scorecardresearch

বড় খবর

এই পাক পেসারকে খেলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন এবিডি, বিস্ফোরক দাবি শোয়েবের

পাকিস্তান এই পেসার চলতি প্রজন্মের অন্যতম সেরা বোলার। ২০১০ সালে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নির্বাসনে যাওয়ার আগে দুনিয়ার শীর্ষসারির বোলারদের তালিকায় নাম লিখিয়েছিলেন।

এই পাক পেসারকে খেলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন এবিডি, বিস্ফোরক দাবি শোয়েবের

এবি ডিভিলিয়ার্স নাকি কেঁদেই ফেলেছিলেন। ভিভিএস লক্ষ্মণও নাকি ব্যাট করতে ভয় পেতেন মহম্মদ আসিফকে ফেস করতে। এমনই এবার দাবি করে বসলেন শোয়েব আখতার।

স্পোর্টস টুডে-তে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শোয়েব আখতার বলে দেন, “ও ওয়াসিম আক্রমের থেকেও বড় বোলার। ওকে স্বচক্ষে বোলিং করতে দেখেছি। অনেক ব্যাটসম্যানকেই দেখেছি আসিফের বোলিংয়ের সামনে কেঁদে ফেলতে। লক্ষ্মণ আমাকে একবার বলেই ফেলেছিল, ওকে কীভাবে ফেস করব! এশিয়ান টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সময় এবি ডিভিলিয়ার্স তো কেঁদেই ফেলে।”

আরো পড়ুন: সৌরভের জন্য এবার কলকাতায় দেবী শেঠি, দিল্লিতে চিকিৎসার প্রস্তাব অমিত শাহের

ঘটনা যতই বাড়াবাড়ি মনে হোক, পাকিস্তান এই পেসার চলতি প্রজন্মের অন্যতম সেরা বোলার। ২০১০ সালে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নির্বাসনে যাওয়ার আগে দুনিয়ার শীর্ষসারির বোলারদের তালিকায় নাম লিখিয়েছিলেন। আর পাকিস্তানের জার্সিতে আসিফ-আখতার জুটি বিশ্বের কাছে ত্রাস হয়ে উঠেছিল।

আর বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে বুমরাকে সবথেকে স্মার্ট বোলার হিসাবে বেছে নিয়েছেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস। তিনি বলেছেন, “বর্তমানে আমার মতে আসিফের পর সবথেকে স্মার্ট বোলার বুমরা। টেস্ট ক্রিকেটে ওঁর ফিটনেস নিয়ে অনেকে সন্দিহান ছিল। আমিও ওঁর পারফরম্যান্সের নিয়মিত খোঁজখবর রাখতাম। ওঁর হাতে একটা দ্রুতগতির বাউন্সার আছে। এই চকিত বাউন্সার অনেককেই বোকা বানিয়ে দেয়। ও কী ভালই না বোলার!”

Read the full article in ENGLISH

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Ab devilliers literally cried in front of mohammad asif claims shoaib akhtar