পেনাল্টি পেতে ধর্ষণ করতে হবে ফুটবলারদের! বিস্ফোরক মন্তব্যে আইএসএলে ধুন্ধুমার

ম্যাচের পরেই সাংবাদিক সম্মেলনে বিতর্কিত ধর্ষণ মন্তব্য করে বসেছিলেন ওড়িশা এফসি কোচ স্টুয়ার্ট ব্যাক্সটার। তারপরেই কোচের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইল ক্লাব।

জামশেদপুরের বিরুদ্ধে হারের পরেই গরগর করছিলেন। ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে এসেই বিতর্কের দাবানল জ্বালিয়ে দিয়েছিলেন ওড়িশা এফসি কোচ স্টুয়ার্ট ব্যাক্সটার। সরাসরি বলে দিয়েছিলেন, পেনাল্টি আদায় করতে এবার হয়ত কাউকে ধর্ষন করতে হবে!

এরপরেই ব্যাক্সটারের অভূতপূর্ব মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিল ওড়িশা এফসি ক্লাব। রাতেই ফ্র্যাঞ্চাইজির অফিসিয়াল টুইটারে পোস্ট করে লেখা হয়, “ম্যাচ পরবর্তী সাংবাদিক সম্মেলনে দলের হেড কোচ স্টুয়ার্ট ব্যাক্সটারের এমন মন্তব্য অবাক করে দিয়েছে ক্লাবকে। যে প্রসঙ্গেই তা বলা হোক না কেন, তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। কোচের এই মন্তব্য ক্লাবের মূল্যবোধের পরিপন্থী।”

আরো পড়ুন: সুস্থ হয়েই মোদিকে ধন্যবাদ সৌরভের, উপচে পড়ল প্রশংসা

দ্বিতীয় আর একটি টুইটে পৃথকভাবে লেখা হয়, “ওড়িশা এফসি গোটা ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছে। অভ্যন্তরীনভাবে এই বিষয়টি ক্লাবের ম্যানেজমেন্ট সামলে নেবে।”

ঘটনার সূত্রপাত জামশেদপুর বনাম ওড়িশা এফসি ম্যাচের শেষের দিকে। টিপি রেহনেশ ফাউল করেছিলেন ওড়িশা এফসির দিয়েগো মৌরিসিওকে। তবে রেফারি পেনাল্টির আবেদন খারিজ করে দেন। তারপরেই সাংবাদিক সম্মেলনে রাগে ফেটে পড়েন কোচ স্টুয়ার্ট ব্যাক্সটার। “জানি না আর কী করলে পেনাল্টি পাওয়া যাবে! আমার মনে হয় আমাদের কোনো ফুটবলারকে হয় ধর্ষণ করতে হবে নাহয় ধর্ষিত হতে হবে পেনাল্টি আদায় করার জন্য।”

যাইহোক, ওড়িশার বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে জামশেদপুর টানা পাঁচ ম্যাচ জিততে পারেনি। তবে ওড়িশার বিরুদ্ধে একমাত্র গোল করে যান মহম্মদ মোবাশির। এতে প্লে অফের সম্ভবনা বাঁচিয়ে রাখল জামশেদপুর।

Read the full article in ENGLISH

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Isl 2020 21 odisha fc seeks apology for coach stuart baxters distasteful comment after loss

Next Story
‘আমি  প্রত্যেক বলে চার মারার কথাই ভাবছিলাম শুধু’
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com