বড় খবর

কোহলি-রোহিত নেই, শ্রীলঙ্কায় জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন কে! জোর চর্চা দুই ক্রিকেটারকে ঘিরে

গত ইংল্যান্ড সিরিজেও টেস্ট স্কোয়াডে হার্দিক পান্ডিয়াকে রাখা হয়েছিল। তবে হার্দিককে এবার ইংল্যান্ড সফরে রাখা হয়নি।

একই সঙ্গে দুটো দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলবে। কোহলি-রোহিত শর্মার মত প্রথম শ্রেণির তারকারা যখন ইংল্যান্ডে টেস্ট সিরিজ খেলতে ব্যস্ত থাকবেন, তখন সীমিত ওভারের দল আবার শ্রীলঙ্কায় ওডিআই এবং টি২০ সিরিজ খেলবে। কিন্তু বিরাট কোহলি- রোহিত শর্মার অনুপস্থিতিতে শ্রীলঙ্কায় জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন কে হবেন, তা নিয়ে এখন থেকেই আলোচনা তুঙ্গে।

শ্রীলঙ্কায় ভারত তিনটে করে ওডিআই এবং টি২০ ম্যাচ খেলবে। জানা গিয়েছে, নির্দিষ্ট সময়ে শ্রেয়স আইয়ার ফিট না হয়ে উঠলে দ্বীপরাষ্ট্রে নেতৃত্বের দাবিদার শিখর ধাওয়ান এবং হার্দিক পান্ডিয়া। বোর্ডের এক শীর্ষস্থানীয় কর্তা জানিয়েছেন, “শ্রীলঙ্কা সফরের আগেই শ্রেয়স আইয়ার পুরোপুরি ম্যাচ ফিট হতে পারবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। সাধারণত বড় মাপের অস্ত্রোপচারের পরে পর্যাপ্ত রেস্ট নিতে হয়। তারপর রিহ্যাব করে ম্যাচ ফিট হতে সময় লাগে কমপক্ষে চার মাস। শ্রেয়স যদি থাকত, তাহলে অটোমেটিকভাবে ও-ই নেতৃত্ব পেত।”

আরো পড়ুন: ভারতীয় ক্রিকেটারদের জন্যই IPL-এ করোনা সংক্রমণ! দেশে ফিরেই বিস্ফোরক মুম্বইয়ের বিদেশি কোচ

আর শ্রেয়সের অনুপস্থিতিতেই উঠে এসেছে হার্দিক পান্ডিয়া এবং ধাওয়ানের নাম। ৩৫ বছরের ধাওয়ান অসমাপ্ত আইপিএলে দুরন্ত ছন্দে ছিলেন। সীমিত ওভারের ফরম্যাটে অভিজ্ঞতাও বিশাল। অন্যদিকে, হার্দিক পান্ডিয়া আবার জাতীয় দলের অন্যতম ম্যাচ উইনার।

“শ্রীলঙ্কায় যাঁরা খেলতে যাচ্ছে, তাঁদের মধ্যে সবথেকে সিনিয়র ধাওয়ান। তাছাড়া গত আইপিএলের সঙ্গে এই আইপিএলেও দুরন্ত ছন্দে ছিল ও। নেতৃত্বের অন্যতম দাবিদার ধাওয়ান। গত আট বছর ধরেই জাতীয় দলের হয়ে ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করে চলেছে ও।”

এমনটা জানিয়ে বোর্ডের সেই শীর্ষকর্তা জানিয়েছেন, “হার্দিক হয়ত মুম্বই অথবা জাতীয় দলের হয়ে সেভাবে বোলিং করছে না। তবে ও বরাবরই দলের এক্স ফ্যাক্টর। ওঁকে নিয়েও অপশন তৈরি রয়েছে। সমসাময়িকদের থেকে ও ইমপ্যাক্ট ক্রিকেটার হিসেবে হাজার মাইল এগিয়ে। কে জানে হয়ত নেতৃত্বের অতিরিক্ত দায়িত্ব ওঁর কাছ থেকে সেরাটা বের করে আনবে।”

গত ইংল্যান্ড সিরিজেও টেস্ট স্কোয়াডে হার্দিক পান্ডিয়াকে রাখা হয়েছিল। তবে হার্দিককে এবার ইংল্যান্ড সফরে রাখা হয়নি। “ওঁর পিঠে অস্ত্রোপচারের পর স্ট্রেস কমানোর জন্য ওঁকে হয়ত আগের মত বোলিংয়ে দেখতে পাওয়া যাবে না। চোট লাগার আগে ও ছিল ফাস্ট মিডিয়াম পেস বোলার যে ১৩৫ প্লাস গতিতে বল করতে পারত। সেটাই হয়ত ওঁর চোট বাড়িয়ে দিয়েছে। আপাতত ও ম্যাচ ফিনিশার হিসাবে নিজের স্কিল ঝালাই করে নিচ্ছে।” জানাচ্ছেন সেই বোর্ড কর্তা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Shikhar dhawan and hardik pandya are strong contender for limited over indian team captaincy

Next Story
আবারও পজিটিভ হাসি! করোনা আক্রান্ত অস্ট্রেলীয়কে নিয়ে দুর্দশার অন্ত নেই সিএসকের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com