বড় খবর

ধোনির বিশ্বকাপ জয়ের ছক্কা নিয়ে মাতামাতি বন্ধ হোক! সপাটে বিস্ফোরণ গম্ভীরের

কপিল দেবদের লর্ডসের লর্ড হয়ে ওঠা যে প্রজন্ম চাক্ষুস করেনি, তাদের কাছেই মসিহা হয়ে আবির্ভূত হয়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ওয়াংখেড়ের বাইশ গজে কীর্তি স্থাপন করেছিল টিম ইন্ডিয়ার এক সাহসী স্কোয়াড।

২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের স্মরণে এলেই অবধারিত ভাবে অনুষঙ্গ হিসাবে হাজির হয় ধোনির সেই আইকনিক ওভার বাউন্ডারি। লং অন দিয়ে বাউন্ডারি লাইনের ওপারে বল আছড়ে পড়ার সঙ্গেসঙ্গেই রবি শাস্ত্রীর সেই বিখ্যাত কমেন্ট্রি, “এন্ড ধোনি ফিনিশেস অফ ইন স্টাইল।”

সেই দৃশ্য এখনো ক্রিকেটপ্রেমী ভারতীয়দের হৃদপিন্ডে ধুকপুক তোলে। কার্যত মিথ হয়ে যাওয়া সেই ছক্কা অবশ্য কোনো নম্বরই পায়না গৌতম গম্ভীরের কাছে। এক ক্রিকেট ওয়েবসাইটের শিরোনাম ছিল, “দ্য সিক্স দ্যাট ওন দ্য ওয়ার্ল্ড কাপ…”

আরো পড়ুন: ট্র্যাজেডি! বিশ্বকাপজয়ী সেই টিম ইন্ডিয়া আর কখনো একসঙ্গে খেলেনি! জানুন কেন

ভারতের বিশ্বকাপ জয়ের দশম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে গৌতম গম্ভীর টাইমস অফ ইন্ডিয়া-কে দেওয়া সাক্ষাৎকার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “আপনারা কি মনে করেন একজন ব্যক্তিই বিশ্বকাপ জিতিয়েছে? যদি একজনের অবদানেই ভারত বিশ্বকাপ জিতে থাকে, তাহলে ইন্ডিয়া প্রতি ওয়ার্ল্ড কাপ-ই জিতত। দুর্ভাগ্যবশত, ভারতে কেবলমাত্র কয়েকজন ব্যক্তিকে পুজো করা হয়। আমি কখনই এই মতে বিশ্বাস করি না। ক্রিকেটের মত টিমগেমে ব্যক্তিপুজোর কোনো স্থান নেই। সকলেই কেবল অবদান রাখতে পারে।”

সরাসরি না বললেও গম্ভীরের নিশানায় যে মহেন্দ্র সিং ধোনি, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। ধোনির সঙ্গেই গম্ভীর জাহির খান, হরভজন সিং, শচীন তেন্ডুলকর, যুবরাজ সিং-দের অবদান স্মরণ করিয়ে দিতে চান। তাই তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “একটা ছক্কাই যদি বিশ্বকাপ জিতিয়ে দিতে পারে, তাহলে তো যুবরাজ ছয়টা বিশ্বকাপ।জিতিয়েছে।” প্রসঙ্গত, ২০০৭ টি২০ বিশ্বকাপে যুবরাজ সিং ইংল্যান্ডের স্টুয়ার্ট ব্রডকে এক ওভারে ছয় ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন।

আরো পড়ুন: হাসপাতালে ভর্তি হলেন শচীন! বিশ্বকাপ জয়ের দশক পূর্তিতেই ভয়ঙ্কর খারাপ খবর

সেই সঙ্গে গম্ভীরের আরো সংযোজন, “কেউ কি জাহির খানের অবদান ভুলে যেতে পারে? ফাইনালের প্রথম স্পেল- যেখানে ও তিনটে মেডেন ওভার পেয়েছিল। কেউ কি ভুলে যেতে পারে যুবরাজ সিং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে কেমন খেলেছিল? আর শচীন তেন্ডুলকরের দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে শতরান! কেন আমরা খালি একটা ছয় নিয়েই মজে রয়েছি! যদি একটা ছয় একটা বিশ্বকাপ জিতিয়ে দিতে পারে, তাহলে তো যুবরাজ ছয়টা বিশ্বকাপ জিতিয়েছে! কেউ তো যুবরাজ সিংয়ের কথা বলে না! ২০০৭, ২০১১ বিশ্বকাপে ও-ই ম্যান অফ দ্য টুর্নামেন্ট হয়েছিল। আর আমরা কেবল একটা ছক্কা নিয়েই পড়ে রয়েছি।”

গম্ভীর নিজেও বিশ্বকাপের ফাইনালে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন। শেওয়াগ-শচীন দুই ওপেনার আউট হয়ে যাওয়ার পরে গম্ভীর ধোনির সঙ্গে সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ গড়ে দলকে বিপদের হাত থেকে উদ্ধার করেন। শেষপর্যন্ত ৯৭ রানে আউট হয়ে যান তিনি। গম্ভীর বলছেন, যখন ক্রিকেট সমর্থকরা তাঁর কাছে কাছে এসে বলেন, “বিশ্বকাপের জন্য ধন্যবাদ!” সেটাই তাঁর কাছে সবথেকে বড় প্রাপ্তি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Gautam gambhir targets dhoni says a six can never win a world cup

Next Story
ট্র্যাজেডি! বিশ্বকাপজয়ী সেই টিম ইন্ডিয়া আর কখনো একসঙ্গে খেলেনি! জানুন কেন
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com