scorecardresearch

বড় খবর

জয় শাহের বোমার পরেই পাল্টা তুবড়ি পাকিস্তানের! ভারতের বিশ্বকাপ বানচাল করার হুমকি PCB-র

জয় শাহের বক্তব্যে তোলপাড় ক্রিকেট বিশ্ব, পাল্টা বোমা পাকিস্তানেরও

জয় শাহের বোমার পরেই পাল্টা তুবড়ি পাকিস্তানের! ভারতের বিশ্বকাপ বানচাল করার হুমকি PCB-র

একদিন আগেই জয় শাহ কার্যত বোমা ফাটিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন, আগামী বছর এশিয়া কাপ খেলতে ভারত পাকিস্তানে যাবে না। সেই মন্তব্যের পরেই এবার কোমড় বেঁধে নামল পাকিস্তান। সরাসরি ভারতে অনুষ্ঠিত হতে চলা ২০২৩ বিশ্বকাপ বয়কট করার হুমকি দিয়ে রাখল পাকিস্তান। বলে দেওয়া হল, ভারত যদি এশিয়া কাপ না খেলতে পাকিস্তানে যায়, তাহলে ২০২৩ ওয়ার্ল্ড কাপে না-ও অংশ নিতে পারে পাকিস্তান।

জয় শাহ বোর্ডের সচিব হিসেবে দ্বিতীয় টার্মে দায়িত্ব নিয়েছেন। সেইসঙ্গে তিনি এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট। বোর্ডের মঙ্গলবারের এজিএম-এর পর দ্বিতীয়বার দায়িত্ব নিয়েই তিনি বলে দেন, “পাকিস্তানের জন্য আমাদের রাষ্ট্রীয় নীতি রয়েছে। ওখানে খেলতে গেলেও কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমোদন প্রয়োজন। এশিয়া কাপ আগামী বছর পাকিস্তানে আয়োজিত হওয়ার কথা। তবে এটা নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আয়োজন করা হবে।”

আরও পড়ুন: পাকিস্তান যাচ্ছে না ভারত! বোর্ডের মহা-বৈঠক সেরেই হুঙ্কার সচিব জয় শাহের

আর নিরপেক্ষ ভেন্যুতে এশিয়া কাপ খেলার ঘোষণা করতেই ফুঁসে উঠল পাকিস্তান। সংবাদসংস্থাকে পিসিবি-র এক কর্তা জানিয়েছেন, “পিসিবি কড়া সিদ্ধান্ত নিতে তৈরি হচ্ছে। পাকিস্তান না খেললে আইসিসি এবং এআইসিসি ইভেন্টে বাণিজ্যিক লাভ-ক্ষতির হিসেব জড়িয়ে যাবে।”

সেইসঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এক সূত্র সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন, “এই মুহূর্তে আমাদের বলার মত কিছু নেই। তবে মেলবোর্নে পরের মাসে উপযুক্ত ফোরামে এই বিষয়টি উত্থাপন করা হবে। জয় শাহের বিবৃতিতে পিসিবি ভীষণ বিস্মিত। কারণ এশিয়া কাপ আয়োজনের এখনও এক মাস বাকি রয়েছে।”

“পিসিবি আরও বিস্মিত কারণ কোন ক্ষমতায় উনি ঘোষণা করলেন যে পাকিস্তানের বদলে এশিয়া কাপ আমিরশাহিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। কারণ এসিসি-র একজিকিউটিভ বোর্ড মেম্বাররা কোনও দেশকে আয়োজনের স্বত্ত্ব দেয়, প্রেসিডেন্ট নন।”

সংবাদসংস্থা সূত্রের খবর, পিসিবি চেয়ারম্যান রামিজ রাজা কড়া চিঠি পাঠাতে চলেছেন এসিসিকে। মেলবোর্নে জরুরিকালীন তৎপরতায় বোর্ড মিটিং চাইছেন রাজা। কড়া বার্তা দিয়ে পাক বোর্ডের এক সূত্র জানাচ্ছেন, “এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল থেকেও বেরিয়ে যেতে পারে পাক বোর্ড। কারণ, এই অঞ্চলের ক্রিকেটের সম্প্রসারণ, উন্নতি এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে একাত্মবোধ তৈরির জন্যই এসিসি। এখন এসিসির প্রেসিডেন্ট যদি এমন বিবৃতি দেন, তাহলে এই সংস্থায় পাকিস্তানের থাকা অর্থহীন।”

আরও পড়ুন: প্রশাসনে একদমই অনভিজ্ঞ, জয় শাহকে তুমুল আক্রমণ শাহিদ আফ্রিদির

রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে শেষবার ভারতীয় দল পাকিস্তান সফরে গিয়েছিল, ২০০৫-এ। যিনি বর্তমানে জাতীয় দলের হেড কোচ। ২০০৮-এ পাকিস্তানে আয়োজিত এশিয়া কাপে যায়নি ভারত। চলতি বছরে দেশের টালমাটাল অবস্থার কারণে শ্রীলঙ্কা আয়োজক দেশ হিসেবে নিজেদের দেশের মাটিতে এশিয়া কাপ আয়োজন করতে পারেনি। তারপরে টুর্নামেন্ট সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় আমিরশাহিতে।

গত মাসে এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তান দুই দলই দু-বার মুখোমুখি হয়েছিল। টি২০ ওয়ার্ল্ড কাপে ভারত-পাকিস্তান লড়াই অক্টোবরের ২৩ তারিখে। মেলবোর্ন দুই দলের ধুন্ধুমার যুদ্ধের সাক্ষী থাকবে। মেলবোর্নে দুই দেশের লড়াই দেখতে মাঠে হাজির থাকবেন ৯০ হাজারের বেশি দর্শক। এমনটাই অনুমান।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Pcb threatens to pull out of icc cricket world cup 2023 after jay shahs pakistan remark