scorecardresearch

বড় খবর

পার্শ্বশিক্ষকদের শোকজ, মমতা সরকারকে হুঁশিয়ারি বিরোধীদের

নবান্নের শোকজ করার সিদ্ধান্তকে ‘চক্রান্ত’ বলে দাবি করেন প্যারা টিচার্স ঐক্য মঞ্চের সদস্য ভগিরত ঘোষ। তাঁর কথায়, ‘ শোকজ নোটিস পাঠিয়ে আমাদের ঐক্য ভাঙা যাবে না।’

বেতন কাঠামো পুনর্বিবেচনার দাবি জানিয়ে আন্দোলনকারীদের

আন্দোলনকারী পার্শ্বশিক্ষকদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের পথে রাজ্য সরকার। আন্দোলনকারী শিক্ষকরা কেন নভেম্বরের ১১ তারিখ থেকে কাজে অনুপস্থিত তা জানতে শোকজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন। ইতিমধ্যেই সব জেলা শিক্ষা আধিকারিককে কাজে অনুপস্থিত পার্শ্বশিক্ষকদের নাম তালিকাভুক্ত করে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গে সর্ব শিক্ষা অভিযানের প্রজেক্ট ডিরেক্টর শুভাঞ্জন দাস। উত্তর দেওয়ার জন্য দিন দশেক সময় পাবেন আন্দোলনকারীরা। স্কুল শিক্ষা দফতরের এক অফিসারের কথায়, ‘জবাব সন্তোষজনক না হলে আন্দোলকারীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সরকারি বিদ্যালয়ে চুক্তির ভিত্তিতে কাজ করা এক হাজারেরও বেশি পার্শ্ব শিক্ষক সল্টলেকের বিকাশ ভবনের কাছে ১১ নভেম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু করেছেন। বেতন কাঠামো পুনর্বিবেচনার দাবি জানিয়ে আন্দোলনকারীদের মধ্যে ৩৭ জন ১৫ নভেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের অনশনে বসেছেন। সরকার তাদের দাবিতে কর্ণপাত করছে না বলে অভিযোগ আন্দোলনকারী পার্শ্বশিক্ষকদের।

ইতিমধ্যেই আন্দোলকারীদের সঙ্গে কথা বলে এসেছেন বিজেপি, বাম নেতারা। শিক্ষকদের পথে নেমে আন্দোলনের জন্য সরকারকেই দায়ী করেছেন তারা। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টপোধ্যায়ের দাবি, ‘রাজ্যের অর্থনৈতিক অবস্থা বেহাল অবস্থা সত্ত্বেও ২০১৮ সালে পার্শ্বশিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবুও অভিযোগ থাকলে তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হতে পারে।’ উল্লেখ্য, আন্দোলনকারীদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বৈঠক এর আগে একবার বাতিল হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: পার্শ্বশিক্ষক আন্দোলনের ‘প্রথম শহিদ’ রেবতী রাউত, স্বামীর দাবি পথ দুর্ঘটনা!

পার্শ্বশিক্ষকদের আন্দোলনের আঁচ এবার বিধানসভার অন্দরে পৌঁছে দিতে মরিয়া বামেরা। এক্ষেত্রে তারা মুলতবি প্রস্তাবেব দাবি জানাবে। স্পিকার অনুমোদন না করলে সভার কার্যপ্রক্রিয়া ব্যাহত করা হবে বলে সতর্ক করেছেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেছেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধী নেত্রী থাকর সময় এদের পাশে দাঁড়িয়ে বহু প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এখন সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করার দাবিতেই আন্দোলন চলছে।’

পার্শ্বশিক্ষকদের দাবি নিয়ে আন্দোলন চলবে। নবান্নের শোকজ করার সিদ্ধান্তকে ‘সরকারি চক্রান্ত’ বলে দাবি করেন প্যারা টিচার্স ঐক্য মঞ্চের সদস্য ভগিরত ঘোষ। তাঁর কথায়, ‘আমাদের হারানোর কিছু নেই। শোকজ নোটিস পাঠিয়ে আমাদের ঐক্য ভাঙা যাবে না। সরকারের বৈষম্যের বিরুদ্ধে আন্দোলন চলবে।’

প্রায় তিন সপ্তাহের পথে পার্শ্বশিক্ষকদের আন্দোলন। বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্টজনেরা সমস্যার সমাধানে মুখ্যমন্ত্রী হস্তক্ষেপ দাবি করে ইতিমধ্যেই খোলা চিঠি দিয়েছেন নবান্নে।

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Showcause notices to para teachers disrupt bengal assembly threatens by oppn