scorecardresearch

বড় খবর
এক ফ্রেমে কেন্দ্রীয় কয়লামন্ত্রী ও কয়লা মাফিয়া, বিজেপিকে বিঁধলেন অভিষেক

থানাতেই সাধের অনুষ্ঠান! অভিনব উদ্যোগে বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাস, সাক্ষী থাকলো নেটপাড়া

এক ঘণ্টার এই অনুষ্ঠান ঘিরে সেজে ওঠে থানা চত্ত্বর।

থানাতেই সাধের অনুষ্ঠান! অভিনব উদ্যোগে বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাস, সাক্ষী থাকলো নেটপাড়া
থানাতেই সাধের অনুষ্ঠান! অভিনব উদ্যোগে বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাস, সাক্ষী থাকলো নেটপাড়া

থানাতেই সাধের অনুষ্ঠান! এমন ঘটনার সাক্ষী থাকলো সোশ্যাল মিডিয়া। ভোপালের মহিলা থানায় সহকর্মীকে অনন্য উপহার দিলেন পুলিশকর্মীরা। গর্ভবতী পুলিশ আধিকারিক করিশ্মা রাজাওয়াতকে মাতৃত্ব কালীন ছুটিতে পাঠানোর আগে থানার তরফেই আয়োজন করা হয় সাধের অনুষ্ঠান। এখন অভিনব এই ঘটনার ছবি এবং ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সাধের অনুষ্ঠান ঘিরে পুলিশ কর্মীদের মধ্যে উৎসাহ ছিল নজরে পড়ার মত। একজন পুলিশ কনস্টেবল মহিলা সাব-ইন্সপেক্টরের ভাইয়ের দায়িত্ব পালন করেন। অন্য একজন সহকর্মীকে মায়ের ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়। বেলুন ও ফুল দিয়ে মুড়িয়ে ফেলা হয়েছিল গোটা থানাকে।

মহিলা ওই সাব ইন্সেপেক্টর করিশ্মা রাজাওয়াত আদতে গোয়ালিয়রের বাসিন্দা। দিন কয়েক আগেই তিনি মাতৃত্বকালীন ছুটির আবেদন করেছিলেন, কিছুদিন আগেই তা মঞ্জুর হয়। বাড়িতে যাওয়ার আগে সহকর্মীদের কাছ থেকে এমন আয়োজন অভিভূত হয়ে যান তিনি নিজেও।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল এই অনুষ্ঠান চলাকালীন অনেকে যারা তাঁদের অভিযোগ জানাতে হাজির হয়েছিলেন, তারাও এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন। এক ঘণ্টার এই অনুষ্ঠান ঘিরে সেজে ওঠে থানা চত্ত্বর। কনস্টেবল প্রদীপ শর্মা, যিনি কারিশমা রাজাওয়াতের ভাইয়ের দায়িত্ব পালন করেন। বাকি সহকর্মীরাও এই অনুষ্ঠানে নিজের নিজের দায়িত্ব পালন করেন।

আরও পড়ুন : [ বিয়ের পরের দিন টাকা-গয়না নিয়ে চম্পট নতুন বউয়ের, পুলিশের দ্বারস্থ বর বাবাজি ]

সহকর্মীদের এই আয়োজনে খুশি করিশ্মাও। তাঁর কথায়, তিনি কিছু সময়ের জন্য ভুলে গিয়েছিলেন যে তিনি তার থানায় ছিলেন। তিনি বলেন, “সহকর্মীদের থেকে এমন ভালোবাসা কখনোই ভোলার নয়” ।

অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে এসিপি নিধি সাক্সেনা বলেন, “ মহিলা পুলিশ কর্মীরা বারি ঘর ছেড়ে তাদের বেশিরভাগ সময় থানায় কাটায়। তাদের সুখে-দুঃখে সহকর্মীরাই তাদের পরিবার। সাধের এই অনুষ্ঠানটি একটি অনন্য উদ্যোগ। পুলিশ প্রশাসন সব সময় অধীনস্থ কর্মচারীদের সঙ্গে রয়েছে। এটাই তার জলজ্যান্ত প্রমাণ।

এসআই কারিশমা রাজাওয়াত সংবাদ মাধ্যমকে জানান, “হিন্দু রীতি অনুযায়ী সাধের গোটা অনুষ্ঠানটি হয়”। এরপর তাকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে কারিশমা দ’চোখ খুশিতে জলে ভিজে যায়।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Cops organise baby shower for pregnant sub inspector in bhopal police station