তারুণ্য বনাম অভিজ্ঞতা: এবারের আইপিএলে কার জয়গান?

অনেকের কাছেই টি-২০ তে অভিজ্ঞতা শব্দটা বেমানান। চূড়ান্ত ফিটনেস এবং পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে দ্রুত মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতাকেই টি-২০ ফর্ম্যাটের মাপকাঠি হিসেবে ধরা হয়।

By: Kolkata  Updated: May 28, 2018, 04:56:05 PM

এবারের মত আইপিএল শেষ। দু’বছরের নির্বাসন কাটিয়ে আইপিএলে ফিরেই ফের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস। বলা যেতে পারে একেবারে রূপকথার প্রত্যাবর্তনেই মহেন্দ্র সিং ধোনিদের ঝুলিতে এসেছে তৃতীয় আইপিএল ট্রফি। কিন্তু এবারের সফরের গতিপথ বড় মসৃণ ছিল না।

গত ২৮ জানুয়ারি রাত পৌনে আটটার সময় সিএসকে ট্যুইট করে এবারের দল ঘোষণা করে। সেই টিম লিস্ট দেখামাত্রই নেটিজেনরা ট্রোল আর মিমের জন্য রসদ পেয়ে যান। শুরু হয় সিএসকে-র ক্রিকেটারদের বয়স নিয়ে রঙ্গ তামাশা। কারণ? এই দলে অনেকেরই বয়স তিরিশোর্ধ্ব। ক্রিকেটের কনিষ্ঠতম সংস্করণকে সাধারণত তারুণ্যের প্রতীক হিসেবেই ধরা হয়।

অনেকের কাছেই টি-২০ তে অভিজ্ঞতা শব্দটা বেমানান। চূড়ান্ত ফিটনেস এবং পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে দ্রুত মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতাকেই টি-২০ ফর্ম্যাটের মাপকাঠি হিসেবে ধরা হয়। সেক্ষেত্রে তরুণ তুর্কীরাই অভিজ্ঞদের থেকে অনেকাংশে এগিয়ে থাকে। এমনটাই বলা হয়। কিন্তু এবারের আইপিএল আবারও প্রমাণ করে দিল এই ধারণা কতটা ভ্রান্ত। বুড়ো ঘোড়া বলে যাদের চিহ্ণিত করা হয়েছিল তারাই বুঝিয়ে দিল, বয়স ব্যাপারটা একটা সংখ্যা মাত্র।

আরও পড়ুন, ক্রিকেটটাই কি ফিক্সড! ক্রিকেটারদের হাতের পুতুল বানাতে টি-২০ টুর্নামেন্ট

শেন ওয়াটসনের কথাই ধরা যাক। দু’বছর হলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডার। এখন তাঁর বয়স ৩৬। শুধু ফাইনালের বিধ্বংসী সেঞ্চুরি দিয়ে দলকে জেতানোই নয়, গোটা টুর্নামেন্টেই তিনি ভাল খেলেছেন। দুটি সেঞ্চুরি করেছেন আইপিএল ইলেভেনে, এবং ১৫ টি ম্যাচে ৫৫৫ রান, যা তাঁকে পৌঁছে দিয়েছে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় পাঁচ নম্বরে। তারপর ধরুন সিএসকের-ই আম্বাতি রায়ডু। তিনিও কিন্তু তরুণ ক্রিকেটার নন। অন্ধ্রপ্রদেশের এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান গোটা আইপিএল জুড়েই তাণ্ডব চালিয়েছেন। তাঁর খেলায় মুগ্ধ হয়েছেন জাতীয় দলের নির্বাচকরাও। দু’বছর পর ফের তিনি ভারতীয় দলে ডাক পেয়েছেন। রায়ডু আইপিএল শেষ করেছেন চার নম্বরে। ১৬ টি ম্যাচে ৬০২ রান করেছেন তিনি, যার মধ্যে রয়েছে একটি শতরানও।

ওয়াটসন-রায়ডুর টিমের ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিং ধোনির বয়সও ৩৬। এই আইপিএল-এ যেন তিনি স্বমহিমায় ফিরে এলেন। সেই মারমুখী মেজাজ আর অনবদ্য ম্যাচ ফিনিশার। ১৬ টি ম্যাচে ৪৫৫ রান করেছেন তিনি। বলতে হবে সুরেশ রায়নার কথাও। উত্তর প্রদেশের এই বাঁ-হাতি মারকুটে ব্যাটসম্যান এখন বছর একত্রিশের। এই আইপিএলেও নিজের ছাপ রেখেছেন তিনি। ১৫ টি ম্যাচে ৪৪৫ করেছেন ধোনির টিমের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য।

আরও পড়ুন, IPL 2018 Winner: ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে তৃতীয় আইপিএল ট্রফি চেন্নাইয়ের

চেন্নাই থেকে বেরিয়ে কলকাতার দিকে তাকালে প্রথমেই চোখে পড়বে সুনীল নারিনের দিকে। বছর তিরিশের এই ক্যারিবিয়ান। এবার ১৬ টি ম্যাচ খেলে ৩৫৭ রান করে ১৭ টি উইকেট নিয়েছেন তিন, তাঁর বোলিং গড়ও এই সিজনে সর্বনিম্ন।

উল্লেখ্য, উপরের আলোচিত একজন ক্রিকেটারও কিন্তু ইয়ং ব্রিগেডের মধ্য়ে পড়েন না। তাহলে বোধহয় এবার এটা বলার সময় এসেছে, যে আইপিএল বা টি-২০ ফর্ম্যাটটা আর নিছকই তাজা রক্ত বা তরুণদের আধিপত্যের জায়গা নয়, এখানে অভিজ্ঞতাও কথা বলে।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Sports News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Shane watson proves age is no bar in ipl

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
করোনা আপডেট
X