scorecardresearch

বড় খবর

ডিসেম্বর ‘ঝটকা’ কবে? সাসপেন্স জিইয়ে রেখে ‘তারিখ পে তারিখ’ শুভেন্দুর, খোঁচা কুণালের

ডিসেম্বর ডেডলাইনে বঙ্গ রাজনীতির পারদ চড়াচ্ছেন শুভেন্দু।

ডিসেম্বর ‘ঝটকা’ কবে? সাসপেন্স জিইয়ে রেখে ‘তারিখ পে তারিখ’ শুভেন্দুর, খোঁচা কুণালের
বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

এতদিন শুধু ডিসেম্বর ডেডলাইন বেঁধে দিয়েই ক্ষান্ত ছিলেন, তবে এবার ডিসেম্বর ‘ঝটকা’র দিনক্ষণও বলে দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। গত কয়েক মাস ধরেই বিভিন্ন সভা-মিছিলে বারবার শুভেন্দু অধিকারীর মুখে ডিসেম্বর হুঁশিয়ারি তত্ত্ব সামনে এসেছে। ঠিক কী ঘটতে চলেছে চলতি মাসে? সেব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছুই বলেননি তিনি। তবে এবার দিনক্ষণ বেঁধে দিলেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক। শুভেন্দুর কথায়, ”১২, ১৪, ২১ তিনটে দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ, ওয়েট অ্যান্ড ওয়াচ।” বিরোধী দলনেতার একথা শুনে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছে তৃণমূল। ওই তিনদিনে কেন্দ্রীয় এজেন্সি তৎপর হলে এটা প্রমাণ হবে যে ওরা বিজেপির কথাতেই চলে, এমনই জানিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

গত কয়েক মাস ধরে ডিসেম্বর ডেডলাইন বেঁধে দিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে জোরজার জল্পনা ছড়িয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর মুখ থেকে ডিসেম্বর হুঁশিয়ারি বেরনোর পর থেকে গেরুয়া দলের একাধিক নেতাও ডিসেম্বর ডেডলাইন তুলে ধরে রাজ্যের শাসকদলকে তুলোধনা করেছেন। ঠিক কী ঘটবে ডিসেম্বরে? সেকথার অবশ্য স্পষ্ট কোনও উত্তর দেননি শুভেন্দু।

দিন কয়েক আগে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারে প্রকাশ্য সভা করেন বিজেপি নেতা। ভরা সভায় দাঁড়িয়ে এই ডিসেম্বরেই ডায়মন্ড হারবারবাসীকে লাড্ডু খাওয়ানোর ঘোষণা করেছিলেন তিনি। তবে কেন তিনি ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে লাড্ডু বিলি করতে চান তা স্পষ্ট করে বলেননি।

আরও পড়ুন- বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে বাতিল সমাবর্তন, পূর্বপল্লীর মাঠে বন্ধ পৌষ মেলা, কারণ জানালেন উপাচার্য

এতদিন ডিসেম্বর ডেডলাইন দিয়ে তৃণমূলকে তুলোধনা করে আসা এই শুভেন্দু এবার বলে দিলেন দিনক্ষণ। কী ঘটতে চলেছে ডিসেম্বরে? সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিরোধী দলনেতা বলেন, ”১২, ১৪, ২১ তিনটে দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ, ওয়েট অ্যান্ড ওয়াচ।” শুভেন্দু অধিকারীর মুখে একথা শুনে পাল্টা বিজেপির কড়া সমালোচনায় সুর চড়িয়েছে তৃণমূল।

শাসকদলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেন, ”হঠাৎ ডিসেম্বর ডিসেম্বর বলতে বলতে এবার তারিখ দিয়েছেন শুনলাম। তবে সেদিন কোনও এজেন্সির তরফে তৎপরতা হলে প্রমাণিত হবে যে বিজেপির কথায় ওরা চলে। দিল্লির বিজেপি বলে দেয় ওকে ডিস্টার্ব করো। ওই তিন দিনে কেন্দ্রীয় এজেন্সি যদি কাউকে উত্যক্ত করে তাহলে এটা স্পষ্ট হবে যে এটা সাজানো। বিজেপি নেতারা তারিখ দেবেন আর এজেন্সি গিয়ে প্যারেড করবে। এটা সোজাসুজি হয়ে যাবে। এই তিন দিনে এজেন্সি তৎপর হলে বোঝা যাবে ওরা বিজেপির কথায় চলছে।”

আরও পড়ুন- জামিনের পরেই ফের গ্রেফতার সাকেত, রেগে আগুন মমতা, সাংসদদের পাঠালেন গুজরাটে

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Suvendu adhikari criticize tmc by tying december deadline