scorecardresearch

বড় খবর

Ind vs Aus T20I LIVE Cricket Score: কোহলির ব্যাটে সিডনিতে সানডে ব্লকবাস্টার

LIVE Cricket Score, India vs Australia 3rd T20I Live Score updates: সিডনি দেখল সানডে ব্লকবাস্টার। সৌজন্যে ‘ওয়ান অ্যান্ড অনলি’ বিরাট কোহলি। বাইশ গজের কিং বুঝিয়ে দিলেন কেন তিনি চেজমাস্টার।

3rd T20I India vs Australia LIVE Score Updates
3rd T20I India vs Australia LIVE Score Updates: সিডনিতে সিরিজের ফয়সলা ম্যাচে মুখোমুখি ভারত-অস্ট্রেলিয়া
Ind vs Aus 3rd T20I LIVE Cricket Score: সিডনি দেখল সানডে ব্লকবাস্টার। সৌজন্যে ‘ওয়ান অ্যান্ড অনলি’ বিরাট কোহলি। ফের একবার বাইশ গজের কিং বুঝিয়ে দিলেন কেন তিনি চেজমাস্টার। ৪১ বলে অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংস খেলে ভারতকে ছ’উইকেটে জেতালেন তিনি। তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের শেষ ও তৃতীয় ম্যাচ ভারত জিতল ছ’উইকেটে। সিরিজের নিস্পত্তি হল ১-১-এ। 

এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়া ছয় উইকেট হারিয়ে ফিঞ্চরা তুললেন ১৬৪। বল হাতে কামাল দেখালেন ক্রুনাল পাণ্ডিয়া। চার ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩৬ রান দিয়ে চার উইকেট তুললেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার রান তাড়া করতে নেমে ভারত শুরুটা দুরন্ত মেজাজে করেছিল। শিখর ধাওয়ান ও রোহিত শর্মার ব্যাটে ভর করে ওপেনিং পার্টনারশিপে উঠল ৬৭ রান। কিন্তু ধাওয়ান আর রোহিতের উইকেট হারানোর পর ভারত পরপর লোকেশ রাহুল ও ঋষভ পন্থকেও হারায়। ১০৮ রানে চার উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। এখান থেকে ম্যাচ জেতানোর চ্যালেঞ্জটা নেন দীনেশ কার্তিক ও কোহলি। তাঁদের পার্টনারশিপে তাঁরা ৬০ রান যোগ হল স্কোরবোর্ডে। অত্যন্ত চাপের মুখেও কোহলি-কার্তিক জুটি এদিন মাথা ঠান্ডা রেখে ভারতকে জিতিয়ে দিলেন।

আরও পড়ুন: কখন আর কোথায় দেখবেন ভারত-অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় টি-২০ ম্যাচ?

আপাতত বিরাটদের সাময়িক বিশ্রাম। আগামী ৬ ডিসেম্বর অ্যাডিলেড ওভালে প্রথম টেস্টে নামবে ভারত-অস্ট্রেলিয়া। চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শেষ করে ভারত খেলবে তিন ম্যাচের ওয়ান-ডে সিরিজ।

LIVE Score, India vs Australia 3rd T20I LIVE Cricket Score Updates:

4.49pm: কোহলির ব্যাটে সিরিজে সমতা ফেরাল ভারত! তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ শেষ হল ১-১-এ।

4.43pm: ৬ বলে ৫ রান প্রয়োজন ভারতের। 

4.39pm: ১২ বলে ১৬ রান প্রয়োজন ভারতের। 

4.34pm: ১৮ বলে ২৭ রান প্রয়োজন ভারতের। অসাধারণ ফর্মে কোহলি (৩১ বলে ৪৬)। তাঁকে ১২ রানে সঙ্গ দিচ্ছেন কার্তিক। একেবারে টি-২০ ক্রিকেটের আদর্শ চিত্র। কোহলির ব্যাটে স্বপ্ন দেখছে ভারত। সম্ভবত তা সত্যি হওয়ার পথেই।

4.25pm: ব্যাক-টু-ব্যাক উইকেট! লোকেশ রাহুুলের (২০ বলে ১৪) পর ফিরে গেলেন ঋষভ পন্থ (১ বলে ০)। রাহুল তুলে খেলতে গিয়েছিলেন। লং-অফে ম্যাক্সওয়েলের বলে ক্যাচ আউট হয়ে গেলেন তিনি। খানিকটা অবিবেচকের মতোই শট নিলেন রাহুল। এ অবস্থায় একটু ধরে খেললেই পারতেন তিনি। অন্যদিকে পন্থ এসে অ্যান্ড্রু টাইয়ের প্রথম বলে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ দিয়ে দিলেন। ১৪ ওভার শেষে চার উইকেট হারিয়ে ভারতের ঝুলিতে ১০৯ রান। ভারতের জেতার জন্য় ৩৬ বলে এখন প্রয়োজন ৫৬ রান। ক্রিজে দুই সিনিয়র ক্রিকেটার। নিদহাস ট্রফির নায়ক দীনেশ কার্তিক ও ক্যাপ্টেন কোহলি।

4.০8pm: ১০ ওভার শেষ! ভারতের স্কোরবোর্ডে ৯২। ধাওয়ান-রোহিতের উইকেট হারিয়ে ভারত কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছিল। কিন্তু কোহলি আর রাহুল ধীরেধীরে ফের খেলাটা ধরার চেষ্টা করছেন। কোহলি ১৪ রানে ও রাহুল ১০ রানে ক্রিজে রয়েছেন। এই অবস্থায় উইকেট না-হারানোই ভারতের জন্য শ্রেয়। এই দুই ব্যাটসম্যান ধরে খেললে অনায়াসে এই রান তাড়া করে ফেলবেন তাঁরা। ম্যাচের শুরু থেকেই দেখা যাচ্ছে যে, ফ্যানেরা রয়েছেন একেবারে পার্টি মুডে। ড্রাম বিটসের পর এবার একদম নাচ!

3.56pm: ফিরে গেলেন রোহিতও! ধাওয়ানের পর এবার রোহিত ফিরলেন ডাগ-আউটে। ১৬ বলে ২৩ রান করে আউট হয়ে  গেলেন তিনি। অ্যাডাম জাম্পা বোল্ড করে দিলেন হিটম্যানকে। অজিরা ফিরে এল ম্যাচে। ক্রিজে কোহলির সঙ্গে লোকেশ রাহুল। ক্যাপ্টেনের কাঁধে এবার দেশকে জেতানোর দায়িত্ব। রান তাড়া করে জেতানোয় ওস্তাদ বলেই কিং কোহলির অপর নাম চেজমাস্টার। দেখা যাক আজ কোহলি কী করেন!

3.48pm: ধাওয়ান আউট। ২২ বলে ঝোড়ো ৪১ রান করে স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে গেলেন তিনি। ক্রিজে এলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু ধাওয়ান মঞ্চটা গড়ে দিয়ে গেলেন। ভারত ৫. ৩ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ৬৭ তুলল। ভারতকে তাতাতে ফ্যানেরা রয়েছেন একেবারে দুরন্ত মেজাজে। সিডনিতে টিম ইন্ডিয়ার জন্য় ড্রাম বাজাচ্ছেন তাঁরা।

3.44pm: সিডনিতে ঝড়! অনবদ্য ফর্মে রয়েছেন রোহিত-ধাওয়ান জুটি। পাঁচ ওভারে ৬২ রান তুললেন তাঁরা। চার-ছক্কা ছাড়া কথা বলছেন না ভারতের দুই ওপেনার। রোহিত ২২ (১০ বলে)  ও ধাওয়ান ৩৭ (২০ বলে) রানে অপরাজিত রয়েছেন। দু’জনেই দু’টো করে ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ফেলেছেন। ধাওয়ান একাই মারলেন পাঁচটি চার। রোহিতের মেরেছেন একটি। স্টোয়নিস আর কুল্টার-নাইল বুঝতে পারছেন না কোথায় বল করবেন। ফিঞ্চও বুঝতে পারছেন না কিভাবে থামাবেন তাঁদের!

3.31pm: ওপেনিং উইকেট পার্টনারশিপে ভারতের ৪০-৫০ রান উঠলেই শুরুটা ভাল হবে। এমনটাই বললেন দেশের প্রাক্তন কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কর। তিন ওভার শেষে ভারত তুলল ২০ রান। রোহিত আট রানে ও শিখর ১১ রানে ক্রিজে রয়েছেন। দু’জনকে দেখেই মনে হচ্ছে যে, তাঁরা গাভাস্করের কথা রাখবেন।

3.21pm: রোহিত শর্মা আর শিখর ধাওয়ানের ওপর আজ গুরুদায়িত্ব। শুরুটা ভাল হওয়া প্রয়োজন ভারতের। ফলে ওপেনিং জুটির ওপর প্রত্যাশা থাকবেই। ফিঞ্চ প্রথম ওভার তুলে দিলেন মিচেল স্টার্ককে। এক ওভার শেষে ভারতের স্কোর ৩। রোহিত শর্মা ২০১৬ সালে দুরন্ত ফর্মে ছিলেন অজিদের বিরুদ্ধে। সিডনিতেও টিম ইন্ডিয়ার ভরসা তাঁর ওপরেই। স্টার্ককে বল করতে দেখে খুশি প্রাক্তন অজি পেসার জেসন গিলেপসি। টুইট করে সেকথা জানালেন তিনি।

2.57pm: ভারতকে ১৬৫ রানের টার্গেট দিল অস্ট্রেলিয়া।

2.48pm: অনবদ্য বুমরা, একাই একশো! স্টোয়নিস আর ক্রিস লিনের রান নেওয়ার সময় ভুল বোঝাবুঝির পুরো ফায়দা তুললেন তিনি। ডেলিভারি করে এসে ফলো-থ্রু’তে ছুটে এসে বল ধরলেন বুমরা। এরপর নন স্ট্রাইকিং এন্ডে দৌড় শুরু করা ক্রিস লিনের (১০ বলে ১৩) উইকেট লক্ষ্য করে এক থ্রো-তে ছিটকে দিলেন। ১৭ ওভার শেষে হাফ ডজন উইকেট হারাল অস্ট্রেলিয়া। তাদের স্কোরবোর্ডে ১৩৭ রান। ক্রিজে স্টোয়নিসের সঙ্গে ন্যাথান কুল্টার-নাইল।

2.40pm: ফের উইকেট পাণ্ডিয়ার। এবার তাঁর শিকার হলেন অ্যালেক্স ক্যারে (১৯ বলে ২৭)। চার ওভার বল করে ৩৬ রান দিয়ে পাণ্ডিয়ার ঝুলিতে এল চার উইকেট। ১৬ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়া পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১২০ তুলল। প্রথম টি-২০ ম্যাচে এই পাণ্ডিয়াই সমালোচিত হয়েছিলেন খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য। গত বুধবার গাবায় চার ওভার হাত ঘুরিয়ে ৫৫ রান হজম করেছিলেন তিনি। একটি উইকেটও পাননি। অথচ শেষ দু’ম্যাচে সব বদলে দিলেন। এই মুহূর্তে ব্যাট করছেন ক্রিস লিন ও মার্কাস স্টোয়নিস।

2.27pm: আবার পাণ্ডিয়া! আজ তিনি সিডনিতে ফুল ফোটাচ্ছেন। ফেরালেন সেই ম্যাক্সওয়েলকেই (১৬ বলে ১৩)। গত ম্যাচে এই ম্যাক্সওয়েলকেই দুরন্ত বোলিংয়ে বোল্ড করেছিলেন পাণ্ডিয়া। আর আজ পাণ্ডিয়ার শর্ট লেন্থ বলে শর্ট মারতে গিয়ে রোহিত শর্মার হাতে ক্যাচ আউট হয়ে গেলেন তিনি। গাবায় ম্যাক্সওয়েল এক ওভারে তিনটে ছক্কা মেরেছিলেন পাণ্ডিয়াকে। আর ভারতের এই অলরাউন্ডার গত দু’ম্যাচে তাঁকে আউট করে প্রকৃত বদলা নিলেন। ১৩.১ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়া চার উইকেট হারিয়ে ৯০ রান তুলল।

2.12pm: ক্রুনাল পাণ্ডিয়ার কামাল। ব্যাক-টু-ব্যাক উইকেট নিলেন তিনি। দশম ওভারের প্রথম দু’বলে তুলে নিলেন জোড়া উইকেট। ফেরালেন শর্ট (২৯ বলে ৩৩) আর বেন ম্যাকডারমটকে (১ বলে ০)। দু’জনেই এলবিউব্লিউ হয়ে ফিরলেন ডাগ-আউটে। ম্যাচের রাশ ভারতের হাতে। তিন উইকেট হারিয়ে অজিরা এখন রীতিমতো চাপে। আগের ম্যাচেও ভাল বল করেছিলেন পাণ্ডিয়া। অস্ট্রেলিয়ার স্কোরবোর্ডে ৭৩ রান। ক্রিজে ম্যাক্সওয়েল আর অ্যালেক্স ক্যারে।

2.01pm: অবশেষে উইকেট! স্বস্তির হাওয়া ভারতীয় দলে। কুলদীপ যাদবের হাতে ভাঙল ফিঞ্চ আর শর্টের ওপেনিং জুটি। সুইপ করতে গিয়ে ফিঞ্চ শর্ট ফাইনেল ক্রুনাল পাণ্ডিয়ার হাতে ক্যাচ আউট হয়ে গেলেন অজি অধিনায়ক ফিঞ্চ (২৩ বলে ২৮)। ক্রিজে এলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

1.55pm: ছ’ওভার শেষ। ওপেনিং পার্টনারশিপে ৫০ পেরিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চ আর শর্ট ঠিকই করে নিয়েছেন যে, উইকেট দেবেন না তাঁরা। কোহলি রীতিমতো দিশাহীন। অবিলম্বে এই পার্টনারশিপ ভাঙতে না-পারলে ভারত বিপদ ডেকে আনবে। ছ’ওভার শেষে অজিদের স্কোর ৫২। এখন ক্রুনাল পাণ্ডিয়ার থেকেই উইকেট চাইবে ভারত। অস্ট্রেলিয়া ৮.৩ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ৬৮।

1.41pm: চতুর্থ ওভারে যসপ্রীত বুমরাকে আনলেন কোহলি। কিন্তু প্রথম বলেই চার হজম করলেন তিনি। পয়েন্টের ওপর দিয়ে কাট করে বাউন্ডারি হাঁকালেন শর্ট। বুমরাকে শেষ দু’ম্যাচ দেখে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ফলে টিম ইন্ডিয়ার স্টার পেসারের শক্তি ও দুর্বলতা সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল হয়ে গিয়েছেন ফিঞ্চরা। চার ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়া করে ফেলল ২৮। বুমরার ওভারে এল সাত রান। এই পিচ রীতিমতো ব্যাটসম্যান সহায়ক। বলের পেসের সাহায্য় নিয়েই ব্যাটসম্যানরা রান করে ফেলছেন। প্রথম উইকেটের অপেক্ষায় ভারত।

1.31pm: ফ্যানেদের উচ্ছ্বাস কিন্তু চোখে পড়ার মতো। প্রিয় দলের হয়ে গলা ফাটাতে সিডনির স্ট্যান্ড ভরিয়ে দিয়েছেন সর্থকরা। ফ্যানেদের অনুভূতির ছবিই টুইট করল বিসিসিআই। অন্যদিকে দু’ওভার খেলা হয়ে গেল। অস্ট্রেলিয়া শুরুটা ভালই করেছে। ছন্দে আছেন ফিঞ্চ ও শর্ট। দু’ওভার শেষে খেলার স্কোর ১৬/০। ফিঞ্চ সাত রানে ও শর্ট ছ’রানে ব্যাট করছেন। ভুবি আর খালিল আহমেদ সামলাচ্ছেন বোলিং।

1.21pm: মাঠে নেমে পড়ল কোহলি অ্যান্ড কোং। ব্যাট হাতে সেই চেনা জুটি অ্যারন ফিঞ্চ আর ডার্সি শর্ট। বল শুরু করলেন ভুবনেশ্বর কুমার। ছুটির দিনে ক্রিকেটের মজা নিতে আজ সিডনিতে মিশেছে অস্ট্রেলিয়া। একেবারে হাউসফুল মাঠ। দুর্দান্ত একটা ম্যাচের অপেক্ষায় সিডনি। প্রথমে ব্যাট করে বড় রানের লক্ষ্যই মাথায় রাখবে ফিঞ্চ অ্যান্ড কোং। ভারত চাইবে দ্রুত উইকেট।

1.০3pm: আজ চোখ থাকবে মিচেল স্টার্কের দিকে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পায়ে চোট পাওয়ার পর দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে শেষবার দেশের জার্সিতে টি-২০ ম্যাচ খেলেছিলেন এই স্টার পেসার। ২০১৪-তে এই সিডনিতেই শেষবার ঘরের মাটিতে টি-২০ খেলেছিলেন তিনি। অ্যাশেজ এবং বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখেই স্টার্ক নিজেকে তৈরি করছিলেন। এই সিরিজের শুরুতে তাঁর নাম দলে ভাবা হয়নি। কিন্তু সিডনিতে টি-২০ খেলিয়ে স্টার্ক কত’টা প্রস্তুত সেটাই দেখে নিতে চাইছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। স্টার্ককে পাওয়া মানে অজি দল বাড়তি শক্তি পেয়ে গেল। একথা বলাই যায়।

Mitchell Starc
মিচেল স্টার্ক (ছবি টুইটার)

12.54pm: টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। জানালেন এরকম উইকেটে স্কোরবোর্ডে রান তুলতেই পছন্দ করবেন তাঁরা। অজি দলে একটাই পরিবর্তন। জেসন বেহরনডর্ফের পরিবর্তে খেলবেন মিচেল স্টার্ক। অন্যদিকে কোহিল বললেন, প্রথমে বল করতে পেরে তিনি খুশি হয়েছিল। ভারতীয় দল অপরিবর্তি। এখন শুধু বল গড়ানোর অপেক্ষা।

12.4০pm: সিডনিতে ঝকঝকে আকাশ। মাঠে নেমে পড়েছে টিম ইন্ডিয়া। কোহলি অ্যান্ড কোং পুরোপুরি চার্জড-আপ। শেষ দু’টি টি-২০ ম্যাচে বৃষ্টির জন্য়ই খেলার রঙ বদলে গিয়েছিল। আজ বৃষ্টিহীন ফাইনাল ম্য়াচের অপেক্ষা আপামোর ক্রিকেটপ্রেমীরা। রৌদ্রজ্জ্বল আকাশে ভাসছে আনন্দের গন্ধ।

12.30pm: সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নিয়ে দু’এক কথা; ২০১৬ সালে শেষবার ইন্দো-অজি মহারণ দেখেছিল সিডনি। সেবার ১৯৮ রান তাড়া করে শেষ বলে জয় পেয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। ২০১৪-তে এই সিডনিতেই মিচেল স্টার্ক শেষবার দেশের জার্সিতে ঘরের মাঠে টি-২০ খেলেছিলেন। কয়েক সপ্তাহ আগে শেফিল্ড শিল্ডের খেলা চলছিল সিডনিতে। দেখা গিয়েছে সম্প্রতি সিডনির পিচের চরিত্র হারিয়েছে। অতীতের মতো আর সেরকম গতি দেখা যায় না। সিডনিতে ৪৮ হাজার একসঙ্গে বসে খেলা দেখতে পারেন। এখনও পর্যন্ত এখানে পাঁচটি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ হয়েছে। প্রথম ব্যাট করা দল দু’বার জয় পেয়েছে। তিনবার জয় এসেছে প্রথমে বল করে। এখানে প্রথম ইনিংসের গড় রান ১৬৪। দ্বিতীয় ইনিংসে গড় রান ১৪৬। এই মাঠে সর্বোচ্চ রান উঠেছে ২২১/৫ (অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড)। সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার নজির ২০০/৩ (ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া)। সর্বনিম্ন স্কোরে বিপক্ষকে বেঁধে রাখা সম্ভব হয়েছিল ১৫০/৭-এ। নিউজিল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়ার খেলা হয়েছিল সেবার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: India vs australia 3rd t20i live score updates