scorecardresearch

বড় খবর

ঘরোয়া ক্রিকেটে ‘চ্যাম্পিয়ন’, তবু কেন জাতীয় দলে বাদ! উনাদকাটকে নিয়ে নয়া রহস্য ফাঁস

ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিতভাবে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে আসছেন জয়দেব উনাদকাট। ২০১৯-২০ মরশুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক ছিলেন (৬৮টি)।

ঘরোয়া ক্রিকেটে ‘চ্যাম্পিয়ন’, তবু কেন জাতীয় দলে বাদ! উনাদকাটকে নিয়ে নয়া রহস্য ফাঁস

বয়স বেড়ে গিয়েছে। সেই কারণেই জাতীয় দলে সুযোগ পাচ্ছেন না জয়দেব উনাদকাট। এমনটাই মনে করছেন সৌরাষ্ট্রের প্রাক্তন কোচ কার্সন ঘাউরি। নির্বাচকরাই নাকি মনে করছেন উনাদকারের বয়স বেড়ে গিয়েছে।

অতিমারির কারণে ঘরোয়া ক্রিকেট এখন ঘোরতর অনিশ্চিত। এর আগে একের পর এক সিরিজ থেকে বাদ পড়ে উনাদকাট চরম হতাশায় ভুগছেন। অস্ট্রেলিয়া সফর তো বটেই ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধেও জাতীয় দলের স্কোয়াডে ডাক পাননি সৌরাষ্ট্রের ২৯ বছরের তারকা পেসার। আসন্ন ইংল্যান্ড ট্যুরেও বাইরে রাখা হয়েছে তাঁকে।

আরো পড়ুন: বউয়ের ছবি আবছা করে বড় বিতর্কে ইরফান! রেগে গিয়ে নয়া যুক্তি পাঠানের

আর এতেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কার্সন ঘাউড়ি। টাইমস অফ ইন্ডিয়া-কে তিনি জানিয়েছেন, “রঞ্জি ট্রফি ফাইনালের (২০১৯/২০২০) সময় একজন নির্বাচকের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা হয়েছিল। বলেছিলাম, যে বোলার দলকে একার হাতে রঞ্জি ট্রফি ফাইনালে তোলে, মরশুমে ৬০টার বেশি উইকেট নেয়, তাঁকে কি অন্তত ইন্ডিয়া-এ দলের হয়ে খেলার জন্যও ডাকা যেত না!

তারপর সেই নির্বাচক কী জানিয়েছিলেন, সেটাও খোলসা করেছেন ঘাউড়ি, “সেই নির্বাচক তখন আমাকে বলেন, কাডু ভাই, ভারতের হয়ে ওঁকে আর খেলতে দেখা যাবে না। এমনকি ৩০ জনের স্কোয়াডের নাম নাড়াচাড়া করলেও ও আসবে না।”

এরপর কার্সন ঘাউড়ি কারণ জিজ্ঞাসা করেন, “তাহলে এত কাড়িকাড়ি উইকেট নিয়ে ওর কী লাভ?” পাল্টা সেই নির্বাচকের যুক্তি, “ওর এখনই বয়স ৩২-৩৩। বয়স ওঁর বিরুদ্ধে। ওঁর বেশি বয়সই জাতীয় দলের জার্সিতে সমস্ত সম্ভবনা নষ্ট করে দিয়েছে।”

২৪ ঘন্টা আগেই জয়দেব উনাদকাট জাতীয় দলে নির্বাচিত না হওয়ার কারণে অসন্তোষ ব্যক্ত করেছিলেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিতভাবে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে আসছেন জয়দেব উনাদকাট। ২০১৯-২০ মরশুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক ছিলেন (৬৮টি)। ২০১৮-২৯’এ তাঁর সংগ্রহে ছিল ৩৯টি উইকেট। ২০১৯-২০ মরশুমে একাই রঞ্জিতে সৌরাষ্ট্রকে ট্রফি জিততে সাহায্য করেন তিনি। তারপরেও একের পর এক সিরিজে ব্রাত্য হয়ে থেকেছেন তিনি।

আর নির্বাচকরা ঘাউড়িকে সাফ জানিয়েছেন, বারংবার তারকার বাইরে থাকার কারণ, “একজন বয়স বেড়ে যাওয়া ক্রিকেটারের জন্য কেন আমরা সময় অপচয় করব? তাঁর পরিবর্তে একজন ২২-২৩ বছরের প্রতিশ্রুতিমান পেসারের পিছনে আমরা বিনিয়োগ করব। তাহলে সেই বোলার অন্তত জাতীয় দলকে ৮-৯-১০ বছর টানতে পারবে। আর যদি উনাদকাটকে নেওয়া হয়, তাহলে ও কতবছর খেলবে?”

রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে আইপিএলে খেলা উনাদকাট ২০১০ সাল থেকেই জাতীয় দলের প্রতীক্ষায়। সেঞ্চুরিয়নে ২০১০-এ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অভিষেক ঘটেছিল উনাদকাটের। তারপর জাতীয় দলের জার্সিতে ৭টি ওডিআই এবং ১০টি টি২০ খেললেও টেস্টে আর সুযোগ পাননি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Because of age jaydev unadkat will not get to play in indian team feels national selectors