scorecardresearch

বড় খবর

বারাণসীর ধাঁচে গঙ্গারতি দক্ষিণেশ্বর-বেলুড়েও, মমতার নজরে আরও অনেক হিন্দুতীর্থ

কলকাতার বাবুঘাটে সূচনার পর ধাপে ধাপে কাজ এগোনোর কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।

বারাণসীর ধাঁচে গঙ্গারতি দক্ষিণেশ্বর-বেলুড়েও, মমতার নজরে আরও অনেক হিন্দুতীর্থ
এবার বারাণসীর ধাঁচে দক্ষিণেশ্বর এবং বেলুড়মঠেও হবে গঙ্গারতি। প্রকাশ্য মঞ্চে ঘোষণা করলেন মমতা।

কলকাতার গঙ্গার ঘাটগুলিতে গঙ্গারতির ঘোষণা আগেই করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার বারাণসীর ধাঁচে দক্ষিণেশ্বর এবং বেলুড়মঠেও হবে গঙ্গারতি। প্রকাশ্য মঞ্চে ঘোষণা করলেন মমতা। তারাপীঠ এবং পরবর্তীকালে কালীঘাটেও বিশেষ ব্যবস্থার কথা শোনালেন মুখ্যমন্ত্রী। কলকাতার বাবুঘাটে সূচনার পর ধাপে ধাপে কাজ এগোনোর কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।

বুধবার গঙ্গাসাগর মেলায় আগত পুণ্যার্থীদের উদ্দেশে বক্তৃতা রাখার সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আগামিকাল, বৃহস্পতিবার স্বামী বিবেকানন্দের জন্মবার্ষিকী। সেই শুভক্ষণেই বাবুঘাটে গঙ্গারতির কাজ শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, “কাল স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন। তাঁর মূর্তির সামনে দাঁড়িয়ে তাঁর থেকে প্রেরণা নিয়ে কলকাতা পুরসভা এবং ববিকে বলব (মেয়র ফিরহাদ হাকিম) কাল থেকে কাজ শুরু করতে। আস্তে আস্তে দক্ষিণেশ্বর, বেলুড়মঠের ঘাটেও গঙ্গারতির দিকে এগোব আমরা।”

তিনি আরও বলেন, “তারাপীঠেও আরতি হতে পারে। কালীঘাটে ছোট একটা পুষ্করিণী রয়েছে, স্কাইওয়াকও হচ্ছে। যেখানে সুযোগ আছে, দেখে নিয়ে করব। তবে গঙ্গারতি বললেই শুরু করা যায় না। সবদিক থেকে দেখে তবেই এগোতে হয়।” তিনি জানিয়েছেন, ঘাটে মানুষ শান্তির জন্য আসেন। ঠাকুর বিসর্জন হয়। সেখান থেকে কাঠামো তুলে নিয়ে গিয়ে আবার মায়ের আবাহন হয়। আরতি দেখতে সবাই আসতে পারেন। কিন্তু যে কেউ ইচ্ছা করলেই আরতি করতে পারবেন না। যাঁরা সত্যই গঙ্গারতি জানেন, তাঁদের দিয়েই আরতি করাতে হবে।

আরও পড়ুন সুপ্রিমো মমতাকে বিরাট চ্যালেঞ্জ তৃণমূল বিধায়কের! ঘাস-ফুলে হুলস্থূল

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সন্ধেয় গঙ্গাপুজো করা নিয়ে বিজেপি-পুলিশ সংঘাত হয়। বঙ্গ বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদারকে আটক করে কলকাতা পুলিশ। অনুমতি ছাড়াই গঙ্গারতি করার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ সুকান্তর বিরুদ্ধে। পুলিশের কাছে আগে অনুমতি চাইলেও সেই অনুমতি দেয়নি লালবাজার।

এদিকে, এদিন গঙ্গাসাগর মেলা নিয়েও মুখ খোলেন মুখ্যমন্ত্রী। ফের কুম্ভমেলার সঙ্গে তুলনা টেনে বলেন, “কুম্ভমেলা জাতীয় মেলা। কেন্দ্র আর্থিক সাহায্য দেয়। কিন্তু গঙ্গাসাগরের জন্য কোনও সহায়তা দেওয়া হয় না। গোটাটাই আমরা করি। আগে মেলায় যেতে কর দিতে হত। আমরা সেটা তুলে দিয়েছি। আগে কিছু ছিল না। আমরা অতিথিশালা গড়ে দিয়েছি। ২৪ ঘণ্টা বাংলা-হিন্দিতে সরকারি ঘোষণা হয়। সাগরে আলোর ব্যবস্থা হয়েছে। স্বাস্থ্য পরিষেবা, ফায়ার ব্রিগেড রয়েছে। আমরা তো বলবই, বিশ্বাস না হলে নিজের চোখে গিয়ে দেখে আসতে পারেন।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Varanasi like ganga aarti in dakshineshwar belur to start soon says mamata banerjee