scorecardresearch

বড় খবর

চোখে স্বপ্ন, মনে জেদ! আদরের রাজকন্যাকে ‘মানুষ’ করতে প্রাণপাত করছেন বাবা

ভোর থেকে সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম স্রেফ মায়েকে মানুষ করার আশায়।

চোখে স্বপ্ন, মনে জেদ! আদরের রাজকন্যাকে ‘মানুষ’ করতে প্রাণপাত করছেন বাবা
মাথার ওপর চাঁদের আলো, আর পাশে শুয়ে ছোট রাজকন্যা! মেয়েকে ‘মানুষ’ করার লক্ষ্যে বিভোর বাবা

খোলা আকাশ’ই ছাদ বাপ-মেয়ের। অন্যান্য সকল বাবার মত এই বাবার কাছেও তার মেয়েই রাজকন্যা। পৃথিবীর বুকে ভগবানের সব থেকে বড় আশীর্বাদ। ফুটফুটে একরত্তি মেয়ের জন্য দিনরাত বেলুন বিক্রি করে চলেন বাবা। মেয়ের গায়ে রাজকন্যার পোশাক থাকলেও বাবার কার্যতই খাপি পায়ে বেলুন বিক্রি করেন। দিনের শেষে মেয়ের মুখে তুলে দিতে হবে দুমুঠো খাবার। মানুষ করতে হবে যে স্বপ্নের সেই রাজকন্যাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই এক বাবা-মেয়ের কাহিনী ভাইরাল হয়েছে। আর তা ভাইরাল হতেই নেটিজেনদের মন জিতে নিয়েছেন।

মধ্য চিনের হেনান প্রদেশের জুচাং এলাকার বাসিন্দা পেশায় বেলুন বিক্রেতা বাবা। সারাদিন নিজের বছর পাঁচেকের রাজকন্যার হাত ধরে শহরের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত ঘুরে বেড়ান তিনি, ‘বেলুন লাগবে গো বেলুন’! নিষ্ঠার সঙ্গে কর্তব্যে অবিচল। মেয়েকে যে মানুষের মত মানুষ করে তুলতে হবেই। সাত রাজার ধন এক মানিককে তাই তিনি সব সময়ই বুকে আলগে রাখেন।

আরও পড়ুন: [ ঘাড় পেঁচিয়ে শক্ত থাবায় কুপোকাৎ কুমির, হাড়হিম রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের সাক্ষী নেটপাড়া ]

মাথার ওপর চাঁদের আলো, আর পাশে শুয়ে ছোট রাজকন্যা! মেয়েকে ‘মানুষ’ করার লক্ষ্যে বিভোর বাবা

ওয়্যাং নামে এক ক্রেতার মোবাইল ক্যামেরায় সমগ্র ঘটনা ফ্রেমবন্দী হয়। তারপর মুহূর্তেই রতা ছড়িয়ে পড়ে নেটদুনিয়ায়। তিনি তুলে ধরেছেন মেয়েকে মানুষ করতে বাবার হাড়ভাঙা পরিশ্রমের কাহিনী। জানা গিয়েছে বেলুন কিনতে কিনতেই এককথায়। দু’কথায় বাড়তে থাকে আলাপচারিতা। মেয়েটির পরনে ছিল পিঙ্ক প্রিন্সেস গাউন। আর বাবা নিতান্তই সাদামাটা পোশাকে কাঁধে বেলুন নিয়ে আর একহাতে ছোট রাজকন্যার হাত শক্ত করে চেপে ধরে। বাবা-মেয়ের সংসারে মালপত্র বলতে সঙ্গী একটা ঠেলাগাড়ি। মেয়েকে কষ্ট করে স্কুলে ভর্তিও করেছে সে। ভোর থেকে সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম স্রেফ মায়েকে মানুষ করার আশায়।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Homeless single father in china taking princess daughter to sell balloons at night with luggage in tow moves many to tears