scorecardresearch

বড় খবর

ফুটব্রিজ দুর্ঘটনার পরদিন কেমন আছে সাঁতরাগাছি? কী বলছেন যাত্রীরা? কী বলছে রেল?

‘‘আরও দুটো ওভারব্রিজ তৈরি করব। যার মধ্যে একটা ফুট ওভারব্রিজের কাজ চলছে জোরকদমে, সামনের বছরের মধ্যে এটার কাজ শেষ হয়ে যাবে এবং চালু হয়ে যাবে। সাবওয়ে তৈরির পরিকল্পনাও রয়েছে।’’

santragachi, সাঁতরাগাছি
সাঁতরাগাছি ওভারব্রিজ। ছবি: সৌরদীপ সামন্ত

ছেঁড়া জুতো লাট হয়ে পড়ে নেই, বদলে ছিমছামই আছে সব কিছু। ঘটনাস্থল মঙ্গলবার সন্ধের সেই অভিশপ্ত ফুটব্রিজ। পর দিন সকাল থেকেই চেনা ছবি সাঁতরাগাছি স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজ চত্বরে। সরু চেহারার ওই ওভারব্রিজে সপ্তাহের অন্য ছুটির দিনগুলোর মতোই স্বাভাবিক ছন্দ, ট্রেন ধরার ঢিমে তেতালা তাড়া যাত্রীদের। কেউবা আবার ট্রেন থেকে নেমে হেলতে দুলতে লাগেজ নিয়ে পার হচ্ছেন সেই ওভারব্রিজ। তবে অনেক যাত্রীর চোখেমুখেই ভিড় করে রয়েছে অনেক প্রশ্ন। ‘‘এত পুলিশ কেন?’’, ‘‘কী হয়েছে?’’ গোছের প্রশ্ন ধেয়ে আসছে বেশ কয়েকজন যাত্রীর মুখ থেকেই। তাঁদের অনেকেই হয়তো মঙ্গলবার সন্ধের ঘটনা সম্পর্কে অবগত নন। অবশ্য এসব প্রশ্ন করারই কথা। কারণ, ফুট ওভারব্রিজের বিভিন্ন জায়গায় ঠায় দাঁড়িয়ে আরপিএফ, পুলিশকর্মীরা। শুধু তাই নয়, ওভারব্রিজে যাত্রীর সুরক্ষার দায়িত্বে রয়েছেন ভারত স্কাউট অ্যান্ড গাইডসের সদস্যরাও।

সাঁতরাগাছি স্টেশনের ২ ও ৩নং প্ল্যাটফর্মের সংযোগকারী ফুট ওভারব্রিজের অংশেই গতকাল সন্ধেয় পদপিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের, জখম হয়েছেন আরও ১২ জন। যে ঘটনার পর থেকেই ফুট ওভারব্রিজে ভিড় সামাল দিতে মোতায়েন করা হয়েছে আরপিএফ ও ভারত স্কাউট অ্যান্ড গাইডসের সদস্যদের। ওভারব্রিজে যাত্রীদের ভিড় সামাল দিতে দিতেই ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে ভারত স্কাউট অ্যান্ড গাইডসের এক সদস্য অভিষেক দেবনাথ বললেন,‘‘সকাল থেকে রয়েছি। ওভারব্রিজে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করছি। কোনওরকম জমায়েত করতে দিচ্ছি না এখানে।’’ আরেক সদস্য বললেন, ‘‘ওভারব্রিজে যাতে ভিড় না হয়, সেটাই দেখছি মূলত। কাউকেই বেশিক্ষণ দাঁড়াতে দেওয়া হচ্ছে না ওভারব্রিজে।’’ স্টেশন চত্বরেও যাত্রী সাধারণের উদ্দেশে বারবার ঘোষণা করে বলা হচ্ছে যে, ফুট ওভারব্রিজে অযথা ভিড় না করতে।

তবে ফুট ওভারব্রিজ নিয়েও সংশয় থাকছেই। বহু পুরনো এই ফুট ওভারব্রিজ। এমনকি, ওভারব্রিজে যাত্রীসংখ্যা একটু বেশি হলেই, ব্রিজে কাঁপুনি অনুভূত হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করতেই রাজীব ঘোষ নামের এক নিত্যযাত্রী বললেন,‘‘ওভারব্রিজটা নতুন করে করা দরকার। ওটা তো পুরনো।’’ রাজীব ঘোষের পাশে বসা আরেক যাত্রী বললেন,‘‘ব্রিজটা মেরামতি করা দরকার। আজকাল যা ব্রিজ ভাঙছে চারদিকে!’’ সাঁতরাগাছি ফুট ওভারব্রিজ সরু হওয়া নিয়েও সরব হয়েছেন অনেক যাত্রীই। জীবন পাল নামের এক যাত্রী বললেন,‘‘আরও একটা ফুট ওভারব্রিজ দরকার। এ ব্রিজটা বহু পুরনো, সংস্কারের দরকার। একটা দুটো দুর্ঘটনা না ঘটলে তো এঁদের টনক নড়ে না!’’ নিত্যযাত্রী রাজীব ঘোষ বললেন, ‘‘এখানে যাত্রীসংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়েছে, সেই তুলনায় স্টেশনের পরিকাঠামো বদলায়নি। ওভারব্রিজে জায়গা খুব সংকীর্ণ। গতকাল তিনটে ট্রেন এসে যাওয়ায় ভিড় অনেক বেশি হয়ে গিয়েছিল। যার জেরেই এমন ঘটনা ঘটেছে।’’

ওভারব্রিজ রক্ষণাবেক্ষণ প্রসঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারিক গীতা সরকার বললেন,‘‘রেলের ব্রিজগুলো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য চিফ ব্রিজ ইঞ্জিনিয়র রয়েছেন। ফলে এগুলো রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। কোনও অসুবিধে হলে তা দেখভাল করা হয়। ব্রিজ নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই।’’

আরও পড়ুন, সাঁতরাগাছি স্টেশন ফুটব্রিজে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ২, জখম ১২, পৃথক তদন্ত করবে রেল ও রাজ্য

সাঁতরাগাছি ফুট ওভারব্রিজ কি সংস্কার করা হবে? যাত্রী সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে কি আরও ফুট ওভারব্রিজ বা সাবওয়ে বানাবে রেল? জবাবে দক্ষিণ -পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে বললেন,‘‘আরও দুটো ওভারব্রিজ তৈরি করব আমরা। যার মধ্যে একটা ফুট ওভারব্রিজের কাজ চলছে জোরকদমে, সামনের বছরের মধ্যে এটার কাজ শেষ হয়ে যাবে এবং চালু হয়ে যাবে। মোট ৩টি ফুট ওভারব্রিজ থাকবে সাঁতরাগাছিতে। সাবওয়ে তৈরির পরিকল্পনাও রয়েছে।’’ রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, সাঁতরাগাছি ফুট ওভারব্রিজটি ১৩০ মিটার লম্বা, চওড়ায় ৯ ফুট। নতুন যে ফুট ওভারব্রিজটি বানানো হচ্ছে, সেটি চওড়ায় ১২ ফুট।

এদিকে সাঁতরাগাছি স্টেশনে মানুষের পদপিষ্ট হওয়ার ঘটনায় সরব হয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের তৃণমূলের ইউনিয়ন। এদিন ইউনিয়নের তরফ থেকে স্টেশন চত্বরে পথসভা করা হয়। সাঁতরাগাছির ঘটনায় এদিন তাঁরা শোকদিবসের ডাক দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের তৃণমূল ইউনিয়নের সহকারী সাধারণ সম্পাদক সন্দীপ কর বলেন,‘‘ অবিলম্বে সরু ওভারব্রিজ চওড়া করতে হবে। সাবওয়ে তৈরি করতে হবে।এই দুটি দাবি নিয়ে বহুদিন ধরে আমরা বলে আসছি। কিন্তু রেল কোনও কর্ণপাত করছে না। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের বক্তব্য, মৃতদের পরিবারের একজনকে চাকরি দিতে হবে। কোন ট্রেন কখন ঘোষণা করা হবে, তা ঠিক করতে হবে। যাত্রী সুরক্ষার স্বার্থে কোনওরকম আপস করা চলবে না।’’ তাঁর আরও অভিযোগ, গতকাল ট্রেনের ঘোষণায় বিভ্রান্তি ছিল, যার জেরেই এমন পরিণতি হয়েছে। যদিও রেলের তরফে ঘোষণায় গাফিলতির তত্ত্ব খারিজ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, আবার ব্রিজ দুর্ঘটনা, নিহত ১

স্টেশনে ট্রেন আসার ঘোষণা নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে যাত্রী সাধারণের মধ্যে। কোন প্ল্যাটফর্মে কোন ট্রেন আসছে, তার ঘোষণা অনেকসময়ই বুঝতে পারেন না যাত্রীরা। স্টেশনের মাইকের আওয়াজ স্পষ্ট ভাবে যাত্রীদের কানেই পৌঁছয় না। স্টেশনে ট্রেন আসার ঘোষণা আরও স্পষ্ট করে যাতে শোনা যায়, সে ব্যাপারে কি কিছু ভাবছে রেল? জবাবে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারিক গীতা সরকার বললেন,‘‘যদি কোনও অসুবিধে থেকে থাকে, তবে নিশ্চয়ই তা নিয়ে ভাবা হবে। যাত্রীদের অসুবিধে হয়ে থাকলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হবে।’’

এদিকে, সাঁতরাগাছি স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজে পদপিষ্ট হওয়ার ঘটনায় ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে রেল। এ দুর্ঘটনার অনুসন্ধানের জন্য ৪ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিতে রয়েছেন প্রিন্সিপাল চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার, প্রিন্সিপাল চিফ ইঞ্জিনিয়র, প্রিন্সিপাল চিফ সিকিউরিটি কমিশনার কাম আইজি ও চিফ সেফটি অফিসার। এদিকে, এ ঘটনায় জখম ১২ জনের মধ্যে ৫ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। জখমদের মধ্যে ২ জনকে আর এন টেগোর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে ও আরেক জনকে এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করানো হয়েছে। বাকি ৪ জনকে গার্ডেনরিচে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের সেন্ট্রাল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হবে। জখমদের চিকিৎসার সব খরচ বহন করবে রেল।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Santragachi rail station stampede over bridge update