scorecardresearch

বড় খবর

এক মাসে ৩ কোটির বেশি কনটেন্ট সরাল Facebook

প্রায় ৩০ লক্ষেরও বেশি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে WhatsApp।

এক মাসে ৩ কোটির বেশি কনটেন্ট সরাল Facebook
নাম পরিবর্তন হতে চলেছে ফেসবুকের! বড় খবরে জোর জল্পনা টেক দুনিয়ায়

Facebook, মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে তাঁরা তাদের প্ল্যাটফর্মে ৩৩.৩ মিলিয়ন কন্টেন্ট অপসারণের জন্য সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। কারন এই কনটেন্টগুলি ফেসবুকের ১০টি প্রাইভেসির মধ্যে যেকোনও একটি লঙ্ঘন করেছে। যখন Facebook এই পদক্ষেপ গ্রহন করেছে তখন Instagram-ও তার ৮টি নীতিগুলির যে কোনও একটি লঙ্ঘনকারী ২.৮ মিলিয়ন কন্টেন্টের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

Facebook-এর তরফে এক মুখপাত্র এদিন এক সংবাদিক সম্মেলনে বলেন, “বছরের পর বছর ধরে, আমরা আমাদের ইউজারদের অনলাইনে নিরাপদ এবং সুরক্ষিত রাখার সঙ্গে আমাদের এজেন্ডাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রযুক্তি, এবং সম্বন্ধীয় প্রক্রিয়াগুলিতে ধারাবাহিকভাবে বিনিয়োগ করেছি এবং তাঁদের আমাদের প্ল্যাটফর্মে স্বাধীনভাবে মতামত প্রকাশ এবং এই প্ল্যাটফর্ম অ্যাক্সেসের সুবিধা দিয়ে এসেছি। আমরা আমাদের প্রাইভেসি পলিসি লঙ্ঘনকারী কনটেন্ট গুলিকে শনাক্ত করতে এবং সেগুলিকে পর্যালোচনা করে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সক্ষম হয়েছি”।

Facebook তার দ্বিতীয় মাসিক প্রতিবেদন অনুসারে জানিয়েছে (জুন ১৬-জুলাই ৩১) তারা এই সময়ের মধ্যে ২৫.৬ মিলিয়ন স্প্যাম কনটেন্টগুলিকে চিহ্নিত করে সেগুলির বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এছাড়াও সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে তারা ৩.৫ মিলিয়ন হিংসাত্মক বা গ্রাফিক কনটেন্ট অপসারণে সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। একই সঙ্গে Facebook এই সময়কালের মধ্যেই তাদের প্ল্যাটফর্মে থাকা ২.৬ মিলিয়ন আপত্তিকর (যৌনতা এবং নগ্নতা সম্বন্ধীয়) কনটেন্ট অপসারণ করেছে। এই সোশ্যাল মিডিয়া জায়েন্ট তাদের প্ল্যাটফর্মে থাকা ১,২৩,৪০০টির বেশি হয়রানি বা হয়রানি সম্বন্ধীয় কনটেন্ট ওপর বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে। যদিও শতাংশের বিচারে এই ধরনের কনটেন্ট হার ৪২.৩ শতাংশের কম ছিল।

অপরদিকে Facebook মালিকানাধীন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম Instagram তাদের প্ল্যাটফর্মে থাকা ১.১ মিলিয়ন হিংসাত্মক এবং গ্রাফিক কনটেন্টের উপর পদক্ষেপ নিয়েছে। এছাড়াও এই প্ল্যাটফর্ম তাদের ৮ লক্ষের বেশি “আত্মহত্যা এবং নিজ-আঘাত” সম্বন্ধীয় কন্টেন্টের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। গত জুলাইতে প্রকাশিত তার প্রথম মাসিক প্রতিবেদনে, সোশ্যাল মিডিয়া জায়েন্ট Facebook ঘোষণা করেছিল তারা তাদের প্ল্যাটফর্মে থাকা প্রাপ্তবয়স্ক নগ্নতা এবং যৌন কার্যকলাপ ধারণকারী ১.৮ মিলিয়ন কনটেন্ট, হিংসাত্মক প্ররোচনামুলক ২.৫ মিলিয়ন কনটেন্ট এবং প্রায় ২৫ মিলিয়নের কাছাকাছি “স্প্যাম কনটেন্টের” বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে।

আরও পড়ুন: WhatsApp: আড়াল করুন Blue Ticks এবং Last Seen অপশন, কীভাবে জেনে নিন

এগুলি ছাড়াও Facebook (জুন ১৬-জুলাই ৩১ সময়কালের মধ্যে) ১৫০৪টির বেশি অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে “রিপোর্ট” সংক্রান্ত অভিযোগ পেয়েছে এবং সেগুলি ক্ষতিয়ে দেখে সেই অ্যাকাউন্টগুলির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে সংস্থার তরফে। সেই তুলনায় Instagram-এ অনেক কম অভিযোগ জমা পড়েছে। Instagram-এ জমা পড়া অভিযোগের সংখ্যা মাত্র ২৬৫। তবে উভয় প্ল্যাটফর্ম তাদের কাছে রিপোর্ট হওয়া অভিযোগগুলি ক্ষতিয়ে দেখে সেগুলির বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করার ব্যাপারে ১০০ শতাংশ নিশ্চিত করেছে। এদিকে ফেসবুক মালিকানাধীন ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম WhatsApp এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে তারা ১৬ জুন-৩১ জুলাই এই সময়কালের মধ্যে প্রায় ৩ মিলিয়নেরও বেশি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে।

এদিকে Google এক বিবৃতিতে জানিয়েছে তারা তাদের ইউজারদের কাছ থেকে প্রায় ৩৬,৯৩৪টি অভিযোগ পেয়েছে। সেই অভিযোগগুলি ক্ষতিয়ে দেখে শুধু গত জুলাইতেই তারা সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ৯৫,৬৮০টি কন্টেন্ট সরিয়ে নিয়েছে।   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক থেকে জারি হওয়া নতুন নির্দেশে ডিজিটাল মিডিয়া এথিক্স কোড অনুযায়ী এই মাসিক প্রতিবেদনগুলি প্রকাশ করা বাধ্যতামূলক। ২৬ মে থেকে এই নির্দেশ কার্যকর করা হয়েছে। নির্দেশ অনুসারে বলা হয়েছে, ভারতে যেসকল সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের ৫০ লক্ষের বেশি ইউজার রয়েছে তারা তাদের মাসিক রিপোর্ট প্রকাশ করবে এবং তাতে কতগুলি অভিযোগ জমা পড়েছে এবং তার ভিত্তিতে কী ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তার বিশদ বিবরণ এই রিপোর্টে থাকা বাধ্যতামুলক। এই নির্দেশের ভিত্তিতেই তাদের এই মাসিক রিপোর্ট প্রকাশ করেছে Facebook।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Technology news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Technology facebook removed 33 million content within 31st july