পৃথ্বী শ-কে শাস্তি দিয়ে প্রচণ্ড বিপাকে বোর্ড! লাল চোখ দেখাল মোদী সরকার

সিইও রাহুল জহুরিকে পাঠানো চিঠিতে ক্রীড়ামন্ত্রকের পক্ষ থেকে সাফ লেখা হয়েছে, ওয়াডা-র নিয়ম অনুযায়ী, ক্রিকেটারদের নমুনা কেবলমাত্র সংগ্রহ করতে তা পরীক্ষা করতে পারবে ওয়াডা অনুমোদিত কোনও অ্যান্টি ডোপিং সংস্থা।

By: Mumbai  Published: August 1, 2019, 1:18:29 PM

পৃথ্বী শ ডোপ টেস্টে ধরা পড়েছেন। তাঁকে সাসপেন্ড করেছে বোর্ড। এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই এবার লেগে গেল বিসিসিআই এবং কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রকের। পৃথ্বী শ-কে নির্বাসিত করার প্রক্রিয়া নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক। তাঁদের সাফ বক্তব্য, বিসিসিআই যেহেতু নিজেই ক্রিকেটারদের ডোপ পরীক্ষা করে শাস্তির নিদান দিয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে স্পষ্টতই স্বার্থ সংঘাত ঘটছে। পাশাপাশি, বিসিসিআইয়ের নিজস্ব ডোপিং সংস্থা যেহেতু বিশ্বের ডোপিং বিরোধী সংস্থা ওয়াডা-র অনুমোদিত নয়, তাই ডোপিংয়ের ক্ষেত্রে বোর্ডের কার্যত অধিকারই নেই ক্রিকেটারদের শাস্তির নিদান দেওয়া।

এই নিয়েই সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত বোর্ডের প্রশাসকমণ্ডলকে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক। সিইও রাহুল জহুরিকে পাঠানো চিঠিতে ক্রীড়ামন্ত্রকের পক্ষ থেকে সাফ লেখা হয়েছে, ওয়াডা-র নিয়ম অনুযায়ী, ক্রিকেটারদের নমুনা কেবলমাত্র সংগ্রহ করতে তা পরীক্ষা করতে পারবে ওয়াডা অনুমোদিত কোনও অ্যান্টি ডোপিং সংস্থা। বিসিসিআই যেহেতু ওয়াডা-র অনুমোদিত ডোপিং বিরোধী সংস্থা নয়, সেক্ষেত্রে বিসিসিআই মোটেই স্বশাসিতভাবে ডোপিং বিরোধী কার্যকলাপ চালাতে পারবে না।

আরও পড়ুন বিরাটকে প্রকাশ্যে খোঁচা রোহিতের! দুই তারকার সম্পর্ক আরও তলানিতে

ঘটনাচক্রে, ওয়াডা তো বটেই দেশের ডোপিং বিরোধী সংস্থা নাডা-রও নিয়মকানুন মেনেন চলতে রাজি নয় বিসিসিআই। দেশের সমস্ত ক্রীড়াসংস্থা নাডা-র নিয়ম অনুসরণ করলেও বোর্ড সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছে কেন্দ্রীয় অ্যান্টি ডোপিং সংস্থাকে। সেক্ষেত্রে বোর্ডের যুক্তিও পরিষ্কার। বিসিসিআই যেহেতু কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ কিংবা আর্থিক আনুকুল্য পায় না সেক্ষেত্রে নাডা-র নিয়মকানুন মেনে চলতে বোর্ডও বাধ্য নয়।

বোর্ড সূত্রে খবর, গত জুলাই মাসেই বোর্ডের সিইও রাহুল জহুরির সঙ্গে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের সিনিয়র পর্যায়ের এক মন্ত্রীর বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই নাকি জহুরি নাডা-র নিয়ম মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তবে এ-ও ঠিক হয়, কোনও বিশেষ চুক্তি করতে বাধ্য থাকবে না বিসিসিআই।

তবে বোর্ডকে পাঠানো কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের পাঠানো চিঠি নাকি পৃথ্বী শ এপিসোডের আগেই। ২৬ তারিখে বোর্ডের সদর দফতরে পৌঁছে গিয়েছিল চিঠি। মুম্বইয়ের তারকা ব্যাটসম্যান পৃথ্বী শ-য়ের নমুনায় নিষিদ্ধ উপাদান পাওয়া গিয়েছিল। সাধারণ কাফির সিরাপে সেই উপাদান থাকে। তারপরেই পৃথ্বীকে নভেম্বর মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত ব্যান করে বিসিসিআই। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চিঠি পাওয়ার পরে পৃথ্বী-র শাস্তিতে বোর্ডের স্ট্যান্স কী হয়, সেটাই আপাতত দেখার।

Read the full article in ENGLISH

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Sports News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Government has come down heavily on the bcci and its anti doping set up just before prithvi shaw dope episode

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
BIG NEWS
X