বড় খবর

‘মুসলিমরা বম্ব’, একের পর এক বিস্ফোরক বিদ্বেষী টুইট! চরম শাস্তির মুখে ইংরেজ পেসার

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের শুরুর দিনেই ড্রেসিংরুমে রবিনসন নিজের টুইটের জন্য সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। ইংল্যান্ডের সহকারী কোচ গ্রাহাম থর্প জানিয়েছেন একথা।

লর্ডস টেস্টে স্বপ্নের অভিষেক ঘটিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান ডেভন কনওয়ে। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেকেই দ্বিশতরান করার দুরন্ত কীর্তি গড়েছেন তিনি। অন্যদিকে, ইংল্যান্ডের জার্সিতে অভিষেককারী অলি রবিনসনও নজর কেড়ে নিয়েছেন। নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে চারজনই তাঁর শিকার।

এমন দুরন্ত পারফর্ম করার পরেও কিউয়িদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে বাদ পড়তে চলেছেন তিনি। ক্রিকেটীয় কারণে নয়। অভিষেক টেস্টের সময়েই রবিনসনের হঠাৎ পুরোনো কিছু টুইট ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। যেখানে ৮-৯ বছর আগে ১৮ বছরের রবিনসনকে একের পর এক বর্ণবিদ্বেষী টুইট করতে দেখা গিয়েছে।

আরো পড়ুন: আমাদের বাঁচান! সৌরভের কাছে চিঠি দিয়ে কাতর আর্জি বোর্ডের ‘বৃদ্ধ’ স্কোরারদের

কখনও ‘মুসলিমদের বোমা’, এশিয়ানদের ইমোজি লেখা নিয়ে কটাক্ষ করেছেন, কৃষ্ণাঙ্গদের ইবোলা ভাইরাসের সঙ্গে তুলনা করেছেন। পুরোনো একাধিক বিদ্বেষী সেই টুইট অভিষেকের আগেই ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিল ইংরেজ পেসারকে। সেই সমস্ত আপত্তিকর টুইট ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পরে প্রথম দিনের খেলা শেষে নিজেই ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন রবিনসন। তবে তাতেও বাঁচলেন না তিনি। তাঁর বিদ্বেষী টুইটের জন্য দ্বিতীয় টেস্টেই বাদ পড়তে চলেছেন তিনি।

ব্রিটেনের দ্যা টেলিগ্রাফ সংবাদপত্রে জানানো হয়েছে, ইসিবি ইতোমধ্যেই টুইট কাণ্ডের জন্য তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। সেই কারণেই এজবাস্টনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তাঁকে। তবে শুধুমাত্র নিউজিল্যান্ড টেস্ট সিরিজেই এই শাস্তি সীমাবদ্ধ থাকবে না। সরকারিভাবে ইসিবির তরফে এখনো এই বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে কিছু জানানো না হলেও, শোনা যাচ্ছে ভারতের বিরুদ্ধে আসন্ন পাঁচ টেস্টের সিরিজেও থাকবেন না অলি রবিনসন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছুদিন ধরেই বর্ণবিদ্বেষ নিয়ে কড়া নীতি নিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট। জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই নতুন বা প্রতিশ্রুতিমান ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের সোশ্যাল মিডিয়া খতিয়ে দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে একটি নিরপেক্ষ তৃতীয় সংস্থাকে। যাতে ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক মঞ্চে এভাবে ইংল্যান্ড ক্রিকেটকে বিব্রত হতে না হয়।

যাইহোক, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের শুরুর দিনেই ড্রেসিংরুমে রবিনসন নিজের টুইটের জন্য সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। ইংল্যান্ডের জাতীয় ক্রিকেট দলের সহকারী কোচ গ্রাহাম থর্প জানিয়েছেন, নিজের টুইটের জন্য শুধু ইংল্যান্ড দল নয় গোটা বিশ্বের কাছেই ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। পাশাপাশি এত বিতর্ক সত্ত্বেও যেভাবে মাঠের মধ্যে দারুণ পারফরম্যান্স মেলে ধরেছেন রবিনসন, তারও প্রশংসা করেন থর্প। তবে ইংল্যান্ড টিম ম্যানেজমেন্ট তাতেও সন্তুষ্ট নয়। টিনএজার হিসাবে একাধিক বিতর্কিত টুইটের জন্য রবিনসনকে শাস্তি দিতে বদ্ধপরিকর ইসিবি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: England vs new zealand 1st test england pacer ollie robinson likely to be dropped for his racist tweets as a teenager

Next Story
কোহলিরা একে অন্যের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না! ইংল্যান্ডে কড়া নিয়মে বন্দি টিম ইন্ডিয়া
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com