'হাত গণনায় চলে গেছে, অধিকারী থেকে শাস্ত্রী হল?' শুভেন্দুর ডিসেম্বর ডেডলাইনে মদন 'বাণ': tmc madan mitra criticize suvendu adhikari | Indian Express Bangla

‘হাত গণনায় চলে গেছে, অধিকারী থেকে শাস্ত্রী হল?’ শুভেন্দুর ডিসেম্বর ডেডলাইনে মদন ‘বাণ’

শুভেন্দুর সমালোচনায় মদন।

‘হাত গণনায় চলে গেছে, অধিকারী থেকে শাস্ত্রী হল?’ শুভেন্দুর ডিসেম্বর ডেডলাইনে মদন ‘বাণ’
শুভেন্দুকে কটাক্ষ মদনের।

শুভেন্দুর ডিসেম্বর ডেডলাইনকে নজিদরবিহীন কটাক্ষ তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্রের। ”শুভেন্দু অধিকারী থেকে শুভেন্দু শাস্ত্রী হয়ে গেল নাকি।” বিরোধী দলনতার উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে রসিক মন্তব্য কামারহাটির তৃমমূল বিধায়কের। ”ডিসেম্বরের ৩ দিন উষ্ণতম না শীতলতম হবে’। কটাক্ষের সুরে বিরেধী দলনেতাকে প্রশ্ন বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর।

গত কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন সভা-মিছিলে ডিসেম্বর ডেডলাইন দিয়ে রাজ্য রাজনীতির উত্তাপ বহুলাংশে বাড়িয়ে দিয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। কী ঘটতে চলেছে চলতি মাসে? আলোচনা সর্বত্র। ‘ডিসেম্বরে বড় চোর ধরা পড়বে’, আগাম হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক। চলতি মাসের ৩ তারিখ দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারে প্রকাশ্য সভা করেন বিজেপি নেতা। ভরা সভায় দাঁড়িয়ে এই ডিসেম্বরেই ডায়মন্ড হারবারবাসীকে লাড্ডু খাওয়ানোর ঘোষণা করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে কেন তিনি ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে লাড্ডু বিলি করতে চান তা অবশ্য স্পষ্ট করে বলেননি বিজেপি বিধায়ক।

আরও পড়ুন- ব্রেক কষছে শীত, ঠান্ডার আমেজ ফিকে হয়েই দাপুটে কামব্যাক, জেনে নিন লেটেস্ট আপডেট

গত পরশু শুভেন্দু তাঁর ডিসেম্বর ‘ঝটকা’র দিনক্ষণও বেঁধে দিয়েছেন। পরশু তিনি বলেন, ‘১২, ১৪, ২১ তিনটে দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ, ওয়েট অ্যান্ড ওয়াচ।’ তবে শুভেন্দু অধিকারীর এই ডিসেম্বর-বাণ নিয়ে মদন মিত্র কিন্তু তেমন উদ্বেগে নেই। বরং বিরোধী দলনেতা হাত দেখতে শুরু করে দিলেন নাকি? খানিকটা এই ঢঙেই সাংবাদিকদের প্রাল্টা প্রশ্ন করেছেন রাজ্যের প্রাক্তন এই মন্ত্রী। মদন মিত্রের কথায়, ”শুভেন্দু অধিকারী থেক শুভেন্দু শাস্ত্রী হয়ে গেল। হাত গণনায় চলে গেছে। চুনি-পান্নায় চলে গেছে। এতো বাস্তব কথাটা তুলে ধরেছে। বিজেপি এখন পুরোপুরি চুনি-পান্না হীরে… মানে ধারণের উপর চলে গেছে।”

আরও পড়ুন- রবিবার প্রাথমিকের TET, পরীক্ষার্থীদের সুবিধার্থে বিরাট পদক্ষেপ মেট্রোর, নজরকাড়া সুবিধা

মদন মিত্রের পাশাপাশি তাঁরই দলের আর এক নেতা তাপস রায়ও শুভেন্দুর সমালোচনায় সরব হয়েছেন। বরাহনগরের তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায় বলেন, ”এটা বলে বাংলা ও কেন্দ্রীয় বিজেপির কাছে নিজের বিশ্বাসযোগ্যতা প্রতিষ্ঠিত করতেই এই সব বলছে।” অন্যদিকে বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীও শুভেন্দু অধিকারীর হুঁশিয়ারিকে বিশেষ পাত্তা দিচ্ছেন না বা বিন্দুমাত্র উৎসাহও প্রকাশ করছেন না। সুজন চক্রবর্তী বরং কটাক্ষের সুরে বলেছেন, ”৩টে দিন উষ্ণতম হবে না শীতলতম হবে?”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Tmc madan mitra criticize suvendu adhikari

Next Story
রবিবার প্রাথমিকের TET, পরীক্ষার্থীদের সুবিধার্থে বিরাট পদক্ষেপ মেট্রোর, নজরকাড়া সুবিধা