শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি কিংবদন্তি হকি খেলোয়াড় বলবীর সিং

শ্বাসজনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কিংবদন্তি হকি খেলোয়াড় বলবীর সিং সিনিয়র। তিনবারের অলিম্পিক স্বর্ণ পদক জয়ী বলবীরকে পিজিআই হাসপাতালের রেসপিরেটরি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আরআইসিইউ) রাখা হয়েছে।

By: Lucknow  October 4, 2018, 3:26:05 PM

শ্বাসজনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কিংবদন্তি হকি খেলোয়াড় বলবীর সিং সিনিয়র। তিনবারের অলিম্পিক (লন্ডন, হেলসিনকি ও মেলবোর্ন) স্বর্ণ পদক জয়ী বলবীরকে পিজিআই হাসপাতালের রেসপিরেটরি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আরআইসিইউ) রাখা হয়েছে। কিংবদন্তি সেন্টার ফরোয়ার্ডের এখন ৯৪ বছর বয়স। গত বুধবার থেকেই তিনি হাসপাতালে।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থা পিটিআই কথা বলেছে বলবীরের ডাক্তারের সঙ্গে। তিনি জানিয়েছেন  যে, বলবীরকে এনড্রোট্র্যাকিয়াল ইনটিউবেশন পদ্ধতিতে শ্বাস দেওয়া হচ্ছে। এই প্রক্রিয়ায় শ্বাসনালিতে একটি ট্র্যাকিয়া টিউব ঢোকানো হয়। যার ফলে ফুসফুসের মধ্যে মুক্ত ভাবে বাতাস প্রবাহিত হয়। শেষ কয়েক ঘণ্টায় বলবীরের অবস্থার সামান্য উন্নতি হয়েছে। ডাক্তারদের পর্যবেক্ষণেই হাসপাতালে থাকবেন তিনি।

আরও পড়ুন: হকি স্টিক তুলে রাখলেন সর্দার সিং

২০১২ সালে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থা ১৬ জন কিংবদন্তিকে স্থান দিয়েছিলেন আধুনিক অলিম্পিকের ইতিহাসে। একমাত্র ভারতীয় হিসেবে জায়গা করে নেন বলবীর। এখনও পর্যন্ত অলিম্পিকের আসরে ফিল্ড হকির ফাইনালে সর্বোচ্চ গোল করার নজির রয়েছে বলবীরেরই। ১৯৫২ সালে হেনসিনকিতে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকে ভারত নেদারল্যান্ডসকে ৬-১ গোলে হারিয়ে সোনা জিতেছিল। সেই ম্যাচে একাই পাঁচ গোল দিয়েছিলেন বলবীর। যদিও এই তথ্য নিয়ে এখনও সন্দেহ রয়েছে। ১৯৩৬ অলিম্পিকের ফাইনালে ভারত ৮-১ গোলে হারিয়েছিল জার্মানিকে। সেবার ধ্যানচাঁদ একাই হাফ-ডজন গোল করেছিলেন। যদিও আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের রিপোর্ট বলছে যে, বার্লিন অলিম্পিক ফাইনালে ধ্যানচাঁদের স্টিক থেকে এসেছিল তিন গোল। ১৯৫৭ সালে বলবীর পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন। ১৯৭৫-এ বিশ্বকাপ জয়ী হকি দলের ম্যানেজার হন তিনি।

 

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Sports News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Balbir singh sr hospitalised with breathing problems

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
হয়রানির আশঙ্কা
X