scorecardresearch

বড় খবর

আদিবাসী রাষ্ট্রপতি হিসাবে ইতিহাস গড়লেন দ্রৌপদী মুর্মু, শ্রদ্ধার্ঘ্য আমূল ইন্ডিয়ার

রাজ্যের মেয়ে হিসাবে দ্রৌপদী মুর্মুকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করেন প্রখ্যাত বালুশিল্পী সুদর্শন পট্টনায়েক।

আদিবাসী রাষ্ট্রপতি হিসাবে ইতিহাস গড়লেন দ্রৌপদী মুর্মু, শ্রদ্ধার্ঘ্য আমূল ইন্ডিয়ার
আদিবাসী রাষ্ট্রপতি হিসাবে ইতিহাস গড়লেন দ্রৌপদী মুর্মু

ইতিহাস গড়লেন দেশের প্রথম আদিবাসী ও সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নিলেন দ্রৌপদী মুর্মু। ঘড়ির কাঁটায় তখন সকাল ১০টা বেজে ১৫ মিনিট। রাষ্ট্রপতি হিসাবে দ্রৌপদী মুর্মুকে শপথ বাক্য পাঠ করান দেশের প্রধান বিচারপতি এনভি রমনা। ১৫ তম আদিবাসী ও সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতি হিসাবে দ্রৌপদী মুর্মুকে বিশেষ শ্রদ্ধা আমুল ইন্ডিয়ার। একটি ডুডুল আর্টের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতিকে সম্মান প্রদর্শন করে আমূল ইণ্ডিয়া।

দ্রৌপদী মুর্মুকে শ্রদ্ধার্ঘ্য আমূল ইন্ডিয়ার

এদিকে রাজ্যের মেয়ে হিসাবে দ্রৌপদী মুর্মুকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করেন প্রখ্যাত বালুশিল্পী সুদর্শন পট্টনায়েক। পুরীর সমুদ্র সৈকতে স্যান্ড আর্টের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলেন দ্রৌপদী মুর্মুর অবয়ব। পুরীর সৈকতে স্যান্ড আর্টের মধ্যে দিয়েই জ্বলন্ত হয়ে ওঠে দ্রৌপদী মুর্মুর ছবি। কী নিখুঁত কাজ! গভীর অধ্যাবসায় না থাকলে এমন সুন্দর শিল্প সৃষ্টি করা সম্ভব না। নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে সেই ছবি শেয়ার করেছেন খোদ সুদর্শন পট্টোনায়েক। এরপর তা ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল  মিডিয়ায়। এবার দেখে নিন সেই মনমুগ্ধকর শিল্প।

আরও পড়ুন: [ভুট্টার দাম ১৫ টাকা শুনেই দরাদরি! ভিডিও ভাইরাল হতেই ট্রোলের মুখে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী]

১৯৫৮ সালের সালের ২০ শে জুন ওডিশার ময়ূরভঞ্জ জেলার উপরবেদা গ্রামে একটি সাঁওতাল পরিবারে জন্ম দ্রৌপদী মুর্মুর। মুর্মুর যাত্রা অনেকের কাছেই প্রথমের একটি অনুপ্রেরণামূলক গল্প। গ্রামের প্রথম মহিলা হিসাবে কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে সেদিন সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন তিনি।

রাজনীতিতে তাঁর কর্মজীবন শুরু করার আগে, মুর্মু রায়রাংপুরের শ্রী অরবিন্দ ইন্টিগ্রাল এডুকেশন সেন্টারে একজন শিক্ষক হিসাবে তাঁর দায়িত্ব সামলেছেন। এরপর তিনি ওডিশা সরকারের সেচ ও বিদ্যুৎ বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ১৯৯৭ সালে তিনি প্রথম রায়রাংপুর পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয়ী হন। এরপর ২০০০ সালে ওডিশা বিধানসভায় প্রথম জয় লাভ করে বিজেডি-বিজেপি জোট সরকারের শিল্প ও বাণিজ্য দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী হিসাবে তাঁর দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৫ থেকে ২০২১ পর্যন্ত ঝাড়খণ্ডের প্রথম মহিলা গভর্নর হিসাবে তিনি দায়িত্ব সামলান।

ভারতের ১৫ তম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নেওয়ার পরে প্রথমবারের মতো জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময়, দ্রৌপদী মুর্মু বলেন যে তাঁর এই কৃতিত্ব ভারতের প্রতিটি দরিদ্র মানুষের কৃতিত্ব এবং এটি কোটি কোটি নারীর ক্ষমতার প্রতিফলন। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান উপলক্ষে সেজে উঠেছিল সংসদ চত্ত্বর। উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ, উপ-রাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ বিশিষ্ট অতিথিবর্গ।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Amul welcomes president elect droupadi murmu with creative doodle