scorecardresearch

বড় খবর

ঝালদা জিতেই আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে কংগ্রেসের, গণতন্ত্র রক্ষার সংকল্প নেপালদেবের

নির্বাচন চলাকালীনই ফের আদালতের ডিভিশনবেঞ্চে যাওয়ার হুঁশিয়ারি তৃণমূলের।

ঝালদা জিতেই আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে কংগ্রেসের, গণতন্ত্র রক্ষার সংকল্প নেপালদেবের
আদালতের রায়ে কংগ্রেস নেতৃত্বের মুখে হাসি।

পুরুলিয়ার ঝালদা পুরসভা দখল করল কংগ্রেস। চেয়ারম্যান পদে জয়ী হলেন নির্দল কাউন্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায়। ঝালদা পুরসভার মোট আসন ১২ জন। কংগ্রেসের ৬ জন কাউন্সিলরের সমর্থনে চেয়ারম্যান পদের লড়াইয়ে ৭-০ ভোটের ব্যবধানে জয় পান শীলাদেবী।

তৃণমূলের ৫ জন কাউন্সিলর সোমবার চেয়ারম্যান পদের লড়াইয়ের জন্য ব্যালট তুলেছিলেন। কিন্তু তা জমা দেননি বলে অভিযোগ কংগ্রেসের। সূত্রের খবর, ঝালদা পুরসভার চেয়ারম্যান ভোট নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের বিরোধিতায় ডিভিশন বেঞ্চের বেঞ্চের দ্বারস্থ হচ্ছে তৃণমূল।

এই জয়ের পরই পুরুলিয়ার কংগ্রেস সভাপতি নেপালদেব মাহাত ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে বলেছেন, ‘এই জয়ের সত্যের জয়। আমরা আনন্দিত। সকল ঝালদাবাসীকে শুভেচ্ছা জানাই। গণতন্ত্র রক্ষার জন্য কংগ্রেস লড়াই চালিয়ে যাবে। দলীয় কর্মী, মানুষের মনোবল বাড়িয়ে তৃণমূলের সন্ত্রাস রোখার চেষ্টা করব আমরা।’ এদিনের নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের সিঙ্গলবেঞ্চের নির্দেশের বিরুদ্ধে তৃণণূলের ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়া নিয়ে নেপালবাবু বলেছেন, ‘অত্যন্ত ন্যক্কারজনক ঘটনা। এরপরও ওরা আমাদের আটকানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। সঙ্গে প্রশাসনের মদত। মানুষ যা বোঝার বুঝছে।’

আরও পড়ুন- গেরুয়া’ গান বিতর্ক অতীত, অরিজিতের পাশে দাঁড়িয়ে বিরাট আশ্বাস মমতার

গত বছর রাজ্যব্যাপী পুরনির্বাচনের পর দেখা যায় পুরুলিয়ার ঝালদা পুরসভার ফলাফল ত্রিশঙ্কু হয়েছে। তারপরই খুন হন কংগ্রেস কাউন্সিলর তপন কান্দু। যা নিয়ে শাসক তৃণমূলকে নিশানা করে কংগ্রেস। চলে টানাপোড়েন। এইসবের মধ্যেই ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নির্দল কাউন্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায়ের সমর্থন নিয়ে ঝালদায় পুরবোর্ড গঠন করে তৃণমূল। চেয়ারম্যান হন তৃণমূলের সুরেশ আগরওয়াল।

কিন্তু তাতেও শাসকের অস্বস্তি দূর হয়নি। মাস কয়েক আগে নির্দল কা্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায় তৃণমূলের থেকে সমর্থন প্রত্যাহারের ঘোষণা করেন। তার মধ্যেই উপনির্বাচন হয় মৃত তপন কান্দুর ওয়ার্ডেও। ফের ওই ওয়ার্ডে জয় পায় কংগ্রেস। নিহত তপনের ভাইপো মিঠুন কান্দু হাতের প্রতীকে জয় হাসিল করেন। তারপর কংগ্রেসের ডাকে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব পাস হয়। ফলে থনই প্রায় নিশ্চিত ছিল বোর্ড গঠন হবে কংগ্রেসর পক্ষেই।

তবে ক্ষমতা হস্তান্তরে জটিলতা তৈরি হয়। জেলা প্রশাসন ঝালদা পুরসভায় একজন প্রশাসককে নিয়োগ করে। বকমে পুরবোর্ডের ক্ষমতা ধরে রাখে শাসক শিবির। মামলা গড়ায় কলকাতা হাইকোর্টে। গত সপ্তাহে প্রশাসক বসানোর রাজ্যের দাবি খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। নির্দেশ দেয় সোমবার চেয়ারম্যান নির্বাচন। সেই নির্দেশ মেনেই এদিন চেয়ারম্যান নির্বাচন হয় ঝালদা পুরসভায়। বোর্ড দখল করল কংগ্রেস।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Congress won jhalda corporation chairman election