scorecardresearch

এ কী কাণ্ড, ঝাঁটা হাতে সাগর দাপালেন মমতার মন্ত্রীরা!

সোমবার সকালে সাগরতটে তাজ্জব ঘটনা।

এ কী কাণ্ড, ঝাঁটা হাতে সাগর দাপালেন মমতার মন্ত্রীরা!
ঝাড়ু হাতে বাংলার মন্ত্রীরা।

সংক্রান্তি শেষে সাগরমেলায় ভাঙা হাট। পূণ্যার্থীদের বাড়ি ফেরার পালা। অনেকটাই ফাঁকা কপিলমুণির আশ্রম সংলগ্ন এলাকা। তার মধ্যেই অভিনব ছবি ধরা পড়ল সাগরতটে। পরিস্কার, পরিচ্ছন্ন সমুদ্র সৈকতের লক্ষ্যে সাফাই অভিযানে রাজ্যের বাঘা বাঘা সব মন্ত্রীরা। ঝাঁটা হাতে সাফাই অভিযানে দেখা গেল কৃষি ও পরিষদীয় মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়, বিদ্যুৎ ও ক্রীড়া মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, পরিবহণমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী, দমকল মন্ত্রী সুজিত চট্টোপাধ্যায়কে।

প্লাসটিক বর্জিত পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন গঙ্গাসাগর মেলা। শুরু থেকেই এই লক্ষ্যেই এবার ঝাঁপিয়েছিল প্রশাসন। লক্ষ লক্ষ ভক্তের ভিড়ে নোংরা হয়েছে সমুদ্রতট। মেলা শেষে তাই তড়িঘড়ি সেসব সাফাইয়ের নেতৃত্বে রাজ্যের মন্ত্রীরা। নজির গড়লেন বটেই, সঙ্গে ছড়িয়ে দিলেন সচেতনতার বার্তা।

কৃষি ও পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘মকরস্নানে গঙ্গাসাগরে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নানান মানুষ আসেন। এত মানুষ একসঙ্গে আসায় গত কয়েকদিনে জায়গাটা কিছুটা নোংরা হয়েছে। তাই আমাদের তরফ থেকে এই সাফাই অভিযান করছি। এটা মানুষকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে সচেতনতারও প্রয়াস।’

আরও পড়ুন- কুলে গিয়ে কচিকাঁচাদের ক্লাস নিলেন মমতার মন্ত্রী, নাড়লেন খুন্তি, খেলেন ডিম-ভাত

মন্ত্রী সুজত বসু বলেছেন, ‘মেলা শুরুর আগে থেকেই আমার এখানে থাকার সৌভাগ্য হয়েছে। একাত্ম হয়ে গিয়েছি। তাই মেলা শেষে জায়গাটি পরিষ্কার ও পরিচ্ছন্ন রাখা আমাদেরই নৈতিক দায়িত্ব।’

রাজ্য সরকারের হিসেব অনুযায়ী এবার গঙ্গাসাগরে প্রায় ৬০ লক্ষ পুন্যার্থীর সমাগম ঘটেছিল। ৮ তারিখ থেকে মেলার সূচনা হয়। তখন থেকেই মেলায় ভিড় জমছে। যা উপচে পড়ে মকর সংক্রান্তিতে। প্রশাসন দক্ষ হাতে মেলার আয়োজন করেছিল। দায়িত্ব সামলেচ্ছেন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়, অরূপ বিশ্বাস, স্নেহাশিস চক্রবর্তী, সুজিত চট্টোপাধ্যায়রা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: West bengal governments ministers started gangasagar clean movement