scorecardresearch

বড় খবর

ষষ্ঠী’র দিনে বৌমা’র জন্য এলাহি আয়োজন, শাশুড়ির এই কাহিনী আপনাকে অনুপ্রাণিত করবেই!

এ-এক অন্যরকমের ষষ্ঠী!

ষষ্ঠী’র দিনে বৌমা’র জন্য এলাহি আয়োজন, শাশুড়ির এই কাহিনী আপনাকে অনুপ্রাণিত করবেই!
'শাশুড়ি মা' যত্ন করে বৌমাকে পাত পেড়ে 'বৌমা ষষ্ঠী' খাওয়াচ্ছেন

গতকালই সদ্য মিটেছে জামাই ষষ্ঠীর পর্ব। জামাই ষষ্ঠী মানেই কিন্তু মেয়ের বাপের বাড়ি ফেরার পালা। সারাবছর টুকটাক তার আনাগোনা লেগে থাকলেও বিশেষ করে এইদিন জামাই মেয়েকে একসঙ্গে পাওয়াই কিন্তু আসল উপলক্ষ। হরেক রকম রান্না-বান্না তো রইলই তবে তার সঙ্গে যাবতীয় মরশুমি ফল হিমসাগর আম, লিচু, কাঁঠাল, জাম, গোলাপজামের সম্ভার – জামাই আদরে কোনভাবেই খামতি রাখেন না শাশুড়িরা। কিন্তু কখনও শুনেছেন ‘শাশুড়ি মা’ যত্ন করে বৌমাকে পাত পেড়ে ‘বৌমা ষষ্ঠী’ খাওয়াচ্ছেন! যদি না শুনে থাকেন, তাহলে শুনুন এমন মজার এক কাহিনী যা আপনাকে অনুপ্রাণিত করবেই।

বছর আটেক আগেই বিয়ে হয়েছে রিমির (নাম পরিবর্তিত)! বিয়ের পর সেবার প্রথম ষষ্ঠী। বর’কে নিয়ে সেজে গুজে বাপের বাড়ি যাবে বলেই দিন কয়েক ধরেই বেশ চনমনে ছিল রিমি। কিন্তু ষষ্ঠীর দিন সকালেই শাশুড়ি মা বললেন, অভ্র’র দিদি-জামাই আসবে রান্না-বান্না করতে তো হবে, তাই এবার যাওয়া হবে না বাপের বাড়ি। শুনেই মনটা বেশ খারাপ হয়ে গেল রিমি’র। কিন্তু সদ্য বিয়ে হয়েছে। মুখে মুখে তর্ক করা ঠিক হবে না ভেবেই চুপ করে রান্নাঘরেই হরেক পদের রেসিপি রান্না করে ঘেমে-নেয়ে একাকার অবস্থা রিমির। রান্না শেষে একটু ফ্রেশ হতে বাথরুমে ঢুকতেই একটা চেনা গলা কানে এল রিমির। আরে এটা তো মায়ের-ভাইয়ের গলা! খানিকক্ষণ চুপ করে থেকে সেটাই আরও একবার শোনার চেষ্টা করল। হ্যাঁ ঠিক’ই শুনেছে রিমি।

আরও পড়ুন:পথ-কুকুরকে বাঁচাতে প্রাণপাত করল যুবক, মহানুভবতা কুর্নিশ নেটজনতার

বাথরুম থেকে বেরিয়ে এসেই চোখের সামনে ‘গোটা’ বাপের বাড়িকে দেখে বাঁধ ভাঙা আনন্দ তখন রিমি। মা-বাবা-ভাইকে পেয়ে যেন সব পাওয়ার দেশে তখন রিমি। কিন্তু হটাত ওঁরা কেন এদিন এ-বাড়িতে? খানিক খটকা’ও লাগল। পিছন ঘুরতেই শাশুড়ি দাঁড়িয়ে। ইতিমধ্যেই এসে গেছে অভ্র’র দিদি-জামাই বাবুও। শাশুড়ি মা খানিক মাথায় হাত বুলিয়ে রিমিকে বলল, ‘যা রে মা… তৈরি হয়ে নে! আজ যে ষষ্ঠী! আমি নিজের হাতে তোকে খাইয়ে দেব”। শুনে চোখে জল চলে এল রিমির। রিমির মা-বাবা-ভাই সবাই পাশে দাঁড়িয়ে। দরজার ওপারে অভ্র। স্রেফ একটা সারপ্রাইজ দেবে বলেই সবাই সবটা এড়িয়ে গেছে রিমি থেকে। খানিক অভিমান হল। পরক্ষণেই খুশিতে অভিমান ভুলে রিমি ‘বৌমা ষষ্ঠীর’ অনুষ্ঠানের জন্য তৈরি হতে গেল রিমি। আর তারপর..!

সেজে গুজে আসতেই রিমি দেখল, টেবিলে সুন্দর থালায় পরিপাটি করে সাজানো হরেক পদ। মাথায় হাত বুলিয়ে রিমিকে খাইয়ে দিচ্ছে শাশুড়ি। পাশে বসে নিজের মেয়ে জামাইও। নতুন বৌ’কে এভাবেও সারপ্রাইজ দেওয়া যায় তা কোনদিন কল্পনাও করেনি রিমি। সেদিনের সেই বৌমা ষষ্ঠীর পর কেটে গিয়েছে আট বছর। আর প্রতিবারেই রিমি এই বিশেষ দিনে শাশুড়ি’র হাতে পেয়েছে ‘বৌমা ষষ্ঠী’!

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Story of jamai sasthi inspires you