ওর মুখের দিকে তাকাতে পারছি না’’।

দেখুন: তাপস পালের উত্থান-পতন! কেমন ছিল রাজনৈতিক কেরিয়ার?

এরপরই মমতা বলেন, ‘‘কী খেলা আমি জানি না। অন্যায় করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিন, বিচার করুন। এতদিন জেলের মধ্যে বন্দি করে রাখার কী কৌশল এটা! কেন্দ্রের জঘন্য রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ থেকে কেউই রেহাই পাচ্ছে না। আমার চোখে ৩টি মৃত্যু হল। একটা সুলতান আহমেদ। শুনেছিলাম, একটা ফোন পেল, চিঠি পেল তারপর মৃত্যু হল। প্রসূনের স্ত্রীও সহ্য করতে না পেরে মারা গেল। আর তাপসের মৃত্যু। খুবই ব্যথিত, মর্মাহত, শোকাহত’’।

আরও পড়ুন: বিস্ফোরক অভিযোগ: তাপস পাল যাঁদের সঙ্গে ছিলেন, তাঁদের জন্যই এই পরিণতি

তাপস প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘‘দিনের পর দিন লাঞ্ছনা করা হয়েছে তাপস পালকে, গঞ্জনার শিকার হয়েছে। তাপসকে সবাই ভালবাসত। ও বাংলার ঘরের ছেলে ছিল। চলচ্চিত্র জগতে অপূরণীয় ক্ষতি হল। ওর দাদার কীর্তি অমর হয়ে থাকবে’’।

উল্লেখ্য, রোজভ্যালিকাণ্ডে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন তাপস পাল। এরপর প্রায় ১৩ মাস জেলবন্দি ছিলেন তিনি। সেসময়ই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন বাংলা সিনেমার একদা সুপারস্টার। গ্রেফতারির পর থেকেই কার্যত নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিলেন তাপস। অন্যদিকে, নারদ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছিল তৃণমূল সাংসদ সুলতান আহমেদ ও হাওড়ার সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সিবিআই-এর চাপেই সুলতানের আকস্মিক মৃত্যু ও প্রসূনের স্ত্রীর মৃত্যু বলে দাবি তৃণমূলের। তাপস পালের অকাল মৃত্যুর প্রসঙ্গে সুলতান ও প্রসূনের স্ত্রীর প্রয়াণের কথা বলে কেন্দ্রকে যেভাবে দুষলেন মমতা, তা রাজনৈতিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Politics News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Tapas paul death mamata banerjee bjp cbi

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

BIG NEWS
X