scorecardresearch

বড় খবর

সামনেই ছটপুজো, দেখা নেই সাংসদের, আসানসোলে ‘বিহারীবাবু’র নামে নিখোঁজ পোস্টার

সাংসদ ‘নিখোঁজ’ বলে এমন পোস্টার সাঁটানোকে কেন্দ্র করে এলাকায় রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে উঠেছে।

সামনেই ছটপুজো, দেখা নেই সাংসদের, আসানসোলে ‘বিহারীবাবু’র নামে নিখোঁজ পোস্টার
সাংসদের নামে 'নিখোঁজ' পোস্টার আসানসোলে।

সামনেই ছটপুজো। তার আগে আসানসোলের সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহার নামে ‘নিখোঁজ’ পোস্টারে হইচই কাণ্ড। শিল্পনগরীর কুলটিতে শত্রুঘ্ন সিনহা ‘নিখোঁজ’ বলে পোস্টার পড়েছে। কুলটি স্টেশন চত্বর চেয়ে গিয়েছে বিহারীবাবুর ‘নিখোঁজ’ পোস্টারে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিল্পশহর আসানসোলে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে উঠেছে। শাসকদল তৃণমূলের অভিযোগ, ‘একাজ বিজেপির’। গেরুয়া শিবিরের দাবি, ‘সত্যিটাই তো লেখা আছে পোস্টারে। সাংসদের পাত্তাই পাওয়া যায় না এলাকায়।’

দীপাবলি শেষে এবার ছট পুজোর তোড়জোড় তুঙ্গে। মূলত হিন্দিভাষীদের এই উৎসব সাড়ম্বরে পালিত হয় এরাজ্যেও। বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে বহু হিন্দিভাষী মানুষজন থাকেন, তাঁরাই এই উৎসব পালন করে থাকেন। শিল্পনগরী আসানসোল-জুড়ে বহু হিন্দিভাষী মানুষ বসবাস করেন। ফি বছর আসানসোলের বিভিন্ন এলাকায় ছট উৎসবে মাততে দেখা যায় তাঁদের। ইতিমধ্যেই ছট উৎসব শুরুর পথে। কিন্তু তার আগে আসানসোলের কুলটিতে সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহার নামে ‘নিখোঁজ’ পোস্টার পড়েছে।

কুলটির স্টেশন রোড চত্বরে সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা ‘নিখোঁজ’ হওয়ার পোস্টার পড়াকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চর্চা তুঙ্গে। যদিও এই পোস্টার কে বা কারা লগিয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। পোস্টারের নীচে আসানসোলের ‘বিহারী সমাজ’ নাম লেখা আছে। ‘বিহারীবাবু’ নামেই পরিচিতি আসানসোলের তৃণমূল সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহার। এই ছট পুজো বিহারবাসীর প্রধান উৎসব। তাই ছট পুজোর মুখে ‘বিহারীবাবু’ ‘নিখোঁজ’ পোস্টারে স্বভাবতই অস্বস্তি বেড়েছে তৃণমূলে।

আরও পড়ুন- ‘বেতন বন্ধ হতে চলেছে’, সরকারি কর্মীদের বিরাট আশঙ্কার কথা শোনালেন শুভেন্দু

এবিষয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা সেলিম আখতার আনসারি বলেন, ”এটি নিশ্চিতভাবেই পাগলের কাজ।” কুলটি ব্লক যুব ত‍ৃণমূলের সভাপতি বিমান দত্ত এই পোস্টার সাঁটানোর দায় বিজেপির উপরেই চাপিয়েছেন। তিনি বলেন, ”এটি পুরোপুরি বিজেপির চক্রান্ত। তারা কোনওভাবেই রাজ‍্যের শাসকদল তৃণমূলের সঙ্গে পেরে উঠছে না। তাই নানা ছলে তৃণমূলকে বদনাম করতে চাইছে। এলাকায় পরিষেবা দেওয়ার কাজ পুরনিগমের। যা যথার্থ ভাবেই পালন করা হচ্ছে। এলাকার সংসদ প্রতিনিয়ত মেয়রের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন।’

তবে স্থানীয় জিসান কুরেশি নামে এক ব‍্যক্তি বলেন, ”পোস্টার কারা লাগিয়েছে জানা নেই। তবে পোস্টারের বক্ত‍ব‍্য সত‍্যি। ছট উৎসবেও সাংসদ বিহারীবাবুর দেখা নেই। তাঁর নিজের উপস্থিতিতে এলাকার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়টি দেখা উচিত ছিল।” ছটপুজোর আগে ‘বিহারীবাবু’ শত্রুঘ্ন সিনহার নামে আসানসোলে ‘নিখোঁজ’ পোস্টার পড়াকে যথার্থ বলেই মনে করছেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ও। তিনি বলেন, ”এই সময় হয়তো উনি কোনও ফাইভ স্টার হোটেলে রয়েছেন। অথবা হয়তো কোথাও বেড়াতে গিয়েছেন। ছটপুজোর সময় ঘাটগুলিতেই সমস্যা হয়, তখনই সাংসদ নিখোঁজ। মিথ্যা কথা বলে ভোট নিয়েছেন বিহারীবাবু।”

আরও পড়ুন- কাটমানি নিয়ে মুখ খোলায় SP-র রোষে বড়ঞার OC, নিলেন কড়া ব্যবস্থা

উল্লেখ্য, আসানসোল জুড়ে ছট উৎসব পালনের তোড়জোড় তুঙ্গে। ছট পুন্যার্থীদের সুবিধার্থে শিল্পাঞ্চলের ছোট-ছোট ঘাটগুলি পরিস্কার করা হচ্ছে। পুরনিগমের আধিকারিক-কর্মীরা ঘাটগুলি পরিদর্শন করছেন। ছট উৎসব নির্বিঘ্নে পালনের সবরকম ব্যবস্থা করা হচ্ছে স্থানীয় প্রশাসনের তরফেও।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Biharibabu tmc mp shatrughna sinha is missing postering at asansol506724