scorecardresearch

বড় খবর

‘দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি হলেই নোবেল মিলছে’, অভিজিৎ প্রসঙ্গে বেলাগাম রাহুল সিনহা

‘‘ওঁরা (নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়) অর্থনীতিকে বামপন্থী রীতিতে রাঙিয়ে দিয়েছে। বামপন্থা রীতিতে চালাতে চায় ওঁরা। কিন্তু বামপন্থা রীতি তো এদেশেই অচল হয়ে গিয়েছে’’।

‘দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি হলেই নোবেল মিলছে’, অভিজিৎ প্রসঙ্গে বেলাগাম রাহুল সিনহা
রাহুল সিনহা ও স্ত্রীর সঙ্গে অভিজিৎ।

তথাগত রায়, দিলীপ ঘোষ, পীযূষ গোয়েলের পর নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বেফাঁস মন্তব্য করে এবার বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা। ‘যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি, তাঁরাই নোবেল পাচ্ছেন’, এমনই মন্তব্য করেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। রাহুলের এহেন মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেছেন বাংলার বিভিন্ন রাজনীতিক। যদিও এ প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে চাননি নোবেলজয়ীর মা নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঠিক কী বলেছেন রাহুল সিনহা?
শুক্রবার এক সংবাদমাধ্যমে নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বঙ্গ বিজেপি নেতা বলেন, ‘‘যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি হন, মূলত তাঁরাই নোবেল পাচ্ছেন। নোবেল পাওয়ার ক্ষেত্রে এটা ডিগ্রি কিনা জানি না’’। উল্লেখ্য, অর্থনীতিতে এবার অভিজিতের সঙ্গে নোবেল পেয়েছেন তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী এস্থার ডাফলো।

অন্যদিকে,  পীযূষ গোয়েলের পাশে দাঁড়িয়ে রাহুল বলেন, ‘‘ওঁরা (নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়) অর্থনীতিকে বামপন্থী রীতিতে রাঙিয়ে দিয়েছে। বামপন্থা রীতিতে চালাতে চায় ওঁরা। কিন্তু বামপন্থা রীতি তো এদেশেই অচল হয়ে গিয়েছে’’।

আরও পড়ুন: ‘নোবেলজয়ী অভিষেকবাবু’, মমতার মন্তব্যে উত্তাল বঙ্গ রাজনীতি

উল্লেখ্য, এদিনই নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদকে নিশানা করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, “আমি নোবেল জয়ের জন্য অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানাচ্ছি। কিন্তু আপনারা তো সবাই জানেন যে ওঁর চিন্তাভাবনা সম্পূর্ণই বামপন্থী মতাদর্শের। অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেসের ‘ন্যায়’ প্রকল্পের অনেক গুণগান করেছিলেন। সেই ভাবনা পরবর্তীকালে ভারতের জনগণই খারিজ করে দিয়েছেন।”

আরও পড়ুন: নোবেলজয়ী অভিজিতের নাম বিতর্কে মুখ খুললেন ‘মা’

এদিকে, রাহুল সিনহা ও পীযূষ গোয়েলের এহেন মন্তব্যের বিরোধিতা করে সরব হয়েছেন বাংলার রাজনীতিবিদরা। রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এসব অসভ্য কথার জবাব দেব না। দেশের মানুষ এর বিচার করবে’’। তৃণমূল মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘একজন ভারতীয় নোবেল পেলে যে সম্মান দেওয়ার কথা, তিনি যদি তা না দেন, তবে তাঁরই অসম্মান হয়। বাঙালি বলে কি এত সমস্যা?’’ বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‘এঁদের কথা বলার যোগ্যতাই নেই। ওঁরা বাংলা বিরোধী, বাঙালি বিরোধী। ফাজলামি করার জায়গা নয় পশ্চিমবঙ্গ’’।

আরও পড়ুন: পড়াশোনা ছাড়া আর কী ভালবাসেন বাঙালি তথা মারাঠী নোবেলজয়ী?

রাহুল সিনহা ও পীযূষ গোয়েলের বক্তব্য প্রসঙ্গে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলার তরফে যোগাযোগ করা হলে নোবেলজয়ীর মা নির্মলাদেবী কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

প্রসঙ্গত, পীযূষ গোয়েল বা রাহুল সিনহাই শুধু নন, নোবেল পাওয়ার পর থেকেই অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধতে শুরু করেছ পদ্মশিবির। এর আগে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিজিৎকে ‘অর্ধেক বাঙালি’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন। এরপর মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায় টুইটারে লেখেন, অভিজিতের মিডলনেম কেন বিনায়ক? কেন তাঁর বাবার নাম রাখা হয়নি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Rahul sinha slams nobel winner abhijit banerjee