scorecardresearch

সব রকমের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কাইফ

সব রকমের ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করলেন মহম্মদ কাইফ। এক যুগ আগে দেশের জার্সিতে শেষবার মাঠে নেমেছিলেন তিনি। তারপর থেকে ঘরোয়া ক্রিকেটেই তাঁকে পাওয়া গিয়েছে।

সব রকমের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কাইফ
সব রকমের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কাইফ

সব রকমের ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করলেন মহম্মদ কাইফ। এক যুগ আগে দেশের জার্সিতে শেষবার মাঠে নেমেছিলেন তিনি। তারপর থেকে ঘরোয়া ক্রিকেটেই তাঁকে পাওয়া গিয়েছে।

১৩টি টেস্ট (২৭৫৩ রান) ও ১২৫টি ওয়ান ডে খেলেছেন কাইফ। ঘটনাচক্রে ২০০২-এর ১৩ জুলাই কাইফের অপরাজিত ৮৭ রানে ভর করেই লর্ডসে ঐতিহাসিক ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জিতেছিল ভারত। ঠিক ১৬ বছর পর এই দিনটাই তিনি বেছে নিলেন ক্রিকেটকে গুডবাই বলার জন্য।

আরও পড়ুন: The Lord’s balcony moment: ১৬ বছর আগে এই দিনে লর্ডসে জার্সি খুলে ঘুরিয়েছিলেন সৌরভ

কাইফ ভারতীয় বোর্ডে মেইল মারফত নিজের অবসরের কথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি টুইটারেও সেকথা ঘোষণা করেছেন। কাইফ লিখলেন,“ আজ আমি অবসর নিচ্ছি। ১৬ বছর আগে ঐতিহাসিক ন্যাটওয়েস্ট সিরিজ জয়ী ভারতীয় দলের সদস্য ছিলাম আমি। দেশের হয়ে ১৩টি টেস্ট ও ১২৫টি ওয়ান ডে খেলা আমার কাছে গৌরবের। ভারতীয় দলের কাছে আমি কৃতজ্ঞ, সেই সুযোগ দেওয়ার জন্য়।’’

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় দলের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছিলেন কাইফ। ৩০ গজের মধ্যে তাঁর বিদ্যুতের মতো রিফ্লেক্স ছিল দেখার মতো। কভারে ফিল্ডিং করতেন তিনি। যুবরাজ সিং থাকতেন পয়েন্টে। এই দুইয়ের যুগলবন্দি ভারতীয় দলের ফিল্ডিংয়ের সংজ্ঞা বদলে দিয়েছিল। ফিল্ডিংয়ের একটা স্তম্ভ হয়ে উঠেছিলেন কাইফ। সেসময়ের অন্যতম ফিট ক্রিকেটারও ছিলেন তিনি। কাইফের মাত্র দু’টি ওয়ান ডে সেঞ্চুরি রয়েছে কেরিয়ারে। কিন্তু ছয় বা সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে একাই ম্যাচের রঙ বদলে দিতেন।

রঞ্জিতে উত্তরপ্রদেশের হয়ে দীর্ঘদিন অধিনায়কত্ব করেছেন তিনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭৫৮১ রান রয়েছে কাইফের। ১৫টি সেঞ্চুরি করেছেন ১২৯টি ম্যাচে। এই মুহূর্তে ক্রিকেট ধারাভাষ্য়কার হিসেবেই পাওয়া যায় তাঁকে। হিন্দিতে ক্রিকেট ধারাভাষ্যে নিজের একটা জায়গা করে নিয়েছেন।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mohammad kaif announces retirement from competitive cricket