scorecardresearch

বড় খবর

দুর্নীতির কোপায় চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল, লাল কার্ড দেখে মেসির বিস্ফোরণ

Copa America 2019: ম্যাচের ৩৭ মিনিট-ই সবথেকে ঘটনাবহুল। ৩৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেছিলেন লিওনেল মেসি। চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেলের সঙ্গে বল দখলের লড়াই চলছিল মেসি।

সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হারের পরেই উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন। ফাইনালের পরে এবারে রেফারিং নিয়ে উগরে দিলেন ক্ষোভ। লাল কার্ডও দেখলেন লিওনেল আন্দ্রেস মেসি। কোপার তৃতীয় স্থান নির্ধারক ম্যাচে আর্জেন্টিনা ২-১ গোলে চিলিকে হারালেও রয়ে গেল অনেক বিতর্ক। যা নিয়ে ম্যাচের পর তোলপাড় ফুটবল দুনিয়া। চিলি-র সঙ্গে পরপর দু-বার কোপার ফাইনালে হারের মধুর প্রতিশোধ নিল আর্জেন্টিনা। তা-ও আবার তৃতীয় স্থানের নির্ণায়ক ম্যাচে।

কোপার ইতিহাসে ১৪বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা খেলতে নেমেছিল চিলির বিপক্ষে। সাও পাওলোর এই খেলায় শুরু থেকেই উত্তাপের রিংটোন বেঁধে দিয়েছিলেন দু-দলের ফুটবলাররা। মাথা গরম করে চোরাগোপ্তা মার, বারংবার ফাউল – আর্জেন্টিনা-চিলি ম্যাচে ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছিল। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এই রেষারেষি বর্তমান ছিল।

আরও পড়ুন অনুষ্কা-রীতিকার মুখ দেখাদেখি বন্ধ! বিশ্বকাপের মাঝেই স্ত্রী-বিতর্ক শ্রীলঙ্কা ম্যাচে

ম্যাচের ৩৭ মিনিট-ই সবথেকে ঘটনাবহুল। ৩৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেছিলেন লিওনেল মেসি। চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেলের সঙ্গে বল দখলের লড়াই চলছিল মেসি। সেই সময়েই গ্যারি মেডেল বিশ্রী ফাউল করেন মেসিকে। অথচ, সকলকে অবাক করে মেসিকেই লাল কার্ড দেখানো হল। পরে ভার প্রযুক্তিতে দেখার পরে মেডেলকেও মাঠের বাইরে পাঠানো হয়। দু-দলের ফুটবলারদের হাতাহাতিতে বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধও রাখতে হয়। ঘটনাচক্রে, এই নিয়ে নিজের কেরিয়ারে মোট দু-বার লাল কার্ড দেখলেন তিনি। আর্জেন্টিনার হয়ে ১৪ বছর আগে অভিষেক ম্যাচে ভুল সিদ্ধান্তের বলি হয়ে লাল কার্ড দেখেছিলেন তিনি। তারপর ফের এবার। সেবারের মতো এবারেও ভুল রেফারিংয়ের শিকার তিনি। এতেই প্রচণ্ড চটে গিয়েছেন মেসি।


ম্যাচের পরে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেও দেখা যায়নি তাঁকে। জানা গিয়েছে, রেফারিংয়ের মান নিয়ে মেসি এতটাই ক্ষুব্ধ ছিলেন যে ড্রেসিংরুমের বাইরেও বেরোন নি। সতীর্থ ফুটবলাররা তৃতীয় হওয়ার পুরষ্কার নিতে হাজির ছিলেন। অথচ, তিনি প্রতিবাদে গেলেনই না!

পরে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে মেসি বিস্ফোরক ভঙ্গিতে বলে গেলেন, গোটা টুর্নামেন্ট জুড়ে রেফারিংয়ের মান অত্যন্ত খারাপ ছিল। “দুর্নীতির অংশ হতে না চাওয়ায় এবং সম্মান হানিকর কোনও বিষয়ে না থাকার জন্যই পুরস্কার নিতে যাই নি। দুর্নীতি এবং রেফারিং আমাদের ফাইনালে উঠতে দেয় নি। সত্যি এটাই।” এখানেই না থেমে মেসি আরও বলেন, “কোনও সন্দেহ নেই ব্রাজিল এবারের চ্যাম্পিয়ন। আগে থেকেই ঠিক হয়ে রয়েছে ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন করা হবে। রেফারি এবং ভার (VAR) প্রযুক্তি ফাইনালে কিছুই করবে না। এবং পেরু ওদের লড়াই উপহার দেবে।”

আর্জেন্টিনা এই বিতর্কদগ্ধ ম্যাচে জোড়া গোল করল আগুয়েরো ও পাবলো দিবালার সৌজন্যে। চিলির একমাত্র গোল আর্তুরো ভিদালের।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Copa america 2019 lionel messi blasts at the poor referring and tags tournament as corrupted