মেসির পায়ে হাফ ডজন সোনার বুট, টানা তিনবার ইউরোপ সেরার শিরোপা

গত সেপ্টেম্বরে ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার হওয়ার পর এবার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শ্য়ু জুতলেন লিওনেল মেসি।  ইউরোপিয়ান লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার সুবাদে কেরিয়ায়ের ষষ্ঠবার সোনার বুট জিতলেন লিও।

By: Barcelona  Published: October 17, 2019, 4:16:41 PM

গত সেপ্টেম্বরে ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার হওয়ার পর এবার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শ্য়ু জুতলেন লিওনেল মেসি।  ইউরোপিয়ান লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার সুবাদে কেরিয়ায়ের ষষ্ঠবার সোনার বুট জিতলেন লিও। এই নিয়ে টানা তিন বছর এই পুরস্কার পেলেন বার্সেলোনার অধিনায়ক।

২০১৮-১৯ মরসুমে এলএমটেন ৩৪ ম্য়াচে ৩৬টি গোল করেছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কিলিয়ান এমবাপে (প্য়ারিস সাঁ-জাঁ)র থেকে তিনটি বেশি গোল করায় ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শ্য়ু জেতেন তিনি। বলাই বাহুল্য আর কোনও ফুটবলারের কেরিয়ারে এতগুলো সোনার বুট নেই।

গত মরসুমে মেসি স্প্য়ানিশ লিগ কাপে তিনটি (কোপা দেল রে) ও  চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১২টি গোল করেছেন। গত মরসুমে ৫০ ম্য়াচে ৫১টি গোল করে তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন আর্জেন্তাইন রাজপুত্র।

আরও পড়ুন: ফিফা বলল লিওনেল মেসিই ‘বেস্ট’

সোনার বুট নিতে মেসিকে সঙ্গ দিলেন তাঁর স্ত্রী অ্যান্তোনেলা রোকোজু ও দুই ছেলে থিয়াগো এবং ম্য়াটিও। অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন তাঁর দুই বার্সার সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ ও জর্ডি আলবা। মেসি পুরস্কার নিয়ে জানালেন, “আমার পরিবার ও সর্তীর্থদের এই পুরস্কার উৎসর্গ করছি। লুইস আর জর্ডি এখানে রয়েছে। ওরা না থাকলে এই পুরস্কার আমার পাওয়া হতো না। আমার দল না-থাকলে পাশে একটা পুরস্কারও পেতাম না।”

১৯৬৭ সাল থেকে এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। প্রথমবার এই পুরস্কার পান পর্তুগিজ কিংবদন্তি ইউসেবিও। মেসি সর্বাধিক ছ’বার (২০১০, ২০১২, ২০১৩, ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯) এই পুরস্কার পেলেন। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (২০০৮, ২০১১, ২০১৪ ও ২০১৫) পেয়েছেন চারবার। সুয়ারেজ জিতেছেন দু’বার।

 

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Sports News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Lionel messi has was given his 6th golden boot151239

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement