বড় খবর

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা, লোকসভার আগে দলকে কড়া বার্তা 

উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার, নদিয়া, বর্ধমান এবং উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণায় প্রায়ই দলের সদস্যদের মধ্যে ঝামেলা হচ্ছে। জেলা সভাপতিদের কাছ থেকে এই সম্পর্কে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে।

mamata-banerjee
ফাইল ছবি

দলের মধ্যে অন্তঃদ্বন্দ্ব নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো। দলের মধ্যে গণ্ডগোল লাগাচ্ছে যারা,  তাদের চিহ্নিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্যের প্রতিটি জেলার সভাপতিকে।  অশান্তি বাধলেই মুখ্যমন্ত্রীকে জানানোর নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

দলের নবীন বনাম প্রবীণ দ্বন্দ্ব সাম্প্রতিক কালে একাধিকবার এসে পড়েছে প্রকাশ্যে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, মমতার ঘনিষ্ঠ এক তৃণমূল নেতা জানিয়েছেন, “দলের মধ্যে অশান্তি নিয়ে খুশি নন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবীনদের সঙ্গে প্রবীণদের লড়াই চলছেই। মুখ্যমন্ত্রী আমাদের অবিলম্বে এই ব্যাপারে পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছেন। দোষীদের চিহ্নিত করতে বলা হয়েছে। ২০১৯-এর লোকসভার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছি আমরা। ১৯ জানুয়ারির ব্রিগেডের সমাবেশে সমস্ত বিরোধী নেতারাই উপস্থিত থাকবেন। এইরকম একটা পরিস্থিতিতে দলের মধ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব সহ্য করব না আমরা”।

আরও পড়ুন, মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া ভারতীয় সেনাদের বাংলাদেশের শ্রদ্ধা

তিনি আরও বলেছেন, “উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার, নদিয়া, বর্ধমান এবং উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণায় প্রায়ই দলের সদস্যদের মধ্যে ঝামেলা হচ্ছে। জেলা সভাপতিদের কাছ থেকে এই সম্পর্কে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। দলের মধ্যে ঝামেলা লাগাচ্ছে কারা, তার তালিকা বের করতে বলা হয়েছে দলের তরফ থেকে”।

তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন একাধিকবার। পানিহাটির এক জনসভায় রবিবার তিনি বলেছেন, “আমার কাছে খবর এসছে, যারা দলগঠনের সময় থেকে দলে আছেন, তাঁরা তাঁদের প্রাপ্য সম্মান পাচ্ছেন না। তরুণ এবং প্রবীণদের হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করা উচিত”।

Read the full story in English

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Tmc leaders asked to identify wrongdoers report to mamata banerjee

Next Story
রথ বাতিল নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের দ্বারস্থ হচ্ছে বিজেপি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com